ঢাকা, বুধবার, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২৬ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ফোর স্টার ও ফাইভ স্টার হোটেলের মধ্যে পার্থক্য কি?

উদয় হাসান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-২৫ ১২:১৭:৩৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-২৫ ২:১৫:৪৮ পিএম
প্রতীকী ছবি
Walton AC 10% Discount

উদয় হাসান : কোথাও ছুটি কাটাতে অথবা আনন্দ ভ্রমণ করতে গিয়ে সেখানে কোনো পারফেক্ট হোটেল হোটেল বুকিং করাটা ভ্রমণ প্রক্রিয়ারই একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যদি আপনি টু স্টার এবং ফোর স্টার হোটেলের মধ্যে পার্থক্য খুঁজতে যান, তাহলে পার্থক্যগুলো খুব স্পষ্টভাবে ধরা পড়বে। কিন্তু যদি আপনি ফোর স্টার এবং ফাইভ স্টার হোটেলের পার্থক্য নিয়ে তর্ক করতে চান, তাহলে দেখবেন যে উভয় হোটেলের পার্থক্যগুলো একটু বেশি সূক্ষ্ম।

দুঃখজনক সত্য এই যে, হোটেলের জন্য কোনো স্ট্যান্ডার্ড রেটিং নেই। প্রত্যেক কোম্পানিই বিভিন্ন হোটেল রেটিং করতে তাদের নিজস্ব ক্রাইটেরিয়া বা মানদণ্ড ব্যবহার করে। তাই এক দেশের থ্রি স্টার হোটেল অন্য দেশে ফাইভ স্টার বলে গণ্য হতে পারে। তাহলে ফোর স্টার ও ফাইভ স্টার হোটেলের মধ্যে পার্থক্য কিভাবে জানা যাবে?

চিন্তা নেই! আপনি এক্সপেডিয়া ডটকম থেকে এ বিষয়ে ধারণা পেতে পারেন। হোটেল বুকিংয়ের এই ওয়েবসাইটটি তাদের তালিকায় থাকা হোটেলগুলোর রেটিংয়ের জন্য কাস্টমারদের ফিডব্যাক নিয়ে থাকে, তাই আপনি সৎ রিভিউর জন্য এটির ওপর নির্ভর করতে পারেন।

সাইটটি বিশ্বব্যাপী ১,০০০ এরও বেশি শহরে তাদের ১০০,০০০ এর বেশি হোটেলের প্রত্যেকটির জন্য স্টার রেটিং সিস্টেমের ফিচার প্রকাশ করেছে। স্থানীয় হোটেলগুলোর ক্ষেত্রে তারা সেকেন্ডহ্যান্ড ডাটা ব্যবহার করে নিজেরাই রেটিং করেছে। যদি কোনো হোটেলের রেটিংয়ের ব্যাপারে তাদের সন্দেহ থাকে, তারা রেটিংটি নির্ভুল কিনা তা নিশ্চিৎ করতে তাদের পরিদর্শক পাঠান। ফরেন বা বিদেশি হোটেলগুলোর ক্ষেত্রে তারা কোনো দেশে কোনো হোটলের অবস্থানের ওপর ভিত্তি করে স্ট্যান্ডার্ড সিস্টেম ব্যবহার করেন।

এক্সপেডিয়া উল্লেখ করেছে যে, তাদের ফোর স্টার হোটেলে প্রায়ক্ষেত্রে নিবেদিত তত্ত্বাবধায়ক, ভ্যালেট পার্কিং বা গাড়ি পার্ক করার জায়গা, অনুরোধে টার্নডাউন সার্ভিস (যেমন- কক্ষকে পরিষ্কার ও ঘুমোপযোগী করা) এবং ২৪ ঘন্টা রুম সার্ভিস অন্তর্ভুক্ত থাকে। কক্ষগুলোতে সাধারণত বড় বেড, অতিরিক্ত আসন, মিনিবার, সেফস বা ফায়ারপ্রুফ কেবিনেট, পিলোটপ ম্যাট্রেস, রোব বা গাউন এবং উচ্চমানের বাথরুম সামগ্রী থাকে। ফোর স্টার হোটেলের কক্ষ বা লবিতে স্থাপত্যশিল্পের নিদর্শনও লক্ষ্য করতে পারেন, যেমন- ক্রাউন মোল্ডিং বা মুকুট ঢালাই, আর্টওয়ার্ক বা চিত্রকর্ম এবং মার্বেল বা গ্রানাইট বা পাথরের কারুকার্য। ফুল-সার্ভিস স্পা, টেনিস অ্যাকসেস, টেনিস কোর্ট, চাইল্ড-কেয়ার এবং পুলসাইড ফুড সার্ভার সম্বলিত পুল আছে এমন যেকোনো রিসোর্টকে ফোর স্টার রেটিং দেওয়া হয়ে থাকে।

কিন্তু ফাইভ স্টার হোটেলের ক্ষেত্রে আপনি আরো একটু বেশি সুবিধা পেয়ে থাকবেন। এক্সপেডিয়া উল্লেখ করেছে যে, তাদের ফাইভ স্টার হোটেলের সুবিধার মধ্যে গুরমেট বা ব্যয়বহুল ডাইনিং, লাক্সারি বা বিলাসবহুল স্পা, ফুল-সার্ভিস হেলথ ক্লাব এবং বিলাসবহুল লকার রুম অন্তর্ভুক্ত। হোটেলের কর্মকর্তারা মার্জিত, তাদেরকে সবসময় পাওয়া যায় এবং তারা অথিতিদেরকে নাম ধরে ডাকেন। অন্যান্য সুবিধার মধ্যে রয়েছে আপগ্রেডেড চেক-ইন, ওয়েলকাম অ্যামিনিটি এবং বাটলার সার্ভিস বা খানসামার সেবা। কক্ষগুলোর সাজসজ্জা রাজকীয় এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বৈদ্যুতিক সুবিধা থাকে, যেমন- পর্দা সরানো বা টেনে দেওয়ার জন্য বেডসাইড কন্ট্রোল। কক্ষগুলোতে কারুকার্য সজ্জিত বড় বড় বাথরুম থাকে এবং বাথরুমে ডুয়াল সিনক ও আবদ্ধ টয়লেট থাকে। আপনি বাথরুমগুলোতে প্রিমিয়াম স্পা-ব্র্যান্ড প্রসাধন সামগ্রী এবং তাজা ফুল বা জীবন্ত উদ্ভিদও আশা করতে পারেন। ফাইভ স্টার রিসোর্টে গলফ কোর্স, টেনিস সেন্টার, হেলথ ক্লাব, পার্সোনাল ট্রেনার, লাক্সারিয়াস স্পা, সাংস্কৃতিক কার্যক্রম এবং শিশুদের জন্য ডে ক্যাম্প থাকে।

উভয় হোটেলের পার্থক্যগুলো ছোট হলেও আপনার অবসর উদযাপনকে অন্যমাত্রায় নিতে ফোর স্টার হোটেল থেকে ফাইভ স্টার হোটেলে আপগ্রেড হওয়ার গুরুত্ব রয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রে বিবেচ্য বিষয় হলো অর্থব্যয়ের ক্ষমতা বা ইচ্ছা এবং হোটেলে কতক্ষণ সময় কাটানো হবে। যদি আপনি অবসর উদযাপনে হোটেলের বাইরে বেশি সময় কাটাতে চান, তাহলে অতিরিক্ত অর্থ খরচ না করে ফোর স্টার অথবা থ্রি স্টার হোটেল বুকিং করতে পারেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৫ মার্চ ২০১৯/ফিরোজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge