ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ কার্তিক ১৪২৪, ২৪ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

শিশুদের জন্য গণমাধ্যমের এক মিনিট বরাদ্দ

আবু বকর ইয়ামিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৭-১৮ ৬:৩৪:১৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৭-৩০ ৭:৫৯:১৪ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিশুবিষয়ক প্রচারণার জন্য টেলিভিশন চ্যানেলগুলো প্রাইম টাইমে বিনামূল্যে এক মিনিট এয়ার কাভারেজ বরাদ্দ দিতে সম্মত হয়েছে।

এ লক্ষ্যে শিশু অধিকারসমূহ তুলে ধরতে ইউনিসেফের সঙ্গে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে দেশের শীর্ষ টিভি চ্যানেলগুলো।

মঙ্গলবার রাজধানীর এক হোটেলে এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

এ সমঝোতার মাধ্যমে শিশুদের জন্য গণমাধ্যমের ভূমিকা একধাপ এগিয়ে গেল বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, এ সমঝোতার স্মারকের মাধ্যমে সরকার ও ইউনিসেফের সঙ্গে শিশুদের কল্যাণে গণমাধ্যম যুক্ত হলো। ফলে দেশের ভবিষ্যৎ নির্মাণের পথে আরো একধাপ অগ্রগতি সাধিত হলো।

বর্তমানে শিশু মৃত্যুহার কমেছে বলে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, শিশুদের ভয়ংকর ১০টি কঠিন রোগ মুক্তির ক্ষেত্রে টিকা প্রদানের মাধ্যমে সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। শিশু অধিকার আইন প্রবর্তন করেছে। এর মাধ্যমে নতুন দিগন্তের সূচনা করেছে। এ আইনটি আরো বেশি বেশি প্রচার করতে হবে।

‘এখন অন্যতম বড় সমস্যা হচ্ছে শিশু নির্যাতন। এ নির্যাতন রোধে গণমাধ্যমের একটি ভূমিকা রয়েছে। সরকারের পাশাপাশি গণমাধ্যমকে সক্রিয়ভাবে এগিয়ে আসতে হবে। গণমাধ্যম এগিয়ে এলে সরকারের প্রশাসনিকভাবে যেকোনো ব্যবস্থা নেওয়া সহজ হবে।’

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে পুষ্টি। খাদ্যের নিরাপত্তা ও পুষ্টি নিয়ে সরকারকে যেমন আন্তরিক হতে হবে তেমনি গণমাধ্যমের উচিত হবে এটি গুরুত্ব দিয়ে প্রচার করা। শিশুদের জন্য শুধু ইউনিসেফ নয়, সরকার ও গণমাধ্যমকে জোরালোভাবে এগিয়ে আসতে হবে। বাল্যবিবাহ, শিশু নির্যাতন, শিশুশ্রম প্রতিরোধে আমাদের একত্রে কাজ করতে হবে।

শিশুদের নিজস্ব মতামত প্রকাশ ও বিস্তার, গণমাধ্যমে তাদের কার্যকর উপস্থিতি এবং একই সঙ্গে ডিজিটাল প্লাটফর্মে তাদের সক্রিয় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে শিশু অধিকারসমূহ জোরদার করার বিষয়টি চিহ্নিত করতে দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে কাজ করছে ইউনিসেফ। এ উদ্যোগকে আরো এগিয়ে নিতে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর সঙ্গে ইউনিসেফ গড়ে তুলছে অংশীদারিত্ব। এই চ্যানেলগুলো শিশুদের তৈরি করা সংবাদ ও স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী জনসেবামূলক ঘোষণা (পিএসএ) এবং শিশুবিষয়ক প্রচারণায় টিভি স্পট সম্প্রচার করবে। 

যেসব চ্যানেল চুক্তিতে সই করেছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে- একাত্তর টিভি, একুশে টিভি, দুরন্ত টিভি, বিজয় টিভি ও বাংলা টিভি। রাশেদ চৌধুরী (একুশে টিভি), সামিয়া জামান (একাত্তর টিভি), চৌধুরী মহিবুল হাসান (বিজয় টিভি), সৈয়দ সামাদুল হক (বাংলা টিভি) ও অভিজিৎ চৌধুরী (দুরন্ত টিভি) তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

এর আগে ইউনিসেফ বাংলাদেশ টেলিভিশন ও ছয়টি টেলিভিশন চ্যানেলের সঙ্গে এই সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করে। চ্যানেলগুলো হচ্ছে- এটিএন বাংলা, দেশ টিভি, বৈশাখী টিভি, সময় টিভি, চ্যানেল ২৪ ও গাজী টিভি। 

অনুষ্ঠানে ইউনিসেফ বাংলাদেশের অফিস ইনচার্জ সারা বোরদাস বলেন, শিশু অধিকারের বিষয়ে মা-বাবা, নীতিনির্ধারক ও সমাজের সচেতনতা বাড়াতে এই অংশীদারিত্ব উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। কেননা শিশুরাই এখন নিজেদের জন্য কথা বলতে পারবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৮ জুলাই ২০১৭/ইয়ামিন/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel