ঢাকা, সোমবার, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আলোচনায় এনামুলের ১৯ নো বল!

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-১২-২৩ ৪:৩১:২২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-২৩ ৬:১৬:৫০ পিএম
বল করছেন এনামুল হক জুনিয়র। ছবি: জনি সোম
Walton AC 10% Discount

ক্রীড়া প্রতিবেদক, সিলেট থেকে : ভিন্ন এক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন এনামুল হক জুনিয়র! বাঁহাতি এই স্পিনারের নাম শুনলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ের স্মৃতি। কিন্তু ৩১ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার সিলেটে তিক্ত অভিজ্ঞতার স্বাদ পেলেন।

ওয়ালটন ১৯তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সিলেটের হয়ে চট্টগ্রামের বিপক্ষে খেলছেন এনামুল। ঘরের মাঠে চিরচেনা উইকেটে দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬ উইকেট পেলেও ভিন্ন কারণে আলোচনায় এসেছেন।

বাঁহাতি এই স্পিনার দুই ইনিংস মিলিয়ে নো বল করেছেন ১৯টি! চোখ কপালে ওঠার উপক্রম। বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ম্যাচে স্পিনারের ১৯ নো বলের ঘটনা এর আগে হয়েছে কি না, সেটা গবেষণার বিষয়! অফিসিয়াল স্কোরারও অবাক। ম্যাচ রেফারি ওবায়দুল হকের চোখে-মুখেও বিস্ময়।



চট্টগ্রামের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ১৩ ওভারে ৩ উইকেট নেন এনামুল। ২টি মেডেনসহ রান দেন ৪৪। যেখানে নো বল করেন ৬টি। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪১ ওভার হাত ঘুরিয়ে নো বল দিয়েছেন ১৩টি। অর্থাৎ দুই ইনিংস মিলিয়ে নো বল ১৯টি।

সিলেটের কোচ মিজানুর রহমান বাবুল রাইজিংবিডিকে বলেছেন, ‘ওর (এনামুল) বোলিং অ্যাকশনে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। এবারের লিগের শুরুতে কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। পরবর্তীতে ঠিক হয়েছিল। বিপিএলে পুরো সময়টা বসে ছিল। একটা লম্বা গ্যাপ পড়ে যাওয়ায় কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।’ 

এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে এ নিয়ে তিনটি ম্যাচ খেললেন এনামুল। সিলেটের হয়ে সর্বোচ্চ ১৬ উইকেট পেয়েছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। বিপিএলের আগে লিগের শেষ রাউন্ডে চট্টগ্রামের বিপক্ষে এক ম্যাচেই পেয়েছিলেন ১০ উইকেট। তবে নো বলের সমস্যা লিগের শুরু থেকেই। প্রথম ম্যাচে এক ইনিংস বোলিং করে ৫ ওভারে নো বল দেন ৩টি। পরের ম্যাচে চট্টগ্রামে প্রথম ইনিংসে ৩৪ ওভারে নো বল ৬টি এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ২১.২ ওভারে নো বল ৯টি। সব মিলিয়ে লিগে এনামুল জুনিয়রের নো বল ৩৭টি!



ম্যাচ পর্যবেক্ষণে আসা বিসিবির দুর্নীতি বিরোধী ও নিরাপত্তা ইউনিটের (আকসু) কর্মকর্তা ফয়সালের কাছে ১৯ নো বলের ঘটনা দৃষ্টিকটু লাগলেও বড় কোনো ইস্যু মনে হচ্ছে না। তবে সিলেট-চট্টগ্রামের ম্যাচে উত্তেজনা না থাকায় অনেকটাই আড়ালে পড়ে গেছে এনামুলের বেহিসাবি নো বল। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ হলে ‘ইচ্ছাকৃত নো বল করছেন কি না তা নিয়ে তদন্তও হতো’ বলে মনে করেন ফয়সাল। 

যতগুলো ম্যাচে এনামুল ৫ উইকেট পেয়েছেন, প্রতিটি ম্যাচের বল নিজ সংগ্রহে রেখেছেন। ১৯ নো বল দেওয়ার ঘটনাও বিরল এবং ক্যারিয়ারে প্রথম। চাইলে এ ম্যাচের বলটিও রাখতে পারেন!

২০০৩ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছিল এনামুল হক জুনিয়রের। অভিষেকের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্যুতি ছড়াতে বেশিদিন সময় লাগেনি। চট্টগ্রামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ে বড় অবদান রেখেছিলেন। পরের ম্যাচে নেন ১২ উইকেট।



সব মিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার আগমণ বাংলাদেশের ক্রিকেটে নিয়ে এসেছিল স্বস্তির সুবাস। কিন্তু বেশিদিন টিকে থাকতে পারেননি। চোট এবং ফর্মহীনতায় ছিটকে যান। ২০১১-১২ মৌসুমে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৫৯ উইকেট নিয়ে ফিরেছিলেন জাতীয় দলে। কিন্তু জাদুকরি কিছু করতে না পারায় দল থেকে ছিটকে যান। এরপর আর ফেরা হয়নি।

তবে শ্রেণির ক্রিকেটে খেলে যাচ্ছেন নিয়মিত। ১১২টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ৪৩৮ উইকেট পেয়েছেন ৩১ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার।

 

 

রাইজিংবিডি/সিলেট/২৩ ডিসেম্বর ২০১৭/ইয়াসিন/পরাগ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge