ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৪, ২৭ জুন ২০১৭
Risingbd
ঈদ মোবারক
সর্বশেষ:

‘কিছুই নিয়ে বের হতে পারিনি’

আহমদ নূর : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০২-১৬ ২:৪২:১১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-১৮ ৮:০৯:০৮ পিএম

আহমদ নূর : বাঁশবাড়ী বস্তির ঠিক মাঝের অংশে স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে থাকেন সালমা আক্তার। তিনি বলেন, ‘আগুন লাগার পর প্রাণ বাঁচাতে দ্রুত ঘর থেকে বের হয়ে আসি। ঘর থেকে কিছুই বের করে নিয়ে আসতে পারিনি।’

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে আগুনে পুড়ে যাওয়া মোহাম্মদপুর বাঁশবাড়ী বস্তির বাসিন্দা সালমা আক্তার বলেন, জমানো টাকাপয়সাসহ ঘরে প্রায় দুই লাখ টাকার মালামাল ছিল। সব পুড়ে গেছে।

আব্দুস সালাম নামে ওই বস্তির এক বাসিন্দা বলেন, ‘যখন আগুন লাগে তখন ঘুমে ছিলাম। সবার হইচই শুনে উঠে দেখি বস্তিতে আগুন লাগছে। পরে দ্রুত ঘর থেকে বের হয়ে রাস্তায় চলে আসি। পরনে যা ছিল তা ছাড়া আর কিছু নিয়ে আসতে পারিনি।’

আগুন লাগার কারণ ক্ষতিয়ে দেখা হবে : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজিব বলেছেন, এখানে পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগানোর প্রশ্নই আসে না। যেকোনো জায়গায় আগুন লাগলে ভুক্তভোগীরা দাবি করেন পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগানো হয়েছে। কিন্তু এখানে তা হয়নি বলে আমার বিশ্বাস। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’

তারেকুজ্জামান রাজিব বলেন, ‘এই বস্তিতে আগেও আরো চারবার আগুন লেগেছিল। এই নিয়ে এখানে পাঁচবার আগুন লাগল। এখানে কোনো হাইরাইজ বিল্ডিং বা কোনো প্রতিষ্ঠানকে লিজ দেওয়া হয়নি যে বস্তি উচ্ছেদ করে তারা বসবে। আর এখানে নিম্ন আয়ের মানুষ থাকেন, তারা ভবিষ্যতেও থাকবেন। আগামীতেও এখানে হাইরাইজ বিল্ডিং করার কোনো পরিকল্পনা আমাদের নেই।’

সরেজমিন : বৃহস্পতিবার সরেজমিনে বাঁশবাড়ী বস্তিতে গিয়ে দেখা যায়, বস্তির মাঝের অংশের ঘরগুলো পুড়ে গেছে। মাটিতে কালো ছাই ছাড়া কিছু নেই। বস্তির চারপাশে কিছু ঘর আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে। পাশের একটি ভবন ধোঁয়ার কারণে রং বদলে কালো হয়ে গেছে। টিনগুলো সরিয়ে নিচ্ছেন বস্তিবাসী।

বস্তির বাসিন্দা মো. মাসুম বলেন, ‘বস্তিতে আগুন পরিকল্পিতভাবে লাগানো হয়েছে।’ বস্তির আরেক বাসিন্দা সবুজ মিয়া দাবি করেন, বস্তিতে আগুন লাগানো হয়েছে। তিনি বলেন, ‘কেউ হয়তো চায়নি  যে, আমরা এই বস্তিতে থাকি। এ জন্য আগুন লাগাতে পারে।’

বৈদ্যুতিক খুঁটির পাশের ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত : বস্তির বাসিন্দা হানিফ মিয়া রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘যখন আগুন লাগে তখন আমি রিকশা গ্যারেজে রেখে ঘরে ফিরছিলাম। ঠিক সেই সময় আগুন লাগে। আগুন এই খুঁটির (মূল সড়কের পাশে, বস্তির ঠিক মাঝামাঝি) পাশের ঘর থেকে লেগেছ। সে সময় এক লোককে দৌড় দিয়ে পালিয়ে যেতে দেখেছি। তবে তার চেহারা দেখতে পাইনি।’

তিনি বলেন, ‘আগুন লাগার সাথে সাথে দ্রুত বস্তির অন্য ঘরগুলোতে লাগা শুরু করে। ফায়ার সার্ভিস সময়মতো না আসলে বস্তির সব ঘর পুড়ে যেত।’

ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অস্থায়ী ক্যাম্প ও সহায়তা: কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের কথা বিবেচনা করে আমরা সাথে সাথে একটি অস্থায়ী আশ্রয় ক্যাম্প তৈরি করেছি। পাশাপাশি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সহায়তায় সিটি করপোরেশনের মাধ্যমে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত ২২১ পরিবারকে ৩০ কেজি করে চাল ও নগদ তিন হাজার টাকা করে প্রাথমিকভাবে সহায়তা করছি। পরবর্তী সময়ে অবস্থা বিবেচনা করে আমাদের সাহায্য অব্যাহত থাকবে।’

তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার জন্য ব্র্যাকসহ বেশ কয়েকটি এনজিও আমার সাথে যোগাযোগ করেছে। তারা এখানে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আজ বা কাল থেকে তারা এখানে এসে কাজ শুরু করবে।’

প্রসঙ্গত, বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে বাঁশবাড়ী বস্তিতে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১৩টি ইউনিট আড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে প্রায় দেড় শতাধিক ঘর পুড়ে গেছে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/নূর/সাইফ/এএন

Walton Laptop