ঢাকা, সোমবার, ৮ কার্তিক ১৪২৪, ২৩ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

৫০ হাজার ইসিআর ক্রয় করবে এনবিআর

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৬-১৯ ৬:১৮:৪৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৬-১৯ ৬:৪৬:০৯ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : মূল‌্য সংযোজন কর (মূসক/ভ‌্যাট) আদায় নিশ্চিত করতে ও ব‌্যবসায়ীদের সাশ্রয়ী মূল‌্যে সরবরাহের উদ্দেশ‌্যে আগামী বছরের মধ‌্যে ৫০ হাজার ইলেকট্রনিক ক্যাশ রেজিস্টার (ইসিআর) মেশিন ক্রয় করবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের সম্মেলন কক্ষে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়নবিষয়ক সভায়  প্রতিষ্ঠানটির এনবিআরের সদস‌্য ও ভ‌্যাট অনলাইনের প্রজেক্ট পরিচালক রেজাউল হাসান এসব তথ‌্য জানান।

রেজাউল হাসান বলেন, ব‌্যবসায়ীদের সাশ্রয়ী মূল‌্যে ইলেকট্রনিক ক্যাশ রেজিস্টার (ইসিআর) সরবরাহের জন‌্য ইতিমধ‌্যে ১০ হাজার ইসিআর মেশিন ক্রয়ের উদ‌্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। একবার টেন্ডার দেওয়ার পর কাঙ্ক্ষিত মূল‌্য না পাওয়ায় আবার টেন্ডার নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এভাবে ধাপে ধাপে আগামী বছরের মধ‌্যে ৫০ হাজার ইসিআর মেশিন সরবরাহের পরিকল্পনার রয়েছে। আমরা চাচ্ছি, বছরে ৫০ হাজার ইসিআর মেশিন যোগ হোক।

তিনি বলেন, বর্তমানে সাড়ে ৪ হাজার ইসিআর মেশিন রয়েছে। এনবিআর থেকে সরবরাহকৃত ইসিআর মেশিনের ক্রয়মূল‌্য ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা হবে। তবে ক্ষুদ্র ব‌্যবসায়ীদের জ‌ন‌্য আমরা চাচ্ছি মাত্র ৫ হাজার টাকায় ছোট ইসিআর মেশিন সরবরাহ করতে।

রেজাউল হাসান বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ‌্যমাত্রা অর্জনে রাজস্ব আদায়ে সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। আর এজন‌্য ভ‌্যাট সেক্টর আগামীতে নেতৃত্ব দেবে। আমরা চাচ্ছি ভ‌্যাট আদায় ও প্রদানে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে। যা নতুন ভ‌্যাট আইন প্রয়োগের মাধ‌্যমে সম্ভব। এ আইন সব ক্ষেত্রে পুরাতন আইনের চেয়ে শ্রেয়। ইতিমধ‌্যে ৩১ হাজার ৪৭০ জন ব‌্যবসায়ী নতুন ভ‌্যাট রেজিস্ট্রেশন নিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা ব‌্যবসায়ীদের ব‌্যবসাকেন্দ্রে ভ‌্যাট নিবন্ধনপত্র ঝুঁলিয়ে রাখা বাধ‌্যতামূলক করেছি। আমরা আইসিটি বিভাগের সঙ্গে আলোচনা করে ভ‌্যাট অ্যা‌পস তৈরি পরিকল্পনা নিয়েছি। যাতে যে কেউ সরকারের কোষাগারে ভ‌্যাট জমা হয়েছে কিনা যাচাই করতে পারে।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, নতুন ভ‌্যাট আইন বাস্তবায়নে সবচেয়ে বড় চ‌্যালেঞ্জ হচ্ছে টার্নওভার কর আদায় করা। নতুন আইনে ব‌্যবসায়ীদের টার্নওভার ৩৬ লাখ টাকা পর্যন্ত করমুক্ত। এক্ষেত্রে ব‌্যবসায়ীরা যদি ৫০ লাখ টাকা টার্নওভার থাকার পরও ৩৬ লাখ টাকা ঘোষণা করে তাহলে এ আইনে এমন কোনো ম‌্যাকানিজম নেই যা ধরা সম্ভবপর হবে।

প্রসঙ্গত, ইসিআর মেশিন মূলত অপারেটভিত্তিক একটি যন্ত্র। কোনো দোকানে পণ্য কিনলে এ মেশিনে পণ্যের নাম, পরিমাণ ও মূল্য তালিকা সংযুক্ত হয়ে থাকে। আর এ মেশিন থেকে ওই প্রতিষ্ঠানের টিন নম্বরে ভ্যাটের সঠিক পরিমাণ যুক্ত হয়ে থাকে। এছাড়া ইসিআর মেশিনের বড় সুবিধা হলো, এ মেশিন দিয়ে ক্যাশ, ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডসহ অন্যান্য অনলাইনভিত্তিক আর্থিক লেনদেন করে কেনাবেচা করা যায়।

ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে সভায় ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন জেলা প্রশাসকসহ এনবিআরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ জুন ২০১৭/এম এ রহমান/মুশফিক

Walton
 
   
Marcel