ঢাকা, শনিবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৮ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

সড়ক দুর্ঘটনারোধে ২০০ বাসচালককে প্রশিক্ষণ

হাসান মাহামুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১১-০৫ ৬:৪৬:০২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১১-১১ ৭:০০:৩৭ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাসচালকদের দক্ষতার পাশাপাশি সচেতনতা ও আচরণগত পরিবর্তনের মাধ্যমে সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে তাদের আন্তর্জাতিকমানের সড়ক নিরাপত্তা ও আত্মরক্ষামূলক গাড়ি চালনা প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক।

রাজধানীর উত্তরার ব্র্যাক ড্রাইভিং স্কুলে রোববার এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। প্রতি ব্যাচে ২৫ জন করে মোট আট ব্যাচে এনা পরিবহনের প্রায় ২০০ চালককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রতি ব্যাচের জন্য তিনদিনের এই প্রশিক্ষণ চলবে ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউট (এআরআই) এর ১৯৯৮ সাল থেকে ২০১৩ সালের তথ্য অনুযায়ী- শুধু ২৩ শতাংশ দুর্ঘটনা হয় প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে বাস চালকদের সংশ্লিষ্টতার কারণে। এছাড়া বাস, ট্রাক ও অন্যান্য ভারী যানবাহনের চালকরা ৪৭ শতাংশ দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে জড়িত থাকেন। এ প্রেক্ষাপটেই এই প্রশিক্ষণের আয়োজন।

তিনদিনের এই আবাসিক প্রশিক্ষণ দুটি আঙ্গিকে দেওয়া হবে। এর একটি হচ্ছে সড়ক নিরাপত্তা সংক্রান্ত নানাদিক, গাড়ি চালনার ক্ষেত্রে নিজকে রক্ষা ও চালকদের আচরণগত পরিবর্তন। অপরটি হচ্ছে ‘পি ড্রাইভ’ পদ্ধতিতে-চালক কতটা নিরাপদ তা পর্যবেক্ষণ করা।

২০১২ সাল থেকে ব্র্যাক ‘সুরক্ষা’ নামে এ আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। এর আগে প্রথম ধাপে গত ১১ এপ্রিল থেকে ২৫ মে পর্যন্ত মোট ২০০ জন চালককে সুরক্ষার আওতায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। প্রশিক্ষণার্থীদের খরচ নির্বাহ করছেন পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব ও এনা ট্রান্সপোর্ট প্রাইভেট লিমিটেডের মালিক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।

ব্র্যাকের সড়ক নিরাপত্তা কর্মসূচির পরিচালক আহমেদ নাজমুল হুসেইন, বলেন, ইউরোপীয়ান সংস্থা হিউবার্ট এবনার-’র সহযোগিতায় ব্র্যাক বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে চালকদের প্রশিক্ষণের বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে সুরক্ষা নামে এই প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করে। এটা শুধু চালকদের নিরাপত্তা দিবে না, একই সঙ্গে গাড়ি মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণের খরচ ৩০ শতাংশ কমিয়ে আনবে।  

প্রসঙ্গত; সম্প্রতি ব্র্যাকের এক গবেষণায় উঠে আসে, শতকরা ৯০ ভাগ সুরক্ষা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বাসচালকের সড়কের আচরণ ও ব্যবহারে ইতিবাচক পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে, যা সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে এবং সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৫ নভেম্বর ২০১৭/হাসান/সাইফ

Walton
 
   
Marcel