ঢাকা, সোমবার, ৩ পৌষ ১৪২৫, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

এখন থেকে পঞ্চগড়ের যাত্রীরা ট্রেনে যেতে পারবেন বাড়ি

হাসান মাহামুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-১০ ১১:০০:২৭ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-২৪ ৬:১১:০৪ পিএম

সচিবালয় প্রতিবেদক : দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের প্রান্তিক জেলা থেকে সরাসরি ঢাকার ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

শনিবার সকালে পঞ্চগড় স্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে দ্রুতযান এক্সপ্রেস ছেড়ে এসেছে। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. শরিফুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পঞ্চগড়-ঢাকা-পঞ্চগড় ট্রেন রুটটি দেশের দীর্ঘতম রেলপথ। আজ সকাল ৭টা ২০মিনিটে রেলের পতাকা উড়িয়ে ঢাকা-পঞ্চগড় অন্তঃনগর ট্রেনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবুল কালাম আজাদ। এর মাধ্যমে পঞ্চগড়বাসীর দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন পূরণ হলো।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত সচিব আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই ট্রেন লাইনকে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পর্যন্ত সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সমীক্ষার কাজ শুরু হয়েছে। আগামী এক বছরের মধ্যে সমীক্ষা হবে। তারপরেই কাজ শুরু হবে। এই বন্দর দিয়ে আশপাশের দেশগুলোর সঙ্গেও রেল যোগাযোগের চিন্তাভাবনা করছে সরকার।

৯৮২ কোটি টাকা ব্যয়ে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের আওতায় পার্বতীপুর থেকে ঠাকুরগাঁও হয়ে পঞ্চগড় পর্যন্ত ১৫০ কিলোমিটারের এ রেললাইনের নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১০ সালে। ওই বছরের ৩১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই রেললাইনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে কাজের সূচনা করেন।

রেললাইনের কাজ শেষ হয় ২০১৬ সালে। ২০১৭ সালের ১৭ জুন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক দিনাজপুর পর্যন্ত একটি ইন্টারসিটি শাটল ট্রেন উদ্বোধন করেন। পরে এনিয়ে স্থানীয় সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো আন্দোলন শুরু করে। তারা সরাসরি ঢাকা-পঞ্চগড় ট্রেন চলাচলের দাবি করে।

এ বছরের ২৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠাকুরগাঁওয়ের এক জনসভায় ভিডিও কনফারেন্সে এ দাবি সম্বলিত ব্যানার দেখতে পেয়ে তার বক্তব্যে বলেন, ব্যানার নামিয়ে ফেলুন, পঞ্চগড়ে ট্রেন যাবে। আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর সেই প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন হলো।

জানা গেছে, পঞ্চগড় স্টেশন থেকে আজ রাত ৯টায় একতা এক্সপ্রেসেরও চলাচল উদ্বোধন করা হবে।

রেলপথ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ঢাকা-পঞ্চগড় রুটের দূরত্ব ৬৩৯ কিলোমিটার। দেশে এটিই হবে সবচেয়ে বেশি দূরত্বের ট্রেন সার্ভিস। ট্রেন দুটির সার্ভিসে ঢাকা-দিনাজপুর ৪৯৬ কিলোমিটার পথের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে ১৪৩ কিলোমিটার। ঢাকা-দিনাজপুর পথে পুরনো সময়সূচিতে, দিনাজপুর-পঞ্চগড় পথে নতুন সূচিতে চলবে তা। সাপ্তাহিক বন্ধ থাকবে না। সেই সঙ্গে বন্ধ হয়ে যাবে পঞ্চগড়-দিনাজপুর শাটল ট্রেন।

দ্রুতযান পঞ্চগড় থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা করে সকাল ৭টা ২০ মিনিটে। ১০ ঘণ্টা ৫০ মিনিট পর ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছাবে সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে। ঢাকা থেকে দ্রুতযান ছাড়বে রাত ৮টায় এবং পঞ্চগড় পৌঁছাবে সকাল ৬টা ৩৫ মিনিটে। একতা পঞ্চগড় থেকে ছাড়বে রাত ৯টায়। ঢাকায় পৌঁছাবে পরদিন সকাল ৮টা ১০ মিনিটে। ঢাকা থেকে একতা এক্সপ্রেস ছাড়বে সকাল ১০টায় এবং পঞ্চগড় পৌঁছাবে রাত পৌনে ৯টায়।

দ্রুতযান ও একতা এক্সপ্রেস ট্রেন দুটি প্রায় ১২০০ যাত্রী বহন করতে পারবে। ঢাকা-পঞ্চগড় এসি বার্থের ভাড়া ১ হাজার ৯৪২ টাকা, এসি চেয়ারের ভাড়া ১ হাজার ৫৩ টাকা, নন-এসি বার্থের ভাড়া ১ হাজার ১৪৫ টাকা ও শোভন চেয়ারের ভাড়া ৫৫০ টাকা করা হয়েছে।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ নভেম্বর ২০১৮/হাসান/ইভা

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC