ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ চৈত্র ১৪২৫, ২১ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ভোটার তালিকা: অষ্টম শ্রেণি পাসদের তথ্য নেওয়া হবে

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-২৮ ৬:২৬:৪৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-০৩ ১:০৬:২৬ পিএম
ফাইল ফটো

নিজস্ব প্রতিবেদক : এ বছর ভোটার তালিকা হালনাগাদের তথ্য সংগ্রহের সময় অষ্টম শ্রেণি পাসদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

সচিব বলেন, আগামীকাল পয়লা মার্চ দেশে প্রথমবারের মতো জাতীয় ভোটার দিবস পালন করা হবে। উৎসবমুখর পরিবেশে সারা দেশে জাতীয় ভোটার দিবস পালন করার জন্য আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। এর মধ্যে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে নির্বাচন ভবনে একটি আলোচনা সভা হবে। এই আলোচনা সভায় রাষ্ট্রপতি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে আইন ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী উপস্থিত থাকবেন।

এছাড়াও গণমান্য ব্যক্তি, সুশীল সমাজ, মিডিয়া ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এতে উপস্থিত থাকবেন।

শুক্রবার সকাল ৯টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে। মানিক মিয়া এভিনিউ থেকে শুরু হয়ে র‌্যালিটি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) এসে শেষ হবে। নির্বাচন ভবনে আলোচনা সভাটি শুরু হবে বিকেল ৪ টায়।

এছাড়া উপজেলা, জেলা, বিভাগ পর্যায়েও এই ভোটার দিবস পালনের জন্য যাবতীয় কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান সচিব।

সচিব বলেন, ভোটার তালিকা হালনাগাদ সম্পর্কে সচিব বলেন, আমরা এখন থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম পয়লা মার্চ থেকে শুরু করব। শুক্রবার ছয়জন ভোটারকে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদানের মাধ্যমে এটা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে। শুধু এ বছর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন থাকায় পয়লা এপ্রিল এ কার্যক্রম শুরু করা হবে। আগামী বছর থেকে পয়লা মার্চ থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে।

এবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে কি না জানতে চাইলে সচিব বলেন, প্রত্যেকবার যেভাবে হয়, এবারও সেভাবে হালনাগাদ করা হবে। তবে একটি নতুন চিন্তা আমরা করছি, যারা অষ্টম শ্রেণি পাস, নবম, দশম, একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়ছে। তাদের অগ্রীম তথ্য আমরা সংগ্রহ করে রাখবো। এমন একটি নতুন পরিকল্পনা আমরা গ্রহণ করেছি। যাতে নতুন ভোটার হওয়ার আগেই তাদের সমস্ত তথ্যগুলো আমরা পেয়ে থাকি। তাহলে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার যে বিড়ম্বনা এটা অনেকটা কমে যাবে।

তিনি বলেন, প্রায় ৯০ ভাগ ছেলে-মেয়েরা স্কুলে গমন করে। স্বাভাবিকভাবে সেখান থেকে তাদের তথ্যগুলো আমরা পেয়ে যাবে। ১০ থেকে ১৫ ভাগ যারা স্কুলে যেতে পারে না। তাদেরটা আমরা বর্তমানে যে পদ্ধতি আসে সেভাবে সংগ্রহ করব। সেই পরিকল্পনা নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।

একই সাথে আমাদের প্রবাসী ভোটার করার কার্যক্রম হাতে নেওয়ার জন্য আমরা সিঙ্গাপুরকে আমাদের পাইলট কান্ট্রি হিসেবে গ্রহণ করেছি। ৩ মার্চ একটি প্রতিনিধিদল সেখানে যাবে। সেখানে প্রবাসীদের ভোটার করা নিয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। ইতিমধ্যে আমরা যে তথ্য পেয়েছি ওখানে ১ লাখ ৩০ হাজার বাংলাদেশি রয়েছে। যারা বিভিন্ন শ্রমিক হিসেবে কাজ করে। সেখানে প্রায় ৫৫ হাজার বাংলাদেশি আছে, যাদের কোনো আইডি কার্ড নেই। প্রবাসীদের ভোগান্তি কমাতে সিঙ্গাপুরে আমাদের পাইলট প্রকল্প চলবে। সেখানে আমাদের অগ্রীম একটি টিম যাবে। অগ্রীম টিম গিয়ে যাবতীয় কার্যক্রম গ্রহণ করতে যাচ্ছি। ওখানে আমিসহ চার সদস্যের একটি অগ্রগামী টিম গিয়ে বুঝতে পারব কবে থেকে কাজ শুরু করা যায়।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/হাসিবুল/সাইফ

Walton Laptop
 
     
Walton AC