ঢাকা, বুধবার, ৮ কার্তিক ১৪২৫, ২৪ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

লক্ষ বছরের পুরনো গাছ

আহমেদ শরীফ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-২৪ ৮:৪৩:১৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-২৪ ১:৪১:১১ পিএম

আহমেদ শরীফ: যশোর রোডে শতবর্ষী শতাধিক গাছ কেটে ফেলার সিদ্ধান্তে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। অথচ বিশ্বের কয়েকটি দেশে হাজার, এমনকি লক্ষ বছরের পুরনো গাছ রয়েছে। রাষ্ট্রীয়ভাবে এসব গাছ সংরক্ষণ করা হয়। বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন কিছু গাছ নিয়ে এই প্রতিবেদন। 

পানডো: আমেরিকার উটাহ প্রদেশে ফিশলেক ন্যাশনাল ফরেস্টে ১০৭ একর জায়গাজুড়ে রয়েছে প্রাচীন সব গাছের সারি। পানডো নামের এসব গাছের বয়স কতো জানেন? কোনোটির বয়স ৮০ হাজার বছর। কোনোটির বয়স লাখ ছাড়িয়েছে। এমনকি সেখানে কিছু গাছ রয়েছে যেগুলোর বয়স বলা হচ্ছে প্রায় ১০ লাখ বছর।   এসব গাছের মূল ও কাণ্ডের মোট ওজন ৬ হাজার টন। তাই এগুলো শুধু বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন গাছই নয়,  সবচেয়ে ওজনদার গাছও।



জুরুপা ওক: আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ায় জুরুপা মাউন্টেনে আছে আরো কিছু পুরনো গাছ। প্রাকৃতিক বিভিন্ন তাণ্ডবেও সেগুলো টিকে আছে। বলা হচ্ছে গাছগুলো ১৩ হাজার বছরের পুরনো। তবে এগুলো কলোনিয়াল ট্রি হিসেবে পরিচিত। 



ওল্ড টিজিক্কো: সুইডেনের দালারনায় ফুলুফজালেট ন্যাশনাল পার্কে ওল্ড টিজিক্কো নামের একটি গাছ আছে, যার বয়স ৯,৫৫৮ বছর। এটি এখন পর্যন্ত বেঁচে থাকা সবচেয়ে প্রাচীন একক গাছ। মজার ব্যাপার হলো, এই গাছটি নাকি এখনো একটু একটু করে বাড়ছে। সুইডেনেরই আরেকটি প্রদেশ হারজেদালেন। প্রদেশটি এক সময় নরওয়ের অন্তর্ভুক্ত ছিলো। সেখানে ওল্ড রাসমাস নামে একটি গাছ আছে যার বয়স ৯,৫০০ বছর।

ওল্ড হিউন পাইন: অস্ট্রেলিয়ার তাসমানিয়ার মাউন্ট রেড-এ কয়েকটি গাছ আছে, যেগুলোর কোনোটির বয়স ৩ হাজার বছর। আবার কোনোটির বয়স ১০ হাজার বছরেরও বেশি ।



ওল্ড হারা: ক্যালিফোর্নিয়ার হোয়াইট মাউন্টেনে আছে ৫০৬৭ বছর পুরনো একটি বৃস্টলকোন পাইন গাছ। ক্যালিফোর্নিয়ার ইনয়ো কাউন্টিতেও  আরেকটি গাছ রয়েছে বলে জানা যায়। মেথুসেলা নামের এই গাছের বয়স প্রায় ৪৮৫০ বছর। ক্যালিফোর্নিয়ার সিকোয়া ন্যাশনাল পার্কে আছে খুব উঁচু ও প্রাচীন এক গাছ। এর নাম দি প্রেসিডেন্ট ট্রি। গাছটি ৩২০০ বছরের পুরনো। এটি ২৪৭ ফুট উঁচু, ২৭ ফুট চওড়া। প্রেসিডেন্ট নামের এই গাছটি তার বিশাল কাণ্ডের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় গাছ হিসেবেও স্বীকৃত।



সার্ব ই আবারকু: ইরানের ইয়াজদ প্রদেশে আছে ৪০০০ বছর পুরনো এক গাছ সার্ব ই আবারকু। গাছটি ২৫ মিটার উঁচু ও ১৮ মিটার চওড়া। সবুজ পাতায় ভরা প্রাচীন এই গাছটি দেখতে দারুণ! সিসিলির মাউন্ট ইটনার পাশেও রয়েছে আরেকটি ৪০০০ বছর পুরনো চেস্টনাট গাছ। এর নাম চেস্টনাট ট্রি অফ হান্ড্রেড হর্সেস।



গ্র্যান অ্যাবুলো: চিলির আলেরসে কোস্টেরো ন্যাশনাল পার্কে প্রায় ৩৬৪৫ বছর পুরনো একটি গাছ আছে। যা গ্র্যান অ্যাবুলো বা গ্রেট গ্র্যান্ড ফাদার নামে পরিচিত।



পেট্রিয়ারকা ডা ফ্লোরেসটা: ব্রাজিলের সাও পাওলোতে আছে ৩০০০ বছর পুরনো একটি গাছ। ব্রাজিলিয়ানদের কাছে গাছটি খুব পবিত্র।

জোমোন সুজি: কেউ কেউ বলেন জাপানের ইয়াকুশিমা দ্বীপে জোমোন সুজি গাছটির বয়স ২০০০ বছর। এক পক্ষের দাবি গাছটির বয়স আসলে ৭০০০ বছরেরও বেশি।



জয়শ্রী মহা বোধি গাছ: শ্রীলংকার অনুরাধাপুরে মহামেওনা গার্ডেনে আছে ২৩০২ বছরের প্রাচীন একটি ডুমুর গাছ। বুদ্ধ গয়াতে শ্রী মহা বোধি যে বৃক্ষের নিচে বসে মোক্ষ লাভ করেন, তার চারা থেকেই এই গাছের  সৃষ্টি বলে ধারণা করা হয়। ২৪৯ খ্রিস্টপূর্বে এই গাছের চারা শ্রীলংকায় নিয়ে যাওয়া হয়। মানুষের হাতে রোপণ করা সবচেয়ে প্রাচীন গাছ বলা হয় এটিকে। গাছটি বিশ্বজুড়ে বৌদ্ধদের জন্য খুব পবিত্র ।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৪ জানুয়ারি ২০১৮/তারা

Walton Laptop
 
     
Walton