ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২০ নভেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

শেষ মুহূর্তে জমজমাট ঈদ বাজার

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-১৪ ৮:৫৫:৫৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-১৪ ১২:৩৯:৩৬ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। ইসলাম ধর্মালম্বীরা তাদের এই বড় উৎসবটি একটু ভিন্নভাবে পালন করে থাকেন। এক মাস সিয়াম সাধনার পর নারী, পুরুষ, শিশু, বৃদ্ধ সকলে ঈদের দিনে নতুন পোশাক পড়েন।

ঈদকে ঘিরে রোজার শুরুতেই শুরু হয় কেনাকাটা। আর তা চলে চাঁদ রাত পযর্ন্ত। ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত মার্কেটগুলোতে শেষ মুহুর্তে তিল ধারনের জায়গা থাকে না। যেমন ব্যস্ত থাকেন দোকানীরা, তেমন ব্যস্ত থাকেন ক্রেতারা।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত রাজধানীর গুলিস্তান, পল্টন, সদর ঘাট, মতিঝিল, ফার্মগেট, বায়তুল মোকাররম এলাকা ঘুরে দেখা গেছে ফুটপাতের দোকানগুলোয় জমে উঠেছে কেনাকাটা। বিক্রেতাদের হাকডাক আর ক্রেতাদের পদচারনায় মুখরিত এসব এলাকা। পছন্দের পণ্য বেছে নিতে ব্যস্ত ক্রেতারা। বিক্রেতাও খুব ব্যস্ত। তারা চান ঈদে বিক্রি করে সারা বছরের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে।

যা নেবেন দুইশ, যা নেবেন তিনশ, শার্টের জোড়া পাঁচশ, দেইখা লন, বাইচছা লন- এমন হাকডাক দিয়ে ক্রেতার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বিক্রেতারা।

বিক্রেতারা জানান, ছেলেদের শার্ট, প্যান্ট, পাঞ্জাবি, শিশুদের পোশাক বেশি বিক্রি হচ্ছে।

রহমান নামের এক ক্রেতা বলেন, আগে কেনার সময় পাইনি। ভেবে রেখেছিলাম বাড়ি যাওয়ার পথে গুলিস্তান থেকে কিনব। তাই আজ কিনতেছি। ছেলের জন্য কিনেছি। এখন মেয়ের জন্য কিনব। তবে দাম একটু বেশি বলে মনে হচ্ছে। দাম বেশি হলেও কিছু করার নেই। কিনতে তো হবেই।

জাকির হোসেন নামের এক বিক্রেতা বলেন, দুই-তিন দিন ধরে বিক্রি তুলনামুলক ভালো হচ্ছে। সামনে যে কয়দিন আছে, আশা করছি বিক্রি বাড়বে। তবে সমস্যা একটা আছে।বৃষ্টি পড়লে আর কোনো উপায় থাকে না। গতকাল বৃষ্টিতে খুব বিপদে পড়েছি। ঈদের আগে যদি বৃষ্টি না হলে সমস্যা হবে না। আর বৃষ্টি হলে চালান উঠবে না।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ জুন ২০১৮/সাওন/ইভা

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC