ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৬ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বিএনপির কার্যালয় মনোনয়ন বাণিজ্যের হাট : হাছান মাহমুদ

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-০৬ ৪:৩৩:২৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-০৬ ৪:৩৩:২৬ পিএম
Walton AC

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির নয়াপল্টনের অফিস এবং গুলশানে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয় মনোনয়ন বাণিজ্যের হাটে রূপান্তরিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির নয়াপল্টনের অফিস এবং গুলশানে বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয় মনোনয়ন বাণিজ্যের হাটে রূপান্তরিত হয়েছে। তাদের অফিস মনোনয়ন বাণিজ্যের হাট এখন। শোনা যাচ্ছে, আজকে-কালকের মধ্যে তারা মনোনয়ন চূড়ান্ত করবে। ৮০০ জনকে নমিনেশন দেওয়ার পর তারা ঋণখেলাপিকে নমিনেশন দিয়েছে, পাঁচ-দশ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকেও মনোনয়ন দিয়েছেন। খাগড়াছড়ির ওয়াদুদ ভূইয়া ২০ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত, তাকেও নমিনেশন দিয়েছে। এখন শোনা যাচ্ছে, চূড়ান্ত চিঠি পাওয়ার ক্ষেত্রে যারা যত বেশি দিতে পারবে তাদেরকে চূড়ান্ত চিঠি দেওয়া হবে অর্থাৎ ধানের শীষ মার্কা দেওয়া হবে। বিএনপির লজ্জা হচ্ছে কি না জানি না, এই কাণ্ড দেখে আমার লজ্জা হচ্ছে ।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী, কেউ যদি দুই বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত হয়, তবে সে নির্বাচন করতে পারবেন না। ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ১৯৭২ সালে এই সংবিধান রচিত হয়েছে। তারাও এটা জানেন। ড. কামাল হোসেন সাহেবও এটা জানেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, মওদুদ সাহেব এমন একজন আইনজীবী, তিনি মৃত মানুষের পাওয়ার অব অ্যাটর্নি দাখিল করে গুলশানের বাড়ির মালিক হয়েছেন। বাংলাদেশে এমন ব্যারিস্টার আগে দেখা যায়নি। যিনি মৃত মানুষের পাওয়ার অব অ্যাটর্নি জোগার করতে পারেন।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, নির্বাচনকে সব সময় সিরিয়াসলি নিতে হয়। আমরা যদি নির্বাচনকে সিরিয়াসলি না নেই তবে সেটি ভুল হবে। কারণ, প্রতিপক্ষকে দুর্বল মনে করা হলো নিজের প্রস্তুতি ভালো না হওয়া। এজন্য আমি অনুরোধ করব, নির্বাচনকে যেন আমরা সিরিয়াসলি নেই। যারা নমিনেশন বাণিজ্যের হাট বসিয়েছে, এরা যদি ক্ষমতায় যায়, এরা দেশটাকে বেচে দেবে। সুতরাং এদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন লায়ন চিত্তরঞ্জন দাস, অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, মোল্লা জালাল, অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ ডিসেম্বর ২০১৮/সাওন/রফিক

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge