ঢাকা, বুধবার, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

থাইরয়েড সমস্যার নীরব ১৩ লক্ষণ

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১২-০২ ১০:৩৫:২৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-০২ ২:২১:৪৯ পিএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : গলায় অবস্থিত প্রজাপতি আকৃতির থাইরয়েড বিপাক ও মস্তিষ্কের কার্যক্রমের জন্য প্রয়োজনীয় হরমোন উৎপাদন করে।

থাইরয়েড সমস্যার উপসর্গ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অস্পষ্ট থাকে, কিন্তু আপনি যদি এ প্রতিবেদনে আলোচিত উপসর্গের এক বা একাধিক উপসর্গ দীর্ঘদিন ধরে লক্ষ্য করেন, তাহলে আপনার হরমোনের মাত্রা সম্পর্কে জানতে সাধারণ রক্ত পরীক্ষার জন্য ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

১. ঘুমের পরিবর্তন
আপনি সবসময় ভালো নিদ্রাকারী ছিলেন, কিন্তু হঠাৎ করে অনিদ্রা সমস্যা শুরু হয়েছে- এটি থাইরয়েড সমস্যার সংকেত হতে পারে। মায়ো ক্লিনিকের এন্ডোক্রিনোলজিস্ট হোসাইন গারিব বলেন, ‘ওভারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড কিছু হরমোন (যেমন- ট্রাইআইয়োডোথাইরনাইন যা টি৩ নামে পরিচিত এবং থাইরক্সাইন যা টি৪ নামে পরিচিত) অত্যধিক পরিমাণে নিঃসরণ করে সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেম বা কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে অতিরিক্ত উত্তেজিত করে এবং ইনসমনিয়া বা অনিদ্রা রোগের দিকে ধাবিত করে।’

অন্যদিকে, সারারাত ঘুমানোর পর আপনি যদি ক্লান্তি অনুভব করেন অথবা আপনার যদি স্বাভাবিক ঘুমের তুলনায় অধিক ঘুমের প্রয়োজন পড়ে, তাহলে আপনার সম্ভবত আন্ডারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড আছে- যেখানে আপনার শরীর পর্যাপ্ত হরমোন উৎপাদন করতে পারে না। তবে অন্যান্য আরো মেডিক্যাল কারণে আপনি সবসময় ক্লান্তি অনুভব করতে পারেন।

২. হঠাৎ উদ্বেগ
আপনি কখনো উদ্বেগের সঙ্গে যুদ্ধ করেননি, কিন্তু হঠাৎ করে ধারাবাহিকভাবে উদ্বেগ বা অস্থিরতা অনুভব করা শুরু করেন- তাহলে আপনার থাইরয়েড হাইপারঅ্যাকটিভ হতে পারে। নিউ ইয়র্ক সিটির মাউন্ট সিনাই রুজভেল্ট হসপিটালের এন্ডোক্রিনোলজিস্ট আশিতা গুপ্ত বলেন, অত্যধিক হরমোন প্রায়ক্ষেত্রে রোগীকে নার্ভাস বা স্নায়বিক দুর্বলগ্রস্ত কিংবা উদ্বিগ্ন করে তোলে। তিনি বলেন, সেখানে অত্যধিক ব্রেইন স্টিমিউল্যান্ট বা মস্তিষ্ক উত্তেজক আছে যা আপনি কোনো বিষয়ে ভালো অনুভব না করলে তাকে চেতিয়ে তোলে।

৩. বাওয়েল অভ্যাস পরিবর্তন
বারবার কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে আন্ডারঅ্যাকটিভ থাইরয়েডের উপসর্গ। ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, ‘থাইরয়েড হরমোন আপনার ডাইজেস্টিভ ট্র্যাককে চালু রাখতে ভূমিকা পালন করে। আপনার খুব সামান্য থাইরয়েড হরমোন উৎপাদন হলে আপনার মল বাধাপ্রাপ্ত হবে।’

অপরদিকে, ওভারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড এর বিপরীত প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। এ প্রসঙ্গে ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, আপনি নিয়মিত বাওয়েল মুভমেন্ট বা মলত্যাগ করবেন, সবকিছু দ্রুত চলাচলের কারণে বারবার বাওয়েল মুভমেন্ট বা মলত্যাগ হতে পারে, কিন্তু এটি ডায়রিয়া নয়।

৪. চুল পাতলা হওয়া
চুল পাতলা হয়ে যাওয়া, বিশেষ করে ভ্রু, হচ্ছে থাইরয়েড সমস্যার উপসর্গসমূহের একটি। ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, ‘আন্ডারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড বা ওভারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড আপনার চুলের বিকাশ চক্রে বিচ্যুতি ঘটায়।’ সাধারণত সামান্য পরিমাণ চুল বিশ্রাম নেয়, কিন্তু থাইরয়েড হরমোন ভারসাম্য হারালে অত্যধিক পরিমাণ চুল একই সময়ে বিশ্রাম নেয়- যে কারণে চুল পাতলা হয়ে যায়।

৫. অপ্রত্যাশিত সময়ে ঘামানো
হাইপারঅ্যাকটিভ থাইরয়েডের একটি কমন উপসর্গ হচ্ছে, পরিশ্রম না করেও অত্যধিক ঘামানো। ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, ‘থাইরয়েড শরীরের শক্তি উৎপাদন নিয়ন্ত্রণ করে। স্বাভাবিক হরমোন মাত্রার চেয়ে উচ্চ হরমোন মাত্রার মানে হল আপনার মেটাবলিজম অত্যধিক সক্রিয় হচ্ছে, যে কারণে লোকেরা মাত্রাতিরিক্ত গরম অনুভব করে।’

৬. অস্বাভাবিক ওজন বৃদ্ধি
ওজন বৃদ্ধির কারণে আপনার জিন্স প্যান্ট খুব টাইট হয়ে গেল, কিন্তু আপনি জোর দিয়ে বলছেন যে আপনি আপনার খাদ্যাভ্যাস বা ব্যায়ামাভ্যাস পরিবর্তন করেননি, তাহলে এর জন্য আন্ডারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড দায়ী হতে পারে। এ প্রসঙ্গে ডা. হোসাইন গারিব বলেন, ‘হরমোনের স্বল্পতা মেটাবলিজম এবং ক্যালরি পোড়ানো হ্রাস করে, তাই ধীরে ধীরে অপ্রত্যাশিতভাবে আপনার ওজন বেড়ে যেতে পারে।’

৭. ওজন কমে যাওয়া
ডায়েট বা ওয়ার্কআউটে কোনো পরিবর্তন ছাড়া আপনি যদি হঠাৎ এমন ছোট সাইজের কাপড় পরতে সমর্থ হন যা কয়েক বছর ধরে আপনার জন্য ফিট ছিল না, তাহলে আপনার ওভারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড থাকতে পারে যা মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে। ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, লোকেরা প্রায়সময় রিপোর্ট করে যে তাদের ক্ষুধা বৃদ্ধি পায় এবং তারা প্রচুর পরিমাণে খায়, কিন্তু তাদের ওজন বাড়ার পরিবর্তে কমে যাচ্ছে।

৮. ব্রেইন ফগ
আপনার থাইরয়েড সঠিকভাবে কাজ না করলে আপনার ব্রেইনও করবে না। ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, ‘আন্ডারঅ্যাকটিভ থাইরয়েড থাকা কিছু লোক রিপোর্ট করেন যে তারা ব্রেইন ফগ বা কুয়াশাচ্ছন্ন মস্তিষ্ক বা অস্পষ্ট মস্তিষ্ক অনুভব করছেন।’ আবার অন্যরা রিপোর্ট করেন যে তারা সাবটেল মেমোরি লস বা অল্প স্মৃতিভ্রংশতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন, অথবা তারা মানসিক ক্লান্তি অনুভব করছেন। ওভারঅ্যাকটিভ থাইরয়েডের কারণে কোনো কিছুতে মনোনিবেশ করা কঠিন হয়ে পড়ে।

৯. বিনা শ্রমে হার্ট প্যালপিটেশন
অত্যধিক থাইরয়েড হরমোন আপনার শরীরের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করবে। ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, লোকেরা বলে যে তারা অত্যধিক ক্যাফেইন অনুভব করেছেন অথবা তারা বিশ্রামে থাকলেও হার্ট প্যালপিটেশন বা বুক ধড়ফড় অনুভব করেন।

১০. দিনে ঘুম আসা
আন্ডারঅ্যাকটিভ থাইরয়েডের একটি উপসর্গ হতে পারে দিনে ঘুম আসা অথবা পরিশ্রান্তি অনুভব করা। ডা. হোসাইন গারিব বলেন, শক্তি উৎপাদনের জন্য শরীরের থাইরয়েড হরমোনের প্রয়োজন হয়।

১১. অনিয়মিত পিরিয়ড
পিরিয়ড ঘন হলে, দীর্ঘদিন থাকলে অথবা খুব কাছাকাছি সময়ে দুই বা তার অধিক বার পিরিয়ড হলে বোঝা যেতে পারে যে, থাইরয়েড যথেষ্ট হরমোন উৎপাদন করছে না। আবার ওভারঅ্যাকটিভ থাইরয়েডের কারণে পিরিয়ড হালকা হতে পারে বা দীর্ঘদিন পর হতে পারে।

১২. বন্ধ্যাত্ব বা গর্ভপাত
ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, ‘যেসব নারীরা বন্ধ্যাত্বের ফ্যামিলি হিস্ট্রি ছাড়া কনসিভ করতে সমস্যায় পড়ে যান অথবা যাদের প্রেগন্যান্সির প্রাথমিক পর্যায়ে মিসক্যারেজ বা গর্ভপাত হয়ে যায় তাদের থাইরয়েড স্ক্রিনিং করানো উচিত।’ তিনি যোগ করেন, ‘নিম্ন হরমোন মাত্রা ওডিউলেশন এবং প্রিডিস্পোজকে প্রভাবিত করে বন্ধ্যাত্ব বা অকাল গর্ভপাত ঘটায়।’ তিনি আরো বলেন, ‘যদি আপনার থাইরয়েড রোগ থাকে, তাহলে কনসিভের চেষ্টা এবং প্রেগন্যান্সির সময় হরমোন সাপ্লিমেন্টেশন খুব উপকারে আসতে পারে।’

১৩. শিশুর বিকাশ বিলম্বিত হওয়া
ডা. আশিতা গুপ্ত বলেন, ‘থাইরয়েড হরমোন প্রায়ক্ষেত্রে শিশুদের মাঝে নীরবে প্রতিভাত হয়, কারণ শিশুরা সবসময় তাদের উপসর্গ প্রকাশ করতে সক্ষম হয় না।’ তিনি বলেন, ‘যদি আপনি লক্ষ্য করেন যে তারা তাদের সমবয়সীদের তুলনায় ধীরে বেড়ে ওঠছে কিংবা যদি তারা পেশী ব্যথার অভিযোগ করে অথবা যদি শিক্ষকরা বলে তারা ভীত এবং অমনোযোগী- তাহলে তা হতে পারে নিম্ন হরমোন মাত্রার লক্ষণ যা তাদের বিকাশকে বাধাগ্রস্ত করছে।’

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

 


পড়ুন : থাইরয়েড ক্যানসারের ৬ উপসর্গ



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২ ডিসেম্বর ২০১৭/ফিরোজ

Walton
 
   
Marcel