ঢাকা, সোমবার, ৫ ভাদ্র ১৪২৫, ২০ আগস্ট ২০১৮
Risingbd
শোকাবহ অগাস্ট
সর্বশেষ:

জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল সম্পর্কে যা জানা উচিত

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৬-০৮ ১১:৪৬:১৪ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-০৮ ১১:৪৬:১৪ এএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : সদ্য বিবাহিত অনেক নারী জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল সম্পর্কে অজ্ঞ। গর্ভধারণ করতে না চাইলে অথবা চাইলে, জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল সম্পর্কে যা জানা উচিত তা নিয়ে এ প্রতিবেদন।

* জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল কিভাবে কাজ করে?
প্রজেস্টেরন ও ইস্ট্রোজেন হরমোনের সিনথেটিক জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল মূলত দুই ধরনের, যা সঠিকভাবে ব্যবহার করে প্রায় ১০০ শতাংশ কার্যকরভাবে প্রেগন্যান্সি প্রতিরোধ করা সম্ভব। নিউ ইয়র্কের নিউ হাইড পার্কে অবস্থিত নর্থওয়েল হেলথের ডিভিশন অব অ্যাম্বুলেটরি কেয়ার অ্যান্ড ওম্যান’স হেলথ প্রোগ্রামস-পিসিএপি সার্ভিসেসের সহ-প্রধান জিল রাবিন বলেন, ‘দুই প্রকারের জন্মনিয়ন্ত্রণ পিলের মধ্যে এক প্রকারে ফিমেল সেক্স হরমোন প্রজেস্টেরন থাকে এবং অন্য প্রকারে ইস্ট্রোজেন ও প্রজেস্টেরনের সমন্বয় থাকে (সমন্বয়কৃত পিল)।’ প্রেগন্যান্সি প্রতিরোধে এসব হরমোন বিভিন্নভাবে কাজ করে।

ডা. রাবিন বলেন, ‘প্রজেস্টেরন সার্ভিক্যাল মিউকাসকে ঘন করে শুক্রাণু প্রবেশ কঠিন করে তোলে এবং এটি ফ্যালোপিয়ান টিউবের মুভমেন্ট ধীর করে- যার ফলে ডিম্ব ও শুক্রাণু কার্যকরভাবে একত্রিত হতে পারে না। এছাড়া এটি ইমপ্লান্টেশন না হওয়ার জন্য জরায়ুর স্তরকে বৈরী করে তোলে।’ একটি উর্বর ডিম্ব পাতলা স্তরে ইমপ্লান্ট হতে পারে না- ইমপ্লান্ট হতে নরম ও আরামপ্রদ স্থান প্রয়োজন। ইস্ট্রোজেন ওভিউলেশনের জন্য হরমোনের কার্যকারিতাকে দমন করে ওভিউলেশন প্রতিরোধ করে। ডা. রাবিন বলেন, ‘যদি আপনি এই চক্রকে ব্যাহত করেন, তাহলে ডিম্ব বের হতে পারবে না এবং ইস্ট্রোজেনের অনড় অবস্থা এটিকে বিফল করবে।’

* সমন্বয়কৃত জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল সকলের উপযোগী?
ডা. রাবিন বলেন, ‘অনেক নারী ইস্ট্রোজেন গ্রহণ করতে পারে না।’ রক্ত জমাটবদ্ধতার ব্যক্তিগত ইতিহাস, স্তন ক্যানসার ও হৃদরোগ আছে এমন নারী এবং ধূমপায়ীরা এই তালিকার অন্তর্ভুক্ত। কিছু নারীদের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র প্রজেস্টেরন নিরাপদ।

* জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল কাজ করতে কত সময় নেয়?
ডা. রাবিন বলেন, ‘কিছু পিল ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কাজ করতে শুরু করে এবং অন্যান্য পিল কার্যকর হতে তিন থেকে পাঁচদিন সময় নিতে পারে।’ তিনি যোগ করেন, ‘আমি আমার রোগীদের নিরাপদে থাকতে প্রথম সপ্তাহে কনডম ব্যবহার করতে বলি।’

* কখন জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল খাওয়া উচিত?
এ প্রসঙ্গে ডা. রাবিন বলেন, ‘এটি পিলের ধরনের ওপর নির্ভর করে। শুধুমাত্র প্রজেস্টিন পিল অবশ্যই প্রতিদিন একই সময়ে গ্রহণ করতে হবে, অন্যথায় আপনার সার্ভিক্যাল মিউকাস পাতলা হতে শুরু করবে এবং আপনি প্রেগন্যান্ট হতে পারেন। আপনার প্রতিদিন ঠিক একই সময়ে সমন্বয়কৃত কন্ট্রাসেপটিভ পিল গ্রহণের প্রয়োজন নেই, কিন্তু প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে পিল গ্রহণ করলে তা আপনার অভ্যাসে পরিণত হবে।’ অনেক নারী মনে রাখার সুবিধার্থে টুথব্রাশের পাশে পিলের প্যাক রাখে, তাই একই সময়ে দুটি দৈনিক অভ্যাসের বাস্তবায়ন হয়।’ কখন এবং কিভাবে আপনার পিল গ্রহণ করা উচিত তা সম্পর্কে পরামর্শ নিতে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন।

* পিল খেতে ভুলে গেলে কি করণীয়?
এ প্রসঙ্গে ডা. রাবিন বলেন, ‘স্মরণ করার পর যত দ্রুত সম্ভব পিল গ্রহণ করুন অথবা পরের দিন দুটি পিল সেবন করুন। যদি প্রায়ই আপনি টানা দুদিন পিল খেতে ভুলে যান, তাহলে দীর্ঘমেয়াদে কাজ করে এমন কন্ট্রাসেপশন যেমন- আইইউডি’র কথা বিবেচনা করতে পারেন। অন্য ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি অবলম্বনের আগ পর্যন্ত কনডম ব্যবহার করুন।

* জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল কতটুকু কার্যকর?
চেস্টারে অবস্থিত স্যাফিয়ার ওম্যান’স হেলথের সভাপতি ডনিকা মুর বলেন, ‘যখন আমরা পিলের কার্যকারিতা নিয়ে কথা বলতে যাব, তখন দুটি ভিন্ন উত্তর পাব। ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল অথবা ১০০ শতাংশ সঠিকভাবে ব্যবহারের ক্ষেত্রে এটি ৯৯.৯ শতাংশেরও বেশি কার্যকর। কিন্তু বাস্তব-জীবনে কার্যকারিতার ক্ষেত্রে এটি প্রায় ৯১ শতাংশ কার্যকর- এর মানে হচ্ছে, প্রতিবছর ১০০ জন পিল ব্যবহারকারীর মধ্যে ৯ জন প্রেগন্যান্ট হয়, এর কারণ হলো প্রতিদিন পিল সেবন করতে ভুলে যাওয়া।’

* পিলের কার্যকারিতার ওপর কোনোকিছু প্রভাব ফেলতে পারে?
ডা. মুর বলেন, ‘কিছু অ্যান্টিবায়োটিক, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল ড্রাগ এবং অন্যান্য ওষুধ (যার মধ্যে প্রাকৃতিক সাপ্লিমেন্ট সেন্ট জন’স ওয়র্ট অন্তর্ভুক্ত) পিলের কার্যকারিতার ওপর প্রভাব ফেলতে পারে। আপনি যেকোনো সময় ওষুধ বা নতুন সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারেন এবং একই সঙ্গে জন্মনিয়ন্ত্রণ পিলও চালিয়ে যেতে পারেন। আপনার চিকিৎসক থেকে জেনে নিন যে নতুন ওষুধ ও জন্মনিয়ন্ত্রণ পিলের মধ্যে কোনো ইন্টার‍্যাকশন হবে কিনা।’ যদি আপনার পাকস্থলী সমস্যা থাকে ও বমি অথবা ডায়রিয়া হয়, জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল শোষণ বিঘ্নিত হতে পারে। এ প্রসঙ্গে ডা. মুর বলেন, ‘এক্ষেত্রে ব্যাকআপ কন্ট্রাসেপশন প্রয়োজন হতে পারে।’

* পিলের কি কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে?
ইয়েল ইউনিভার্সিটির অবস্টেট্রিকস অ্যান্ড গাইনিকোলজির ক্লিনিক্যাল প্রফেসর মেরি জেন মিনকিন বলেন, ‘অত্যধিক ইস্ট্রোজেনের বড় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে পেটফাঁপা ও স্তন ব্যথা হওয়া- যদি আপনার তা হয়ে থাকে, তাহলে নিম্ন-ডোজের ইস্ট্রোজেনের জন্য গাইনিকোলজিস্টের সঙ্গে কথা বলুন।’ তিনি যোগ করেন, ‘প্রজেস্টিনের (এ ধরনের বিভিন্ন পিল রয়েছে) বড় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে বিষণ্নতা ও মেজাজ খারাপ বা খিটখিটে হওয়া। যদি আপনার এমনটা হয়ে থাকে, মেজাজ কম খারাপ করে এমন কোনো পিল গ্রহণের জন্য আপনার গাইনিকোলজিস্টের সঙ্গে কথা বলুন।’

* পিল সেবনকারী প্রেগন্যান্ট হতে চাইলে করণীয় কী?
এক্ষেত্রে আপনি পিল নেওয়া বন্ধ করবেন, এছাড়া অন্যান্য বিষয় রয়েছে যা নিয়ে আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করবেন। ডা. রাবিন বলেন, ‘উদাহরণস্বরূপ, আপনি হয়তো জানেন না যে আপনা উচ্চ রক্ত শর্করা রয়েছে, প্রেগন্যান্ট হওয়ার পূর্বে এটি নির্ণয় করা প্রয়োজন।’ তিনি যোগ করেন, ‘এমনকি পিল চালিয়ে যাওয়া অবস্থাতেও আপনার প্রিন্যাটাল ভিটামিন গ্রহণ করা উচিত স্বাস্থ্য বৃদ্ধির জন্য। প্রিন্যাটাল ভিটামিন শুরু করুন, পিল বন্ধ করুন, চিকিৎসক দেখান এবং তারপর প্রেগন্যান্ট হোন।’

* পিল বন্ধ করার কত সময় পর কনসিভের জন্য চেষ্টা করা যাবে?
এ প্রসঙ্গে কলম্বাসে অবস্থিত ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটি ওয়েক্সনার মেডিক্যাল সেন্টারের মাইকেল ক্যাকোভিক বলেন, ‘পিল বন্ধ করার পর বিন্দুমাত্র দেরি না করে আপনি কনসিভের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যেতে পারেন।’ নিয়মিত মাসিক চক্রই হচ্ছে আপনার কখন ওভিউলেটিং হচ্ছে তা জানার একমাত্র উপায়। আপনি যতবেশি উর্বর হবেন, আপনার প্রেগন্যান্ট হওয়ার সম্ভাবনা ততবেশি।

* পিল চালিয়ে যাওয়া অবস্থায় কি স্তন্যপান করানো যাবে?
ডা. ক্যাকোভিক বলেন, ‘যেসব নারী বাচ্চা ডেলিভারির পর পিল চালিয়ে যান এবং স্তন্যপান করান, তাদের দুধ সরবরাহ হ্রাস পাবে, কিন্তু যদি আপনি ছয়মাস স্তন্যপান করান- তাহলে এ সমস্যা চলে যাবে। তাই পিল সেবন আপনার দুধ সরবরাহে প্রভাব ফেলবে না।’

* পিল চালিয়ে যাওয়া অবস্থায় প্রেগন্যান্ট হলে কি করণীয়?
ডা. ক্যাকোভিক বলেন, ‘এরকম ঘটনা ঘটতে পারে এবং ঘটছে। যদি আপনি পিল চালিয়ে যাওয়া অবস্থায় প্রেগন্যান্ট হন, তাহলে পিল সেবন বন্ধ করুন এবং বাচ্চা ভালো আছে এটি নিশ্চিত করতে ১৮ সপ্তাহ পর্যন্ত আপনার অবস্টেট্রিশিয়ান দ্বারা তদারকি করান। যদি আপনি প্রেগন্যান্সি অবস্থায় পিল চালিয়ে যান, আপনার প্রতিমাসে রক্তপাত হবে।’ যদি পিল সেবন অব্যাহত অবস্থায় ধারণা করেন যে আপনি প্রেগন্যান্ট, তাহলে প্রেগন্যান্সি টেস্ট করুন এবং চিকিৎসকের সঙ্গে অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিন।

* নানা রকমের পিলের মধ্যে কোনটি ভালো হবে?
ডা. ক্যাকোভিক বলেন, ‘আমি রোগীদের জিজ্ঞেস করি যে তারা পূর্বে কোন পিল সেবন করেছে এবং তাদের সেবনকৃত পিল কাজ করেছে বললে আমরা তা সেবন করতে বলি।’ সমন্বয়কৃত জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল খেলে আপনার কোনো সমস্যা হবে কিনা তা জানতে চিকিৎসক আপনার মেডিক্যাল ইতিহাস জানবেন। এছাড়া বিবেচনা করার মতো অন্যান্য বিষয়ও রয়েছে। কিছু জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল ব্রণের চিকিৎসাও করে। ত্রৈমাসিক পিল রয়েছে, যেখানে আপনি তিনমাস পর্যন্ত প্রতিদিন হরমোন পিল সেবন করবেন, এর সঙ্গে এক সপ্তাহ পর্যন্ত প্ল্যাসেবো গ্রহণ করবেন। কিছু নারী টানা একবছর অ্যাকটিভ পিল গ্রহণ করে এবং তাদের কোনো মাসিক রক্তপাত হয় না।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৮ জুন ২০১৮/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton