ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আশাপ্রদ ৭ তথ্য

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২৮ ১০:১৯:৩১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৭-২৮ ১০:২৯:১৪ পিএম
ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আশাপ্রদ ৭ তথ্য
প্রতীকী ছবি
Voice Control HD Smart LED

এস এম গল্প ইকবাল : বিজ্ঞানীদের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও গবেষণার ফলে অভিনব ও উন্নত চিকিৎসার উদ্ভাবনে ক্যানসারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম তুলনামূলক সহজ হয়ে ওঠেছে। এ প্রতিবেদনে উল্লেখিত পরিসংখ্যানের ওপর চোখ বুলালে তা বুঝতে পারবেন।

* ১৯৯১ থেকে ২০১২ পর্যন্ত ক্যানসারে মৃত্যুহার ২৩ শতাংশ কমেছে
১৯৯১ থেকে ২০১২ এর মধ্যে ১৯৯১ সালে ক্যানসার মৃত্যু হার সর্বোচ্চ ছিল, যখন ১০,০০০ লোকের মধ্যে ২১৫ জন ক্যানসারে মারা গিয়েছিল। এরপর ধূমপান বর্জন, চিকিৎসার উন্নয়ন ও তাড়াতাড়ি শনাক্তকরণের কারণে এই হার হ্রাস পেতে শুরু করে। আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটি অনুসারে, এই ২১ বছরে ১.৭ মিলিয়নেরও বেশি মৃত্যু এড়ানো গেছে।

* ৩০ শতাংশেরও বেশি ক্যানসার প্রতিরোধযোগ্য
স্বাস্থ্যকর ডায়েট মেনে চলে, নিয়মিত ব্যায়াম করে, মদ্যপান সীমিত করে ও ধূমপান পরিহার করে আপনি ক্যানসার বিকশিত হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করতে পারেন। ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন অনুসারে, উন্নয়শীল দেশে এইচবিভি ও এইচপিভি ভ্যাকসিন ২০ শতাংশেরও বেশি ক্যানসার মৃত্যু কমিয়েছে।

* ক্যানসারে শিশুদের মৃত্যুহার এক দশকে বছরে ২ শতাংশ কমেছে
২০০৩ থেকে ২০১২ পর্যন্ত কেবলমাত্র ০-১৯ বছরের শিশু-কিশোরদের ক্যানসারে মৃত্যুহার কমেনি, প্রাপ্তবয়স্কদেরও কমেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ক্যানসার ইনস্টিটিউট অনুসারে, ক্যানসারে পুরুষদের মৃত্যুহার প্রতিবছর ১.৮ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে, যেখানে নারীদের ১.৪ শতাংশ।

* ২০০৫ থেকে ২০১১ পর্যন্ত নির্ণীত সকল ক্যানসারে পাঁচ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকার আপেক্ষিক হার ৬৯ শতাংশ
আপেক্ষিক বেঁচে থাকার হার হচ্ছে, মোট জনসংখ্যার তুলনায় ক্যানসার শনাক্তকরণের পর ক্যানসার রোগীদের অন্তত কিছু বছর বেঁচে থাকা। আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটি অনুসারে, ১৯৭৫ থেকে ১৯৭৭ পর্যন্ত পাঁচ বছর আপেক্ষিক বেঁচে থাকার হার ছিল ৪৯ শতাংশ। চিকিৎসায় অগ্রগতি ও তাড়াতাড়ি ক্যানসার শনাক্তকরণের কারণে বেঁচে থাকার হার বেড়েছে।

* স্তন ক্যানসার প্রাথমিক পর্যায়ে নির্ণয়ের পর পাঁচ বছর আপেক্ষিক বেঁচে থাকার হার প্রায় ১০০ শতাংশ
স্তন ক্যানসারের ক্ষেত্রে সার্বিক পাঁচ বছর আপেক্ষিক বেঁচে থাকার হার হলো ৮৯ শতাংশ, যেখানে পর্যায় ০ বা ১ এর ক্ষেত্রে তা প্রায় ১০০ শতাংশ। আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটি, স্তন ক্যানসার তাড়াতাড়ি শনাক্ত করার জন্য নারীদের বয়স ৪৫ হলে বার্ষিক ম্যামোগ্রাম করতে পরামর্শ দিচ্ছে।

* শিশুদের ক্যানসারের ক্ষেত্রে আপেক্ষিক পাঁচ বছর বেঁচে থাকার হার ৮০ শতাংশেরও বেশি
আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটি অনুসারে, ১৯৭০ দশকের মধ্যভাগে পাঁচ বছর বেঁচে থাকার হার ছিল ৫৮ শতাংশ। কিন্তু অভিনব ও উন্নত চিকিৎসার কারণে এ সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৩ শতাংশ। পাঁচ বছর বেঁচে থাকার হার ক্যানসারের ধরনের ওপর ভিত্তি করে ভিন্ন হয়। বর্তমানে লিউকেমিয়ার (যা হলে মৃত্যু অবধারিত বলে বিবেচিত) ক্ষেত্রে পাঁচ বছর বেঁচে থাকার হার ৮৫ শতাংশ।

* অণ্ডকোষের ক্যানসার রোগীদের ৯৫ শতাংশেরও বেশি পাঁচ বছর বেঁচে থাকেন
প্রাথমিক পর্যায়ে এই ক্যানসার শনাক্তকরণের ক্ষেত্রে পাঁচ বছর আপেক্ষিক বেঁচে থাকার হার ৯৯ শতাংশ, এ পর্যায়ে ৬৮ শতাংশ অণ্ডকোষের ক্যানসার নির্ণীত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ক্যানসার ইনস্টিটিউটের সার্ভেইল্যান্স, এপিডেমিওলজি অ্যান্ড রেজাল্টস প্রোগ্রাম অনুসারে, এমনকি এই ক্যানসারের অগ্রসর পর্যায়ের (যখন ক্যানসার শরীরের অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়েছে) ক্ষেত্রেও এই হার ৭৪ শতাংশ।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৮ জুলাই ২০১৮/ফিরোজ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge