ঢাকা, বুধবার, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২৬ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দাঁতের ক্যাভিটি অবহেলার বিপজ্জনক পরিণতি

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-২১ ৪:৫৫:০৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-২১ ৪:৫৫:০৭ পিএম
প্রতীকী ছবি
Walton AC 10% Discount

এস এম গল্প ইকবাল : দাঁতের ক্যাভিটি মানে হলো দাঁতে ব্যাকটেরিয়ার কারণে সৃষ্ট গর্ত। ক্যাভিটি যে আপনার মুক্তোর মতো সাদা দাঁতের ক্ষতি করছে তার প্রাথমিক লক্ষণ হলো- সাধারণত তীব্র দাঁত ব্যথা কিংবা শিরশিরে অনুভূতি। হঠাৎ ব্যথা বা শিরশিরে ভাব আপনাকে ভুল ধারণা দিতে পারে যে ক্যাভিটি বা গর্তটি রাতারাতি হয়েছে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে দাঁতের ক্ষয় জনিত উপসর্গ প্রকাশ পেতে কয়েক মাস থেকে এক বছরেরও বেশি সময় লাগতে পারে। উচ্চ চিনির ডায়েট খেলে এবং প্রতিদিন দাঁত ব্রাশ না করলে এ অবস্থা আরো খারাপের দিকে অগ্রসর হয়।

বোস্টন ইউনিভার্সিটির ডেন্টিস্ট্রির অধ্যাপক এবং ডেন্টাল সার্জারির ডাক্তার কার্ল ম্যাকমানামা বলেন, ‘যখন আমরা কার্বোহাইড্রেট বা চিনি খাই, ব্যাকটেরিয়া অ্যাসিড উৎপাদন করে যা দাঁতকে ক্ষয়ে ফেলে। আপনি যত বেশি চিনি খাবেন, তত বেশি ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি পাবে এবং আরো বেশি অ্যাসিড উৎপাদন হবে- ফলে দাঁতের ক্ষয় অব্যাহত থাকবে।’ প্রথম প্রথম আপনি এ ব্যথা বা শিরশিরে ভাবকে অবহেলা করতে পারেন, বিশেষ করে যদি এসব উপসর্গ মাঝেমাঝে আপনাকে ভোগায়। কিন্তু এর চিকিৎসা না করলে দাঁতের মারাত্মক সমস্যা হতে পারে, কিন্তু দাঁতের ক্যাভিটি বা গর্তের প্রাথমিক লক্ষণ দেখা দেওয়ামাত্র ডেন্টিস্টের কাছে গেলে জটিল সমস্যা এড়াতে পারবেন।

* আপনার দাঁত ভেঙে যেতে পারে
বড় ক্যাভিটির ক্ষেত্রে দাঁতের ভাঙন বা ফাটল খুব কমন। ডা. ম্যাকমানামা বলেন, ‘একটি অক্ষত সুস্থ দাঁত ভাঙে না বললেই চলে। কিন্তু আপনার দাঁতে প্রচুর ক্ষয় বা বড় গর্ত কিংবা পুরোনো ফিলিং থাকলে তা অধিক ভাঙন প্রবণ হবে।’ অমনোযোগী খাওয়ার অভ্যাস অথবা খাবার চিবানোতে কোনো ক্ষয়িত দাঁত সহজে ভেঙে যেতে পারে। আপনার ক্যাভিটি ফিলিং বা পূরণ না করা পর্যন্ত চিনি কম খেয়ে, ফ্লুরাইড টুথপেস্ট দিয়ে দিনে দুবার দাঁত ব্রাশ করে ও ফ্লসিং করে দাঁতের ক্ষয় ধীর করতে পারেন।

* আপনার স্নায়ু ধ্বংস হতে পারে
ডা. ম্যাকমানামা বলেন, ‘প্রত্যেক দাঁতের মধ্যভাগটা হলো ফাঁপা টিউব যেখানে স্নায়ু ও রক্তনালি রয়েছে। যখন ক্ষয় দাঁতের পাল্প বা স্নায়ু পর্যন্ত পৌঁছায়, তখন রোগীরা অসহনীয় ব্যথা অনুভব করে।’ ক্যাভিটি আপনার দাঁতের গভীর পর্যন্ত বিস্তৃত হলে সপ্তাহের ২৪ ঘণ্টাই ব্যথা বা অস্বস্তি অনুভূত হতে পারে। রোগীরা যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ হয়ে শেষ পর্যন্ত ডেন্টিস্টের অ্যাপয়েন্টমেন্ট নেন, কিন্তু ততক্ষণে খুব দেরি হয়ে যায়। যদি আপনার দাঁতের স্নায়ু মারা যেতে শুরু করে, তাহলে আপনার রুট ক্যানাল অথবা দাঁত তুলে ফেলার প্রয়োজন হতে পারে।

* আপনার দাঁত নষ্ট হতে পারে
যদি ক্ষয় বা ক্যাভিটি থেকে আপনার দাঁতের স্নায়ুতে কোনো ইনফেকশন হয়, তাহলে ইনফেকশন জনিত ফোলা দাঁতের স্নায়ুতে রক্ত সরবরাহ বিচ্ছিন্ন করবে এবং এটি নষ্ট হয়ে যাবে। ডা. ম্যাকমানামা বলেন, ‘আপনার স্নায়ু নষ্ট হয়ে গেলে ব্যথা চলে যাবে। কিন্তু ক্ষয় প্রক্রিয়ায় দাঁতটির ধ্বংসসাধন চলতে থাকবে এবং তা তুলে ফেলার প্রয়োজন হবে।’

* আপনার ইনফেকশন হতে পারে
দাঁতের মৃত টিস্যু আপনার শরীরকে ফোঁড়া ও ইনফেকশন প্রবণ করতে পারে। ডা. ম্যাকমানামা বলেন, ‘মৃত টিস্যু থেকে নির্গত বিষাক্ত পদার্থ দাঁতের মূলের শীর্ষস্থ হাড়কে সংক্রমিত করে, যা প্রদাহ দিয়ে শুরু হয়। তারপর এই ইনফেকশন আপনার গাল ও মুখের ফ্লোরে ছড়াতে পারে।’ এই ইনফেকশনের কারণে চোয়াল ও গ্রন্থি ফুলে যেতে পারে এবং আপনার জ্বর হতে পারে। অচিকিৎসিত তীব্র দাঁতের ইনফেকশন ব্রেইনে জীবননাশক ফোঁড়া সৃষ্টি করতে পারে, যদিও এটা বিরল। ক্যাভিটির বিরুদ্ধে প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ হিসেবে প্রতি ছয়মাসে একবার ডেন্টিস্টের কাছে যাওয়া উচিৎ- ইতোমধ্যে ক্যাভিটি হয়ে থাকলে তার অবস্থা আরো খারাপের দিকে যাওয়া প্রতিহত করতে নিয়মিত ডেন্টিস্টের কাছে যেতে হবে।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

পড়ুন : * দাঁতের মাড়ি থেকে রক্ত পড়ার ৬ কারণ
* প্রাকৃতিক ভাবে দাঁত সাদা করার ১০ উপায়
* মুখের ক্যানসারের ১২ নীরব উপসর্গ



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২১ মার্চ ২০১৯/ফিরোজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge