ঢাকা, বুধবার, ১১ মাঘ ১৪২৪, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

হজ প্রতারণা: ধর্মমন্ত্রীর পিএস-এপিসসহ ৪ জনকে তলব

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৯ ৯:০৭:০৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১৮ ৬:০৭:০৮ পিএম

এম এ রহমান মাসুম: হজ ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধানে ধর্মমন্ত্রীর একান্ত সচিব (পিএস) ও সহকারী একান্ত সচিবসহ (এপিএস) চার কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয় থেকে সম্প্রতি তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেন অনুসন্ধান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা। দুদকের সহকারি পরিচালক মাসুদুর রহমান সই করা চিঠিতে তাদেরকে আগামিকাল (বুধবার) সকাল সাড়ে ৯ টায় হাজির থাকতে বলা হয়েছে।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য‌্য রাইজিংবিডিকে অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তলবকৃতরা হলেন ধর্মমন্ত্রীর পিএস ড. আবুল কালাম আজাদ, এপিএস শফিকুর রহমান শফিক, ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মাজাহারুল ইসলাম ও আবু সাইদ।

এ বিষয়ে দুদকের ঊর্ধ্বতন একজন কর্মকর্তা রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘হজ ব্যবস্থাপনায় ১৮টি হজ এজেন্সির অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের কোন কর্মকর্তার কতটুকু দায়িত্ব ছিল, কার কার দায়িত্বে অবহেলা রয়েছে এবং নিবন্ধিত হজ এজেন্সির লাইসেন্স প্রদানে কোনো অনিয়ম ছিল কিনা এসব বিস্তারিত জানতেই তাদেরকে তলব করা হয়েছে। এছাড়া প্রয়োজনে মন্ত্রণালয়ের আরো কর্মকর্তাকে ডাকা হতে পারে।

গত ২৭ ডিসেম্বর দুদকের সহকারী পরিচালক মাসুদুর রহমানের নেতৃত্বে একটি দল রাজধানীর পল্টন এলাকায় হজ এসেন্সির অফিসগুলোতে অভিযানে যায়। দুদকের টিম রাজধানীর পল্টনে উলামা-আউলিয়া হজ গ্রুপ, সাঈদ এয়ার ইন্টারন্যাশনাল ও ইউরোশিয়া হজ এজেন্সিসহ চার এজেন্সির অফিসে অভিযান চালায়। অভিযানকালে একমাত্র সাঈদ এয়ার ইন্টারন্যাশনাল ছাড়া অন্য এজেন্সিদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের খুঁজে পাওয়া যায়নি। দুদকের উপস্থিতি টের পেয়ে অনেকেই পালিয়ে যান। দুদকের অভিযান অব‌্যাহত থাকবে বলে অনুসন্ধান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান।

অভিযোগের বিষয়ে দুদক সূত্রে জানা যায়, কমিশন ১৮টি হজ এজেন্সির অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর দুদকের সহকারী পরিচালক মাসুদুর রহমানকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়। অনুসন্ধান চলাকালে দুদকের পুরাতন অভিযোগের সঙ্গে যোগ হয়েছে আরো কিছু নতুন অভিযোগ। এর মধ‌্যে ২০১৬ সালের বছর শেষে হজে অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির বিষয়ে মোট ২২৮টি হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে মন্ত্রণালয়ে। যা দুদকে পাঠানো হয়েছে।

হাজিদের মানসম্মত ট্রলিব্যাগ না দেওয়া, ভিসা থাকার পরও হজে পাঠাতে টালবাহানা, সৌদি আরবে তাসরিয়াবিহীন (চুক্তিহীন) বাড়িতে রাখা ও নিম্নমানের খাবার দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ ওঠে এসব এজেন্সির বিরুদ্ধে। এসব অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ খতিয়ে দেখতে নভেম্বরে তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ধর্ম মন্ত্রণালয়। কমিটির তদন্তেও হজ ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম ও প্রতারণার তথ‌্য পাওয়া গেছে বলে জানা যায়। খুব শিগগরিই তাদের তদন্ত প্রতিবেদন দুদকে পাঠানো হবে।

ধর্ম মন্ত্রণালয় যেসব এজেন্সির বিরুদ্ধে তদন্ত করছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো নূরানী ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, পেনাং ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, পারফেক্ট ট্রাভেলস, রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল, এসএম ফরহাদ এয়ার ট্রাভেলস, এসএন ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, সাঈদ এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, সারা এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, শানিন এয়ার ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট লিমিটেড, শুয়াইব এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, সিয়াম ওভারসিজ, সোনিয়া ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, সুবহা ইন্টারন্যাশনাল, শোহাইল এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, সানশাইন ট্রাভেলস এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, তিশা এয়ার সার্ভিস, বাবুস সালাম স্কাই এয়ারওয়েজ, মিম ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আল আকসা ট্রাভেলস, আদ-দীন ইন্টারন্যাশনাল, ইন্টার গালফ ট্রাভেলস লিমিটেড, মজুমদার এয়ার ইন্টারন্যাশনাল, জীবন ট্রাভেল লিমিটেড, আটলান্টিক এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম, কাশেম ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, এস আহমেদ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, কমপ্যাক্ট ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস সার্ভিস লিমিটেড, শামস ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, ওয়াহিদ ট্রাভেলস, হাজি-হাফেজ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, ট্রাভেল ওয়ার্ল্ডস, আল রাফি ট্রাভেলস ট্রেড, মক্কা ওভারসিজ, আল হায়াত এভিয়েশন, সেনশুরি এভিয়েশন, ঢাকা হজ কাফেলা ও ট্রাভেলস, ফিহা ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, হাসান ওভারসিজ, জান্নাত হজ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, করতোয়া ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, এভারেস্ট ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, মাহির হজ সার্ভিস অ্যান্ড ট্যুরস, মাসুম এয়ার ট্রাভেলস, এমসিও ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, নুর-ই-মদিনা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, আকবর ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আল আমানাত ট্রাভেলস, আবকো এয়ার সার্ভিস, কক্সবাজার ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, জামান এন্টারপ্রাইজ, মদিনা এয়ার ইন্টারন্যাশনাল এভিয়েশন, নর্দান ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেল, সেভেন স্টার এভিয়েশন, সিরাজগঞ্জ ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস, ট্রাভেলস নুরানী, ব্রাইট ট্রাভেলস, আল সাফা এয়ার ট্রাভেলস, সাউথ এশিয়ান ট্রাভেলস, বুশরা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, মাকারিম আল বায়্যিত ট্যুরিজম সার্ভিস, হলি দারুননাজাত হজ সার্ভিস, রহমানিয়াহ হজ অ্যান্ড ওমরাহ ট্রাভেলস, সানজিদ ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, সালওয়াহ ওভারসিজ সার্ভিস, ইউনাইটেড ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস লিমিটেড, হিজল ট্যুরস অ্যান্ড ট্রেডার্স, সুপার খিদমাহ ট্রাভেলস, আবদুল আজিজ ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরিজম, আলহাজ ট্রাভেলস ট্রেড, আল হারামাইন ট্রাভেলস, কলম্বিয়া ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, কেরানীগঞ্জ ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আত-তাইয়ার ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, আশা এভিয়েশন, এয়ার কিং ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, আল-বারি ট্রাভেলস ইন্টারন্যাশনাল, আল বালাদ ওভারসিজ ও ব্রাইট ট্রাভেলস।

** হজ এজেন্সির প্রতারণা, দুদকের অভিযানে মিলছে সত্যতা



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৯ জানুয়ারি ২০১৮/এম এ রহমান/শাহনেওয়াজ

Walton
 
   
Marcel