ঢাকা, রবিবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৬, ২১ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সাফল্যে উদ্ভাসিত হোক বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন

কামাল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০১-০৩ ৮:৩৩:৫৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-০৩ ৮:৩৩:৫৪ পিএম

রফিকুল ইসলাম কামাল : গড়িয়ে যাওয়াটাই সময়ের ধর্ম। গড়াতে গড়াতে তাই বিদায় নিয়েছে ২০১৬ সাল। জীর্ণ-শীর্ণতাকে ঝেড়ে ফেলে, নতুনের জয়ধ্বনি শুনিয়ে দুয়ারে এসেছে ২০১৭ সাল। পেছনকে মুছে দেওয়া যাবে না। কিন্তু নব-সূর্যোদয়ে পেছনে নিয়ে স্মৃতিকাতর হওয়ার চেয়ে নতুন উদ্যমে আগামীর পথে হাঁটাই সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ।

 

বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে ২০১৬ সাল কেমন ছিল? প্রশ্নটা সহজ, কিন্তু উত্তরটা ব্যাপক। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন দিনে দিনে বিস্তৃত হয়েছে। এর পরিধি বেড়েছে। ক্রিকেট, ফুটবল, হকি, ভলিবল, সাঁতার, অ্যাথলেটিকস- স্পোর্টসের বিভিন্ন দিক নিয়েই বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন। সুতরাং, সহজেই বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের গত বছরের খতিয়ান তুলে ধরা, ক্রীড়াঙ্গনের সাফল্য-ব্যর্থতার বিশ্লেষণ করা সম্ভব নয়।

 

সদ্য শেষ হওয়া বছরের দিকে ফিরে দেখলে, বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে সবচেয়ে উজ্জ্বল ছিল ক্রিকেট। গত বেশ কয়েক বছর ধরেই ক্রিকেট তার শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রেখেছে। বিশ্ব দরবারে গত বছরটাতেও যথারীতি ক্রিকেট দিয়ে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বলতর করেছেন মাশরাফি, সাকিব, তামিমরা। গত প্রায় দুই বছর ধরে বাংলাদেশের ক্রিকেট যে অন্য উচ্চতায় আসীন, তার ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালেও বেশ কিছু সাফল্য বাংলাদেশের পালকে যুক্ত হয়েছে। যদিও শেষ হওয়া বছরটায় টাইগারবাহিনী খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়নি, তথাপি সুযোগ যা মিলেছে, তা কাজে লাগিয়েছে। বছর শেষ হওয়ার আগেই তাই আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে সাতে উঠে এসেছে মাশরাফি বাহিনী।

 

সদ্য শেষ হওয়া বছরে বাংলাদেশ আফগানিস্তানের পর ইংল্যান্ডের সাথে ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে। আফগানিস্তানকে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হারিয়ে ইংল্যান্ডের কাছে ২-১ ব্যবধানে হেরেছেন মাশরাফিরা। তবে বছরের শেষ দিকে নিউজিল্যান্ডের কাছে হার কিছুটা নিষ্প্রভ করেছে টাইগারদে। গেল বছরের শুরুর দিকে এশিয়া কাপে দারুণ খেলে বাংলাদেশ। ওয়ানডে’র বদলে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হওয়া ওই টুর্নামেন্টে ৫ ম্যাচের ৩টিতেই জয় পায় টাইগার বাহিনী। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নেওয়া মাশরাফি-মুশফিকরা ফাইনালে ভারতের কাছে হেরে যান।

 

২০১৬ সালে টেস্টে বাংলাদেশ মাত্র দুটি ম্যাচ পেয়েছে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওই দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে দারুণভাবে লড়ে ১-১ সিরিজ ড্র করে টাইগাররা। প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ডকে টেস্টে হারানোর গৌরবও অর্জিত হয় ওই সিরিজে।

 

বাংলাদেশের জনপ্রিয়তম খেলাটি ছিল ফুটবল। আশির দশক, নব্বইয়ের দশক তো বটেই, এমনকি চলতি শতাব্দির গোড়ার দিকেও ফুটবলেই মজে ছিল দেশের আপামর ক্রীড়াপ্রেমী মানুষ। কিন্তু সেই ফুটবল এখন মৃতপ্রায়। পচন ধরেছে ফুটবলের গায়ে। মানুষও মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ফুটবল থেকে। এখন আবাহনী-মোহামেডানের ঐতিহ্যের লড়াইয়েও হাজার খানেক দর্শক হয় না মাঠে! গেল বছরটাও ফুটবল ব্যর্থতার বৃত্ত ভাঙ্গতে পারেনি। উপরন্তু ব্যর্থতার চোরাবালিতে ডুবতে ডুবতে ভুটানের কাছে হেরে মান-ইজ্জত হারিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে প্রায় নির্বাসিত হয়ে গেছে। সর্বশেষ ২১ আন্তর্জাতিক ম্যাচে বাংলাদেশ গোল খেয়েছে ৫৮টি! প্রতিপক্ষের জালে নিজেরা বল জড়াতে পেরেছে মাত্র ১২ বার! ম্যাচগুলোতে জয় মাত্র ৪টি, ড্র ৩টি আর হার ১৪টিতে। এসবই তো বাংলাদেশ ফুটবলের হতশ্রী চেহারার আসল রূপ।

 

ক্রিকেট, ফুটবলের বাইরে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে আশার আলো হয়ে জ্বলছে হকি। গেল বছরে এশিয়ার দ্বিতীয় স্তরের টুর্নামেন্ট এএইচএফ হকি কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো এ কাপে বিজয়মাল্য পড়ে বাংলাদেশ। ফুটবলের চাইতে হকিই বাংলাদেশকে সাফল্যে ভাসিয়েছে গেল বছর। এর বাইরে, গলফে বাংলাদেশের বিশ্বমানের তারকা সিদ্দিকুর রহমানকে সেভাবে খুঁজে পাওয়া যায়নি গেল বছর।

 

অ্যাথলেটিকসেও গেল বছর হতাশার ছিল বাংলাদেশের জন্য। বছরের শুরুতে ভারতে অনুষ্ঠিত এসএ গেমসে ৮ দেশের মধ্যে ৫ম হয়েছে বাংলাদেশ। ১০ কোটি টাকা খরচ করে মাত্র ৪টি স্বর্ণ জয় করতে পেরেছে বাংলাদেশ। অর্থাৎ, আড়াই কোটি টাকা খরচ করে ১টি স্বর্ণ মিলেছে! ১৫টি রৌপ্য ও ৫৬টি ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে এসএ গেমস শেষ করে বাংলাদেশ। বাংলাদেশকে সাঁতার থেকে র্স্বণ এনে দেন মাহফুজা খাতুন শিলা, ভারোত্তোলন থেকে মারিয়া আকতার সীমান্ত, শ্যুটিং থেকে শাকিল  আহমদ। ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত আগের আসরে বাংলাদেশ ১৮টি র্স্বণ পদক জয় করেছিল।

 

শুরু হওয়া নতুন বছরটাতে বাংলাদেশ কেমন করবে? ক্রীড়াঙ্গন থেকে কি সাফল্যের ফুলঝুরি ছুটবে নাকি ব্যর্থতার কালোছায়া ঢেকে রাখবে? সময়ই এসব প্রশ্নের জবাব দেবে। তবে আশার ভেলায় চড়তে দোষ কি! আশাবাদী না হলে সাফল্যও আসবে না। সুতরাং, চলতি নতুন বছরটা বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন আরো সমৃদ্ধ হোক, আরো এগিয়ে যাক সাফল্যের আলোয় উদ্ভাসিত হয়ে- এমনটাই তো প্রত্যাশা।

 

 

রাইজিংবিডি/সিলেট/৩ জানুয়ারি ২০১৭/কামাল/আমিনুল

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge