ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ কার্তিক ১৪২৪, ২৪ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

মোবাইলে টানা গেম খেলে এক চোখ হারালেন তরুণী

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১০-১০ ১:৩৫:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১০-১০ ৫:০০:৩১ পিএম

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : স্মার্টফোনে টানা ২৪ ঘণ্টা গেম খেলে ২১ বছর বয়সি এক তরুণী আংশিক দৃষ্টিহীন হয়ে পড়েছেন। চীনের শানঝি প্রদেশের জিয়াওজিং (ছদ্মনাম) নামের এই তরুণী সম্প্রতি স্মার্টফোনে মাল্টিপ্লেয়ার অনলাইন গেম ‘অনার অব কিংস’ খেলার সময় হঠাৎ ডান চোখের দৃষ্টি হারান।

চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি এই তরুণী ডান চোখে রেটিনাল আর্টেরি অকলুশ্যন (আরএও) রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের মতে, এই রোগ সাধারণত বয়স্কদের হয়ে থাকে কিন্তু কোনো বিরতি ছাড়া টানা স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকায় জিয়াওজিংয়ের ডান চোখ আরএও-তে আক্রান্ত হয়েছে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে এই তরুণী বলেন, তিনি এই গেমে এতটাই আসক্ত যে অফিসে থেকে বিকেলে বাসায় ফিরেই খেলায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন এবং ছুটির দিনে সারাদিন খেলেন। তার ভাষ্য, ‘যে দিন আমার কাজ থাকে না, সেদিন সাধারণত আমি সকাল ৬টা নাগাদ ঘুম থেকে উঠি, নাস্তা সেরে এরপর বিকাল ৪টা পর্যন্ত গেম খেলি। এরপর খাবার ও সংক্ষিপ্ত ঘুম সেরে রাত ১টা পর্যন্ত গেম খেলে থাকি। মাঝে মাঝে খেলায় এতোই মগ্ন থাকি যে, খাবার খাওয়ার কথা ভুলে যাই, বাবা-মা আমাকে রাতের খাবারের সময় হয়েছে জানালেও তাদের কথা শুনি না।’

গেম খেলে ডান চোখের দৃষ্টি হারানো জিয়াওজিংয়ের দৃষ্টি ফেরাতে চিকিৎসকরা চেষ্টা করছেন। অনার অব কিংস খুবই জনপ্রিয় একটি যুদ্ধের গেম, শুধু চীনেই এই গেমের ২০০ মিলিয়ন নিবন্ধিত খেলোয়ার রয়েছে। ভীষণ আসক্তি সৃষ্টি করার জন্য এই গেমটি সমালোচিতও। চিকিৎসকরা অনলাইন গেম খেলার সময় চোখের দৃষ্টি বাচাঁতে প্রতি আধা ঘণ্টা পর বিরতি নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

কেবিন গ্রুপের প্রোগ্রাম ডিরেক্টর অ্যালিসার মর্ডে বলেন, ‘যারা মনে করেন মোবাইল গেমে আসক্তি হতে পারে না, তাদের জন্য এটি একটি সতর্কীকরণ ঘটনা। গেমিং খুবই আসক্তিকর।’

ডেইলি মিররকে তিনি বলেন, ‘অন্যান্য আসক্তির মতো গেমিং মস্তিষ্কে ডোপামিন উদ্দীপক হিসেবে কাজ করে। ২০১৩ সালে ইন্টারনেট গেমিং আসলে ডিএসএম-এর সেকশন ৩-এ অন্তর্ভুক্ত ছিল, যার অর্থ হলো এটি শিগগির জুয়াখেলার মতো অ-মাদকাসক্ত আসক্তির তালিকায় নাম লেখাবে।’

তথ্যসূত্র : মিরর



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ অক্টোবর ২০১৭/ফিরোজ

Walton
 
   
Marcel