ঢাকা, রবিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৫, ২১ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

আমরা সবাইকে নিয়ে খেলতে চাই : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-১১ ৮:০৭:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১১ ৮:০৭:৩৮ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, নির্বাচনী মাঠ থেকে গতবার পালিয়ে গেছেন। দয়া করে এবার পালাবেন না। ভীরু ও কাপুরুষরাই মাঠ ছাড়ে। আমরা সবাইকে নিয়ে খেলতে চাই।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর মিটফোর্ডে বাংলাদেশ কেমিস্টস অ্যান্ড ড্রাগিস্টস সমিতির সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, নির্বাচনের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করা আছে। আওয়ামী লীগ নির্বাচনী লড়াইযের জন্য প্রস্তুত। সমান মাঠেই খেলা হবে। নির্বাচন কমিশন রেফারির দায়িত্ব পালন করবে। সব দলের জন্য সমান সুযোগ থাকবে।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, জনগণ নির্বাচন চায়। অযথা আন্দোলন, জ্বালাও-পোড়াও চায় না। ২০১৪ সালে নির্বাচন না হলে দেশে বিশৃংখলার সৃষ্টি হতো। এ বছরের নির্বাচনও সংবিধান অনুযায়ী শেখ হাসিনার অধীনেই হবে। যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ, ভারতসহ সারা বিশ্বে যেভাবে নির্বাচন হয় বাংলাদেশেও সেভাবেই হবে। দেশের মানুষ শেখ হাসিনা সরকারের ৯ বছরের উন্নয়ন দেখেছে। তাই আর জনগণ আগুন সন্ত্রাসীদের বিপক্ষে উন্নয়নের বাহক আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে।

ভেজাল ও নকল ওষুধের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর অবস্থান অব্যাহত থাকবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সরকার সৎ ব্যবসায়ীদের সাহায্য করতে চায়। অসাধুদের কারণে প্রকৃত ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। নকল ও ভেজালের সঙ্গে কোনো আপোষ করবে না সরকার। তাই নকল ও ভেজাল ওষুধ প্রস্তুতকারী কারখানা বন্ধ করছে সরকার। আগামী চার মাসের মধ্যে সারাদেশে প্রকৃত ওষুধের দোকানের লাইসেন্স যাচাই-বাছাই করা হবে।

তিনি বলেন, যেসব দোকানে মানহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ পাওয়া যাচ্ছে সেগুলোকে সিলগালা করে দেওয়া হচ্ছে। ভেজালের বিরুদ্ধে সরকারের অভিযানকে সফল করতে ড্রাগিস্টস ও কেমিস্টস সমিতির সহায়তা চান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, জনগণের ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করতে সরকার দেশে মডেল ফার্মেসি চালুর উদ্যোগ নিয়েছে। ইতোমধ্যে ২০ জেলায় ৩০০ মডেল ফার্মেসি চালু হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা বিশেষজ্ঞ ফার্মাসিস্টের সেবাসহ এসব ফার্মেসিতে মানুষ মানসম্মত ওষুধ পাবে বলে এগুলোর জনপ্রিয়তা বাড়বে।

সমিতির সভাপতি সাদেকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মে. জে. মোস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ ফার্মেসি কাউন্সিলের সহসভাপতি এম মোসাদ্দেক হোসেন, এফবিসিসিআই’র পরিচালক বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভার আগে মন্ত্রী মিটফোর্ডে আলিফ-লাম-মীম ফার্মা মডেল ফার্মেসির উদ্বোধন করেন।

এর আগে সচিবালয়ে অটিজম সংক্রান্ত জাতীয় স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতিত্বকালে বাংলাদেশ থেরাপি ও রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিল আইনের খসড়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে চূড়ান্তকরণের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, স্নায়ুবিকাশজনিত সমস্যা ও অটিজম মোকাবেলায় জনসচেতনতা কার্যক্রম জোরদারসহ আক্রান্তদের পূনর্বাসনে বাংলাদেশ বিশ্বে অগ্রণী ভূমিকা রেখে চলেছে। একে আরো দক্ষ, শক্তিশালী ও কার্যকর করার লক্ষ্যে দেশে একটি সংশ্লিষ্ট আইন দরকার। দ্রুত এই আইন চূড়ান্ত করে মন্ত্রী সভায় উত্থাপনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে তিনি সংশ্লিষ্টদের তাগিদ দেন।

এ সময় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদসহ অটিজম সংক্রান্ত জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির সদস্য, স্বাস্থ্য, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ জানুয়ারি ২০১৮/সাওন/মুশফিক

Walton Laptop
 
     
Walton