ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

ব্যবসায়ীরা মিলে বন্ধ করে দিলেন সড়ক খোঁড়াখুঁড়ি

বাদল সাহা : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৫-১৬ ১:৫৬:৪৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৫-১৬ ২:১৭:১২ পিএম

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: রমজানের আগেই গোপালগঞ্জ পৌরসভায় একটি সড়কের খোঁড়াখুঁড়ি বন্ধ করে দিয়েছে অতিষ্ঠ ব্যবসায়ীরা।

এই ঈদের আগে গোপালগঞ্জ শহরের চৌরঙ্গী থেকে বাজার পর্যন্ত সড়কটির উন্নয়নে খোঁড়ার উদ্যোগ নেয় পৌরকতৃপক্ষ। জেলা শহরের মূল ব্যবসায়িক এলাকা হিসাবে খ্যাত এ সড়কে রয়েছে কাপড়, জুতা, কসমেটিকসসহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় দোকান। সোমবার সকালে সড়কটি খুঁড়তে গেলে ব্যবসায়ীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তারা একজোট হয়ে ড্রেনেজ নির্মাণ ও সড়ক সংস্কারের কাজ বন্ধ করে দেন।

খবর পেয়ে ছুটে আসেন গোপালগঞ্জ পৌরসভার মেয়র কাজী লিয়াকত আলী লেকু ও কাউন্সিলর আতিকুর রহমান পিটু। ব্যবসায়ী নেতাদের সাথে কথা বলেন।

ব্যবসায়ীরা  মেয়রকে বলেন, ‘গত ঈদে সড়ক খুঁড়ে ফেলে রাখার কারণে আমাদের লোকসান দিতে হয়েছে। এবারো যদি রমজানের আগে সড়ক খোঁড়াখুঁড়ি করা হয় তাহলে ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ করে দিতে হবে।’

ব্যবসায়ী শেখ তরিকুল ইসলাম কামাল বলেন, ‘গত ঈদের আগে বর্ষা মৌসুমে চৌরঙ্গীর একটি সড়ক খুঁড়ে ফেলে রাখা হয়েছিল। বৃষ্টির কারণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় ক্রেতারা আর এ মুখো হননি। ফলে লোকসান দিতে হয়েছিল। এ বছরও যদি সড়কটি ভেঙ্গে ফেলা হতো, এবারও আমাদের লোকসান গুনতে হতো।’

সম্মিলিত ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ফরিদ আহম্মেদ দাঁড়িয়া বলেন, ‘উন্নয়নের নামে দ্রুত সড়কগুলো খোঁড়াখুঁড়ি করা হলেও মেরামতের কাজ চলে ঢিলেঢালা ভাবে। রমজানের আগে চৌরঙ্গী থেকে বাজার পর্যন্ত সড়কটি খুঁড়তে লোকজন এলে  ব্যবসায়ীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তাই কাজটি ঈদের পর করার জন্য বলেছি। পৌর মেয়র ঈদের পর সড়কের কাজ ধরার আশ্বাস দিয়েছেন।’

পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী লেকু বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের বলেছিলাম ১০ রমজানের মধ্যে সড়কটির সকল কাজ শেষ করা হবে। কিন্তু ব্যবসাযীরা সড়কটি খোঁড়াখুঁড়ি না করার অনুরোধ করে। রমজান ও ঈদকে সামনে রেখে ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে, ব্যবসায়ীদের দাবির মুখে কাজটি বন্ধ করা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করা হয়েছে ঈদের পর কাজ ধরা হবে।’

তিনি বলেন, ‘পৌর এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। উন্নয়ন করতে গেলে কিছুটা তো ভোগান্তি হবে। সব কিছুই মেনে নিয়ে সকলের সহযোগীতায় উন্নয়নমূলক কাজ শেষ করা হবে।’

জানা গেছে, দুই বছর আগে গোপালগঞ্জ পৌরসভায় এলাকায় ড্রেনেজ নির্মাণের নামে এক সাথে প্রায় ৮০ ভাগ সড়কে খোঁড়াখুঁড়ি করা হয়। এর মধ্যে কিছু সড়ক ঠিক হলেও অন্তত: ৬০ ভাগ সড়কে বর্ষা মৌসুমে  চরম ভোগান্তির সৃষ্টি হয।

 

 

 

 

রাইজিংবিডি/গোপালগঞ্জ/১৬ মে ২০১৮/বাদল সাহা/টিপু

Walton Laptop
 
     
Walton