ঢাকা, শনিবার, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসে বাংলাদেশের ৬ পুরস্কার

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১০-১৪ ৪:০৯:৪৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-১৪ ৮:৩৩:৩৯ পিএম

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের আইসিটি অস্কারখ্যাত ‘অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস’ ২০১৮ আসরে শীর্ষ পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশের একটি প্রকল্প। এছাড়া ৫টি মেরিট বা সম্মানজনক পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশ।

গত ৯ অক্টোবর, চীনের গুয়াংঝুতে শহরে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৮। ১৩ অক্টোবর বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়ার মাধ্যমে শেষ হয় এবারের আসর।

অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৮ আসরে সিনিয়র স্টুডেন্ট ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশের রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের ফিড’এম প্রকল্প জিতেছে শীর্ষ পুরস্কার (চ্যাম্পিয়ন অ্যাওয়ার্ড)। এছাড়া ক্রস ক্যাটাগরিতে (স্টার্টআপ) সিন্দাবাদ ডটকম লিমিটেডের প্রকল্প সিন্দাবাদ ডটকম, সিনিয়র স্টুডেন্ট ক্যাটাগরিতে সেন্ট জোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রকল্প সবজান্তা, ইন্ডাস্ট্রিয়াল (অ্যাগ্রিকালচার) ক্যাটাগরিতে এসিআই অ্যাগ্রিবিজনেসের প্রকল্প ফসলি, ইন্ডাস্ট্রিয়াল (ট্রান্সপোর্ট) ক্যাটাগরিতে যান্ত্রিক লিমিটেডের যান্ত্রিক নাইন ওয়ান ওয়ান, ইনক্লুশন ও কমিউনিটি সার্ভিস ক্যাটাগরিতে এটুআই-সফটবিডি লিমিটেডের যৌথ প্রকল্প একসেবা মেরিট পুরস্কার জিতেছে। শীর্ষ পুরস্কার প্রাপ্তের খুব কাছাকাছি নম্বর হলে সে প্রকল্পকে মেরিট পুরস্কার দেওয়া হয়।

 



এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বৃহত্তম সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যালায়েন্স (অ্যাপিকটা), এ অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি সম্ভাবনাময় ও সফল উদ্যোগ, সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর সেবার স্বীকৃতি দিতে প্রতিবছর অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসের আয়োজন করে থাকে। এবার ১৫টি দেশ থেকে ২৬৬টি প্রকল্প অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৮তে অংশ নেয়।

সিনিয়র স্টুডেন্ট ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ‘চলতি বছরের এপ্রিল থেকে আমরা বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডের প্রক্রিয়া শুরু করি। সারা দেশ থেকে বাছাই করে ২৮টি প্রতিষ্ঠানের ২৯টি প্রকল্পকে আমরা অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৮ এর জন্যে মনোনীত করেছি। পাশাপাশি গত আগস্ট মাসে আইসিটি অ্যাওয়ার্ডস শেষ হওয়ার পর ১ মাসব্যাপী মনোনীত প্রকল্পগুলোর উন্নয়নে প্রশিক্ষণও প্রদান করা হয়েছে। বাংলাদেশের এ অর্জন বিশ্ব পরিমন্ডলে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার দৃষ্টান্ত স্থাপন করল।’

বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডসের আহবায়ক ও অ্যাপিকটার  বিচারক মন্ডলীর সদস্য দিদারুল আলম বলেন, ‘আমরা বেসিস থেকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। বেসিস সদস্যদের পাশাপাশি আগামী দিনের তরুণ প্রজন্মদের নিয়ে কাজ করছি আমরা। সিনিয়র স্টুডেন্ট ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়নশিপসহ মোট ৬টি পুরস্কার প্রাপ্তি বেসিসসহ গোটা বাংলাদেশের জন্যে সম্মান বয়ে নিয়ে এসেছে।’

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে বাংলাদেশ অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসে ১টি চ্যাম্পিয়ন ও ১৪টি ম্যারিট পুরস্কার অর্জন করে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ অক্টোবর ২০১৮/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC