ঢাকা, সোমবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
Risingbd
অমর একুশে
সর্বশেষ:

‘টি-টোয়েন্টিতে আমাদের আরো ভালো করা উচিত’

আমিনুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৩ ৭:১৭:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১৩ ৮:৪৬:৪০ পিএম

ক্রীড়া ডেস্ক : বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এক বছরে যতগুলো ওয়ানডে খেলে, তার অর্ধেকও টি-টোয়েন্টি খেলে না। অথচ বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মানের একটি লিগ হয়। সেখান থেকে প্রতি বছর ভালো ভালো ক্রিকেটার আবিস্কৃত হচ্ছে। দল হিসেবে ওয়ানডেতে বাংলাদেশ যে পরিমাণ উন্নতি করেছে টি-টোয়েন্টিতে ঠিক ততটুকু হয়নি।

বিষয়টি মানছেন তামিম ইকবালও। তিনি মনে করছেন টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে বাংলাদেশের আরো ভালো করা উচিত, ‘এই একটা ফরম্যাটে আমি বিশ্বাস করি আমরা যা করি তার চেয়ে আরও ভাল করতে পারি। আমরা যা খেলছি তার চেয়ে অনেক ভাল খেলতে পারি। পাশাপাশি এই ফরম্যাটে আমরা ইন্টারন্যাশনাল লেভেলের ডমেস্টিক টুর্নামেন্টও খেলি, সেটা হল বিপিএল। সুতরাং এই একটা ফরম্যাটে আমাদের আরও ভাল করা উচিত। আমি আশা করি আমরা আরও ভাল খেলতে পারি।’

২০১৩ সালে মাত্র ৪টা টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ। ২০১৪ সালে সেই সংখ্যা বেড়ে হয় ১০টি। ২০১৫তে এসে আবার কমে যায় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সংখ্যা। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ মাত্র ৫টি ম্যাচ খেলে। ২০১৬ সালে বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ থাকায় বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি খেলে সর্বোচ্চ ১৬টি। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের খেলা টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সংখা মাত্র ৭। তবে নতুন ক্যালেন্ডারে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সংখ্যা বাড়ছে।

এ বিষয়ে তামিম বলেন, ‘এখন পরিস্থিতিটা একটু আলাদা। আপনি যদি দেখেন আমরা নরমালি টি-টোয়েন্টি খেলতাম খুবই কম। কিন্তু আপনি যদি আমাদের পরবর্তী ৬ মাস বা এক বছরের সূচি দেখে আমরা কিন্তু প্রচুর পরিমান টি-টোয়েন্টি খেলব। সম্ভবত ওয়ারনেডরে চেয়েও বেশি টি-টোয়েন্টি খেলা আছে পরবর্তী এক বছরের মধ্যে। আমরা এখানেও ২টি খেলব। শ্রীলঙ্কায় ৪/৫টা খেলব। তারপর ওয়েস্ট ইন্ডিজেও ২টা না ৩টা টি-টোয়েন্টি আছে। এখন আমার কাছে মনে হয় এখনই সঠিক সময় যে আমাদের কোন ধরণের ব্যালান্স অথবা কোন ধরণের প্ল্যানিংয়ে আমরা আগাব। এখন থেকে আমরা যদি রেডি হয়ে যাই যত কম সময় নিয়ে তাহলে আমাদের জন্য ভাল। কারণ, ২০২০ এ বিশ্বকাপ আছে। আমাদের হাতে যথেষ্ট সময় আছে।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/আমিনুল

Walton
 
   
Marcel