ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২০ নভেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

আমার ক্যারিয়ার এত দ্রুত শেষ হতে পারে না : ইমরুল

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১০-২২ ১২:২৬:২৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-২২ ১:৪১:১৫ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক, মিরপুর থেকে: দশ বছর হয়ে গেল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন ইমরুল কায়েস। তবুও দলে জায়গা স্থির নয়!

নিয়মিত দল থেকে বাদ পড়ছেন। সময়ের ধারাবাহিকতায় আবার ফিরে আসছেন। গোটা কয়েক সিরিজ খেলছেন, আবার বাদ পড়ছেন। মিউজিক্যাল চেয়ারের মতোই তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার! দল খারাপ করলে প্রায়ই তাকে যেতে হয় সাইডবেঞ্চে। আবার ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রমাণ করে ফিরে পান জায়গা।

এশিয়া কাপে আকস্মিকভাবে দলে জায়গা পান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ওপেনার নয়, ছয়ে খেলে দলকে জেতান। ৭২ রানের নজরকাড়া ইনিংস খেলে আবার জায়গা করে নেন। সেই ধারাবাহিকতা এখনও ধরে রেখেছেন বাঁহাতি ওপেনার। রোববার ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলেন ১৪৪ রানের ইনিংস। তার ম্যাচ জেতানো ইনিংসে দল জিতেছে। তাইতো বুক উচুঁ করে বলতে পারছেন, তিনি এখনও ফুরিয়ে যাননি। দলকে দেওয়ার মতো অনেক কিছুই এখন বাকি।  

ম্যাচশেষে ইমরুল বলেছেন,‘আমার সঙ্গে অনেক ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। তারা এখনও খেলেছে। আবার এমন ক্রিকেটারেরও অভিষেক হয়েছে তারা এখন দৃশ্যপটেও নেই। আমার কাছে মনে হয় যে দৃঢ়প্রতিজ্ঞা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমি বিশ্বাস করি যে আমার ক্যারিয়ারে এত দ্রুত শেষ হতে পারে না। আমি সবসময় নিজেকে প্রস্তুত রাখি। যতদিন খেলব, জাতীয় দলে খেলার জন্য নিজেকে প্রস্তুত রাখি। যেদিন জাতীয় দলে খেলার সুযোগ থাকবে না, নিজেই বলব থ্যাংক ইউ।’



তার কাছে প্রতিটি ফিরে আসা নতুন সুযোগ, নতুন শুরু। তাইতো পুরনো দৃশ্যপট ও দুঃস্মৃতি নিয়ে ততটা উদ্বিগ্ন নন তিনি। ইমরুলের ভাষ্য,‘আমি যখন জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পাই তখনই নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি। দেশের হয়ে খেলা অনেক সম্মানের। যখনই সুযোগ পাই তখনই শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা করি। কখনো সফল হই কখনো হই না। কিন্তু আমি আমার পরিশ্রম এবং সবকিছু শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা করি।’

ব্যাডপ্যাচ, অফফর্ম কিংবা ফর্ম সবকিছুই ক্রিকেটীয় জীবনের অংশ। তাইতো নিজের খারাপ সময় নিয়ে না ভেবে বর্তমানকে নিয়ে থাকতে চান ইমরুল,‘ক্রিকেটারদের ক্যারিয়ারে আপ অ্যান্ড ডাউন থাকবেই। কেউ ভালো খেলবে, আবার ভালো খেলতে খেলতে খারাপ খেলবে। এভাবেই ক্যারিয়ার হয়। কেউ কখনও একই ধারাবাহিকতায় টানা খেলতে পারে না। আমারটা হয়ত একটু ভিন্ন হয়ে গেছে। অন্য কেউ এসে ভালো খেলে ফেলেছে, এজন্য আমার হয় নাই। এখন আমি ওগুলো নিয়ে চিন্তা করি না।  দেশের হয়ে খেলায় ভালো অনুভূতি কাজ করে, সুযোগটার জন্য তাই অপেক্ষা করি এবং কঠোর পরিশ্রম করি।’

ইমরুল ফিরে পেয়েছেন নিজেকে। তার ফিরে আসায় নিশ্চিতভাবেই স্বস্তি ফিরবে বাংলাদেশ শিবিরে। ইমরুলের ব্যাট হাসলে হাসবে বাংলাদেশও।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২২ অক্টোবর ২০১৮/ইয়াসিন

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC