ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ কার্তিক ১৪২৫, ১৩ নভেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

এভাবে টেস্ট খেলার কোনো অর্থ নেই : মাহমুদউল্লাহ

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-০৬ ৫:১৩:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-০৮ ৭:২০:৪৮ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক, সিলেট থেকে : শেষ চার টেস্টে অর্থ্যাৎ আট ইনিংসে বাংলাদেশের দলীয় রান দুই’শ পেরোয়নি। ঘরের মাঠে শেষ দুই টেস্টে এমন চিত্র বাংলাদেশের। নিজেদের চিরচেনা কন্ডিশনে এমন ব্যাটিং কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না ক্রিকেটপ্রেমিরা।

ধারাবাহিকভাবে বাজে ব্যাটিংয়ের ব্যাখ্যা কি? সাকিবের পরিবর্তে অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কাছে প্রশ্নটা বেশ কঠিন। পুরো দলের মতো তার ব্যাটেও নেই রান। তাই তার কাছে নেই ব্যাখ্যাও। সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৫১ রানে হারের পর ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনেও একই কথা বললেন অধিনায়ক। 

‘‘এমন ব্যাটিংয়ের ব্যাখ্যা দেয়া আসলে খুবই কঠিন। একটা জিনিস বলতে পারি, টেস্ট ক্রিকেট খেলতে যেই ধরণের ডিসিপ্লিন থাকা উচিত, আমার মনে হয় না আমরা সেই ডিসিপ্লিন দেখাতে পেরেছি। কারণ উইকেট বেশ ভালো ছিল, আজকেও উইকেট ভালো ছিল। হয়তো আজকেও দুই একটি বল টার্ন করেছে। এছাড়া আমার কাছে ভালোই মনে হয়েছে। ডিসিপ্লিনের ইস্যুটা আমাদের আরেকটু ভালো করে দেখতে হবে। নিজেদের ওপর বিশ্বাসটা আরেকটু বাড়াতে হবে। এই ইস্যুগুলো নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। কারণ বেশ কয়েকটি টেস্ট আমাদের ব্যাটিং খুব বাজে হচ্ছে। আমাদের এইসব নিয়ে ভাবতে হবে, একটা উপায় বের করতে হবে।’

প্রথম ইনিংসের ১৪৩ রানের পর আজ দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ করেছে ১৬৯ রান। ৩২১ রানের টার্গেটে গতকাল শেষ বিকেলে ২৬ রান তুলেছিল কোনো উইকেট না হারিয়ে। সেখানে আজ ১৪৩ রান যোগ করতেই হারিয়েছে ১০ উইকেট। এ যেন প্রথম ইনিংসের পুনরাবৃত্তি। তাহলে ভুল থেকে শিখছে কোথায়? আর কোথায় সেই লড়াই করার মানসিকতা। মিরাজ বাদে প্রত্যেকেই নিজেদের উইকেট বিলিয়ে এসেছেন। ১০ উইকেট তুলে জয় পেতে দারুণ কোনো বোলিং করতে হয়নি জিম্বাবুয়েকে।

তাহলে কি টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাকগিয়ারে চলছে বাংলাদেশ? মাহমুদউল্লাহ যে বিষয়টি সামনে আনলেন তা উদ্বেগজনক ও আশঙ্কাজনক,‘আপনাকে টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে গভীরভাবে ভাবতে হবে। আমরা শেষ আট ইনিংসে রান করতে পারিনি। বোলাররা যথেষ্ট ভালো বোলিং করেছে। প্রতিপক্ষকে অল্প রানে আটকে ফেলছে। ব্যাটসম্যানরা ভালো করছে না। ওয়ানডে ফরম্যাটে ভালো ছন্দে আছে। কিন্তু ওই ডিসিপ্লিনটা হয়তো আমরা টেস্ট ক্রিকেটে নিতে পারছি না। অবশ্যই এটা চিন্তার বিষয়। আমাদের এটা খুব ভালোভাবে চিন্তা করতে হবে। কারণ এভাবে ব্যাট করতে থাকলে মনে হয় না আমরা টেস্ট ক্রিকেটে কোনো অবস্থানে থাকব! এটা আমাদের ইমেজের ইস্যু। আমাদের অবশ্যই শক্তভাবে ফিরে আসতে হবে। অন্যথায় এভাবে টেস্ট খেলার কোনো অর্থ নেই।’

মাহমুদউল্লাহর কথায় স্পষ্ট টেস্টে উন্নতি করতে হলে ব্যাটসম্যানদের নিতে হবে দায়িত্ব। সিলেট টেস্ট জিতে এরই মধ্যে এগিয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে।  ১৭ বছর পর বিদেশের মাটিতে কোনো টেস্ট জিতল জিম্বাবুয়ে। বাকি আছে ঢাকা টেস্ট। সিরিজ বাঁচাতে টাইগারদের কঠিন চ্যালেঞ্জ নিতে হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।



রাইজিংবিডি/সিলেট/৬ নভেম্বর ২০১৮/ইয়াসিন/আমিনুল

Walton Laptop
 
     
Marcel