ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

জয় থেকে ৮ উইকেট দূরে বাংলাদেশ

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৪ ৯:৩২:০৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-১৪ ৫:০৮:২৬ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শেষ দিনের রোমাঞ্চের অপেক্ষায় বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে মিরপুর টেস্ট।

চতুর্থ দিন শেষে

জিম্বাবুয়ে ২য় ইনিংস: ৩০ ওভারে ৭৬/২ (লক্ষ্য ৪৪৩)।

শেষ বেলায় ২ উইকেট

বড় লক্ষ্য তাড়ায় শুরুটা ভালোই করেছিলেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও ব্রায়ান চারি। তবে শেষ বেলায় দুজনকেই ফিরিয়ে নিজেদের কাজটা এগিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ।

চতুর্থ দিন শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৭৬ রান। ব্রেন্ডন টেলর ৪ ও শন উইলিয়ামস ২ রানে অপরাজিত আছেন।

জয়ের জন্য শেষ দিনে ৩৬৭ রান করতে হবে জিম্বাবুয়েকে, বাংলাদেশের চাই ৮ উইকেট। চোট পাওয়া টেন্ডাই চাতারা প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামেননি। দ্বিতীয় ইনিংসেও তিনি ব্যাটিংয়ে না নামলে বাংলাদেশের ৭ উইকেট নিলেই জয় নিশ্চিত হবে।

চারিকে ফেরালেন তাইজুল

জিম্বাবুয়ে শিবিরে দ্বিতীয় আঘাতটা হেনেছেন তাইজুল ইসলাম। ফিরিয়ে দিয়েছেন ফিফটির কাছে থাকা ব্রায়ান চারিকে।

বাঁহাতি স্পিনারের বলে সুইপ করতে গিয়ে এলবিডব্লিউ হয়েছেন চারি। ফিরে যাওয়ার আগে নষ্ট করেছেন জিম্বাবুয়ের একটি রিভিউও।

চারি ৮১ বলে ৪৩ রান করে ফেরার সময় জিম্বাবুয়ের স্কোর ২ উইকেটে ৭০ রান। ২ রানের মধ্যে ফিরলেন দুই ওপেনার। উইকেটে ব্রেন্ডন টেলরের সঙ্গী শন উইলিয়ামস।

উদ্বোধনী জুটি ভাঙলেন মিরাজ

দুবার ক্যাচ ফেলে দেওয়া মেহেদী হাসান মিরাজ বোলিংয়ে এসে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দিয়েছেন। হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে ফিরিয়ে ভেঙেছেন ৬৮ রানের উদ্বোধনী জুটি।

অফ স্পিনারের বল পা বাড়িয়ে ডিফেন্ড করতে চেয়েছিলেন মাসাকাদজা। বল তার ব্যাটে লেগে ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে মুমিনুল হকের হাতে জমা পড়ে।

মাসাকাদজা ৬৮ বলে ২৫ রান করে ফেরেন। ৪৩ রানে ব্যাট করা ব্রায়ান চারির সঙ্গে নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে যোগ দিয়েছেন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান ব্রেন্ডন টেলর।

মাসাকাদজার ক্যাচ ছাড়লেন মিরাজ

রিভিউ নিয়ে বেঁচে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই ফিরতে পারতেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। পেসার খালেদ আহমেদের বলে গালিতে ক্যাচ তুলেছিলেন তিনি। কিন্তু ক্যাচটা হাতে জমাতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজ।৫ রানে জীবন পান মাসাকাদজা। শুরুর দিকে আরেক ওপেনার ব্রায়ান চারিরও ক্যাচ ছেড়েছিলেন মিরাজ। সেটা যদিও ছিল বেশ কঠিন।

দুর্ভাগ্যই অভিষিক্ত খালেদ আহমেদের জন্য। তার নামের পাশে থাকতে পারত তিন উইকেট। কিন্তু সেটা এখনো শূন্য! প্রথম ইনিংসে দুবার তার বলে ক্যাচ ছেড়েছিলেন ফিল্ডার।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন মাসাকাদজা

তাইজুল ইসলামের বলে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার বিরুদ্ধে কট বিহাইন্ডের আবেদনে আঙুল তুলে দিয়েছিলেন আম্পায়ার। তবে আল্ট্রাএজে দেখা যায়, বল মাসাকাদজার ব্যাট স্পর্শ করেনি। পাল্টায় সিদ্ধান্ত। ৩ রানে বেঁচে যান জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক।

জিম্বাবুয়ের সামনে বিশাল লক্ষ্য

চা বিরতির আগে শেষ বলে মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরির পরই দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। ৬ উইকেটে ২২৪ রানে ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসের ২১৮ রান-সহ বাংলাদেশের লিড ৪৪২। চতুর্থ ইনিংসে জিম্বাবুয়ের সামনে লক্ষ্য ৪৪৩ রান। বাকি পুরো চার সেশন।

আট বছর পর সেঞ্চুরি পাওয়া মাহমুদউল্লাহ ১২২ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় ১০১ রানে অপরাজিত ছিলেন। ৩৪ বলে ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন মেহেদী হাসান মিরাজ। জিম্বাবুয়ের কাইল জার্ভিস ও ডোনাল্ড তিরিপানো নেন ২টি করে উইকেট।

 



আট বছর পর মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরি

ক্যারিয়ারের প্রথম ৪০ টেস্টে সেঞ্চুরি মাত্র একটি। সেটাও ২০১০ সালে হ্যামিল্টনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। আরেকটি সেঞ্চুরির জন্য মাহমুদউল্লাহর দীর্ঘ অপেক্ষার পালা শেষ হলো অবশেষে। আট বছর পর পেলেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। ৯৯ থেকে মাভুতাকে কাভারে ঠেলে দুই রান নিয়ে তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। ১২২ বলে সেঞ্চুরি করতে ৪ হাঁকান ৪টি, ছক্কা ২টি।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন মিরাজ

সিকান্দার রাজার বলে মেহেদী হাসান মিরাজকে এলবিডব্লিউ দিয়েছিলেন আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা। তবে রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেছেন মিরাজ। তখন ১ রানে ব্যাট করছিলেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

পারলেন না আরিফুল

অভিষেক টেস্টের ব্যাটিং পারফরম্যান্স পরের ম্যাচে টেনে আনতে পারলেন না আরিফুল হক। প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও আউট হয়েছেন দুই অঙ্কে যাওয়ার আগেই। ডানহাতি ব্যাটসম্যান শন উইলিয়ামসকে সুইপ খেলতে গিয়ে বোল্ড হয়েছেন পায়ের পেছন দিয়ে।

আরিফুল ৫ রান করে ফেরার সময় বাংলাদেশের স্কোর ৬ উইকেটে ১৫১ রান। ফিফটি করে অপরাজিত মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

 



মিথুনের বিদায়ে ভাঙল বড় জুটি

পানি পানের বিরতির পর সিকান্দার রাজার প্রথম বলেই স্লগ সুইপে লং অন দিয়ে ছক্কা হাঁকান মোহাম্মদ মিথুন। পরের বলে অফ স্পিনারকে আবার উড়াতে চেয়েছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। এবার ঠিকমতো খেলতে পারেননি। বলে উঠে যায় আকাশে। দৌড়ে গিয়ে ক্যাচ নেন উইকেটকিপার।

১১০ বলে ৪ চার ও এক ছক্কায় ৬৭ রান করে ফেরেন মিথুন। তার বিদায়ে ভাঙে ১১৮ রানের পঞ্চম উইকেট জুটি। তখন বাংলাদেশের স্কোর ৫ উইকেটে ১৪৩ রান। ৫৩ রানে ব্যাট করা মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে যোগ দিয়েছেন আরিফুল হক।

সাড়ে তিনশ ছাড়াল বাংলাদেশের লিড

চতুর্থ দিন লাঞ্চ বিরতির পর প্রথম ঘণ্টায় সাড়ে তিনশ ছাড়িয়েছে বাংলাদেশের লিড। ৩৯ ওভার শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১৩৭ রান। মাহমুদউল্লাহ ৫৩ ও মোহাম্মদ মিথুন ৬১ রানে অপরাজিত আছেন। প্রথম ইনিংসের ২১৮ রান-সহ বাংলাদেশের লিড ৩৫৫।

মাহমুদউল্লাহর স্বস্তির ফিফটি

প্রথম ইনিংসে উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ। আউট হন ৩৬ রানে। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে দলের বিপদের সময় উইকেটে নেমে ফিফটি করেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

দশ ইনিংস পর টেস্টে ফিফটি পেলেন মাহমুদউল্লাহ। সব মিলিয়ে এটি তার ১৬তম ফিফটি। সবশেষ গত জানুয়ারিতে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পঞ্চাশ (৮৩*) ছুঁয়েছিলেন তিনি।

 



মাহমুদউল্লাহ-মিথুন জুটির একশ

পঞ্চম উইকেটে একশ রানের জুটি গড়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও মোহাম্মদ মিথুন। ১৪০ বলে ছুঁয়েছে জুটির সেঞ্চুরি। ২৫ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর জুটি বেঁধেছিলেন এই দুজন।

অভিষেকে মিথুনের ফিফটি

টেস্ট অভিষেকে মোহাম্মদ মিথুনের প্রথম ইনিংসটা ছিল ভুলে যাওয়ার মতো। শূন্য রানে আউট হয়েছিলেন বাজে শট খেলে। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ফিফটি করেছেন মিডল অর্ডার এই ব্যাটসম্যান। ৯১ বলে ফিফটি করতে ৪টি চার মারেন মিথুন।

তিনশ রানের লিড

লাঞ্চের পর দ্বিতীয় ওভারে কাইল জার্ভিসের প্রথম বলে সিঙ্গেল নিলেন মাহমুদউল্লাহ। আর এই এক রানে বাংলাদেশের লিড স্পর্শ করল তিনশ। প্রথম ইনিংসে ২১৮ রানের লিড নেওয়া বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে সংগ্রহ তখন ৪ উইকেটে ৮২ রান। মাহমুদউল্লাহ ২৭ ও মোহাম্মদ মিথুন ৩৫ রানে অপরাজিত আছেন।

দুঃস্বপ্নের শুরুর পর মাহমুদউল্লাহ-মিথুনের দৃঢ়তা

জিম্বাবুয়েকে ফলোঅন না করিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা কী দুঃস্বপ্নের মতোই না হয়েছিল বাংলাদেশের! ৯ থেকে ১০, ১ রানের মধ্যে ফিরে যান ইমরুল কায়েস, লিটন দাস ও মুমিনুল হক। মুশফিকুর রহিমও বেশিক্ষণ টেকেননি। ২৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদেই পড়েছিল বাংলাদেশ।

 



সেই ধ্বংসস্তূপ থেকে দলকে টেনে তুলেছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও অভিষিক্ত মোহাম্মদ মিথুন। লাঞ্চের আগে আর কোনো বিপদ হতে দেননি এই দুজন। তাদের পঞ্চম উইকেট জুটি পার করেছে পঞ্চাশ।

লাঞ্চ বিরতির সময় বাংলাদেশের স্কোর ৪ উইকেটে ৭৮ রান। মাহমুদউল্লাহ ২৪ ও মিথুন ৩৪ রানে অপরাজিত আছেন। লিড তিনশর কাছাকাছি, ২৯৬।

মাহমুদউল্লাহ-মিথুন জুটির পঞ্চাশ

দলীয় ২৫ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারানোর পর পঞ্চম উইকেটে ফিফটি রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও মোহাম্মদ মিথুন। ৭৩ বলে ছুঁয়েছে জুটির পঞ্চাশ। যেখানে মাহমুদউল্লাহর অবদান ২১, মিথুনের ২৬।

বিরতির পরই ফিরলেন মুশফিক

প্রথম ঘণ্টার পানি পানের বিরতির পর প্রথম বলেই আউট হয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ডোনাল্ড তিরিপানোর অফ স্টাম্পের বল পুল করতে চেয়েছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। কিন্তু ঠিকমতো টাইমিং হয়নি। ধরা পড়েন ডিপ স্কয়ার লেগে।

প্রথম ইনিংসের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান মুশফিক এবার করেছেন ১৯ বলে ৭ রান। তখন ২৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে বাংলাদেশ। লিড আড়াইশ-ই পেরোয়নি। মোহাম্মদ মিথুনের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

 



টিকলেন না মুমিনুলও

প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান মুমিনুল হক দ্বিতীয় ইনিংসে আউট হয়েছেন বাজে শট খেলে। পেসার ডোনাল্ড তিরিপানোর অফ স্টাম্পের বাইরের শর্ট বল তাড়া করতে গিয়ে উইকেটকিপার রেগিস চাকাভাকে ক্যাচ দিয়েছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

মুমিনুল ৫ বলে ১ রান করে ফেরার সময় বাংলাদেশের স্কোর ৩ উইকেটে ১০ রান। ৯ থেকে ১০, ১ রানের মধ্যেই পড়েছে ৩ উইকেট! অভিষিক্ত মোহাম্মদ মিথুনের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন প্রথম ইনিংসের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিম।

জার্ভিসের দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বোল্ড লিটন

কাইল জার্ভিসের এক বল আগেই ফিরে যান ইমরুল কায়েস। এই পেসারের এক বল পর দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে বোল্ড হয়ে ফেরেন আরেক ওপেনার লিটন দাসও। ডানহাতি পেসারকে ডিফেন্ড করতে চেয়েছিলেন লিটন। বল মিডল স্টাম্পে পড়ে পিচ করে আঘাত করে অফ স্টাম্পে।

প্রথম ইনিংসে ৯ রান করা লিটন এবার করেছেন ৬। তখন বাংলাদেশের স্কোর ২ উইকেটে ১০ রান। মুমিনুল হকের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মোহাম্মদ মিথুন।

আবার ব্যর্থ ইমরুল

প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যর্থ হয়েছেন ইমরুল কায়েস। পেসার কাইল জার্ভিসের অফ স্টাম্পের বাইরের শট বল উড়াতে গিয়ে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

প্রথম ইনিংসে ১৬ বলে শূন্য রানে আউট হওয়া ইমরুল এবার করেছেন ১২ বলে ৩। বাংলাদেশের স্কোর তখন ১ উইকেটে ৯ রান। লিটন দাসের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মুমিনুল হক।

 



ফলোঅন করাল না বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংসে ২১৮ রানের লিড পাওয়া বাংলাদেশ জিম্বাবুয়েকে ফলোঅন করাবে কি না, তা নিয়ে জল্পনা ছিল তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার পর থেকেই। আজ চতুর্থ দিনের খেলা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ আগে জানা গেল বাংলাদেশের সিদ্ধান্ত।

শেষ পর্যন্ত জিম্বাবুয়েকে ফলোঅন না করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাহমুদউল্লাহর দল। প্রথমবার প্রতিপক্ষকে ফলোঅন করানোর অভিজ্ঞতাও তাই হলো না বাংলাদেশের। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু হয়েছে সকাল সাড়ে নয়টায়।

টেস্টের নাটাই বাংলাদেশের হাতে

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের নাটাই এখন বাংলাদেশের হাতেই। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৫২২ রানের জবাবে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার আগে জিম্বাবুয়ের ইনিংস শেষ হয়েছে ৩০৪ রানে।

বোলিংয়ের সময় চোট পাওয়া টেন্ডাই চাতারা ব্যাটিংয়ে নামেননি। তাতে একপ্রকার সুবিধাই হয়েছে বাংলাদেশের। ম্যাচ জিতে সমতায় সিরিজ শেষ করার জন্য ২০ নয়, ১৮ উইকেট নিলেই হবে স্বাগতিকদের। যার অর্ধেক কাজ এরই মধ্যে হয়ে গেছে।

তৃতীয় দিন শেষে

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৫২২/৭ ডিক্লে. (মুশফিক ২১৯*, মুমিনুল ১৬১, মিরাজ ৬৮*, মাহমুদউল্লাহ ৩৬; জার্ভিস ৫/৭১)

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস: ৩০৪ (টেলর ১১০, মুর ৮৩, চারি ৫৩; তাইজুল ৫/১০৭, মিরাজ ৩/৬১, আরিফুল ১/১০)

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ নভেম্বর ২০১৮/পরাগ  

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC