ঢাকা, সোমবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

ঘরের মাঠে জার্মানির জয়

আমিনুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৬ ৯:৫০:১৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-১৬ ৯:৫০:১৩ এএম

ক্রীড়া ডেস্ক : আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে বৃহস্পতিবার রাতে মুখোমুখি হয় জার্মানি ও রাশিয়া। ঘরের মাঠে রাশিয়াকে সহজেই ৩-০ গোলে হারিয়েছে জার্মানরা। সহজ জয় বলার কারণ, তিনটি গোলই হয়েছে প্রথমার্ধে। তাও ম্যাচের ৮, ২৫ ও ৪০ মিনিটে। গোল করেছেন লিরয় সানে, নিকলাস সুয়েলে ও সার্জি জিনাব্রেই।

বৃহস্পতিবার লেইপজিগের রেড বুল অ্যারিনায় ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই এগিয়ে যায় জার্মানি। এ সময় জিনাব্রেই বল বাড়িয়ে দেন ম্যানচেস্টার সিটির উইঙ্গার লিরয় সানেকে। বল পেয়ে সানে জার্মানির হয়ে তার প্রথম আন্তর্জাতিক গোলটি করেন। তাতে জার্মানি এগিয়ে যায় ১-০ ব্যবধানে। বায়ার্ন মিউনিখের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় সুয়েলে ২৫ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। কর্নার থেকে বল পেয়ে আনমার্ক নিকলাস সুয়েলে গোল করতে ভুল করেননি। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে এটি ছিল তারও প্রথম গোল।

অবশ্য ইনজুরির কারণে ২০১৮ বিশ্বকাপের আয়োজক রাশিয়া তাদের বেশ কিছু খেলোয়াড়কে দলে পায়নি। সে কারণে তারা জার্মানির তরুণ এই দলটির বিপক্ষে সুবিধা করতে পারেনি। ম্যাচের ৪০ মিনিটে সার্জি জিনাব্রেই গোল করে ব্যবধান ৩-০ করেন। এই ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় জার্মানরা।দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য আর কোনো গোলের দেখা পায়নি জোয়াকিম লো এর শিষ্যরা।

ম্যাচশেষে লো বলেন, ‘প্রথমার্ধ আমরা আসলেই ভালো খেলেছি। বলের দখল রেখেছি, প্রভাব বিস্তার করে খেলেছি। খেলায় আমাদের অনেক স্ট্রেন্থ ছিল। প্রথম দুটি গোল এসেছে দারুণ কম্বিনেশনের ফলস্বরূপ। দ্বিতীয়ার্ধে আসলে অনেকগুলো বদলি খেলোয়াড়ের কারণে স্বাভাবিক খেলাটা সম্ভব হয়নি। ম্যাচে আমাদের গতি ছিল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিশ্বকাপে আমাদের এই গতি ছিল না।’

রাশিয়ার বিপক্ষে লো তরুণ একটি দল খেলিয়েছে। যেখানে মাত্র দুজন খেলোয়াড় ছিল যাদের বয়স ২৫ এর বেশি। তিনি ম্যাটস হামেলস ও থমাস মুলারকে বেঞ্চে রেখেছিলেন। জেরোমে বোয়েটাংকে দলেই ডাকেননি। আর টনি ক্রুসকে দিয়েছিলেন বিশ্রাম।
 


জার্মানি অবশ্য উয়েফা ন্যাশন্স লিগে সুবিধা করতে পারেনি। তিন ম্যাচ থেকে মাত্র ১ পয়েন্ট সংগ্রহ করে রেলিগেশন শঙ্কায় আছে। লিগের প্রথম ম্যাচে তারা ফ্রান্সের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে। পরের ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের কাছে হেরে যায় ৩-০ ব্যবধানে। ফিরতি দেখায় ফ্রান্সের কাছে হেরে যায় ২-১ ব্যবধানে। ২০ নভেম্বর গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে তারা নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে।

তার আগে ১৭ নভেম্বর নেদারল্যান্ডস মুখোমুখি হবে ফ্রান্সের। এই ম্যাচে নেদারল্যান্ডস জয় পেলে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাবে জার্মানির। কারণ তিন ম্যাচ থেকে জার্মানির সংগ্রহ মাত্র ১ পয়েন্ট। আর নেদারল্যান্ডসের সংগ্রহ ৩। আর ফ্রান্সের ৭। তবে ফ্রান্সের কাছে নেদারল্যান্ডস হেরে গেলে এবং শেষ ম্যাচে জার্মানি তাদের হারিয়ে দিতে পারলে টিকে থাকবে জোয়াকিম লো’র শিষ্যরা।

অবশ্য এই বছর তারা রেকর্ড ছয় ম্যাচে হারের লজ্জায় ডুবেছে। জার্মানির ফুটবল ইতিহাসে এবারই প্রথম তারা এক বছর ছয়-ছয়বার পরাজয় বরণ করল।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ নভেম্বর ২০১৮/আমিনুল

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC