ঢাকা, শনিবার, ৯ চৈত্র ১৪২৫, ২৩ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

২৫ শটেও লিঁওর মাঠে গোল পেল না বার্সা

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-২০ ১০:৪৭:৫২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-২০ ১:৫৭:৫৬ পিএম
বার্সাকে কাঙ্ক্ষিত গোল উপহার দিতে পারেননি লিওনেল মেসি

ক্রীড়া ডেস্ক : লা লিগায় সবশেষ অ্যাওয়ে ম্যাচে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের মাঠে বার্সেলোনা গোল করতে পারেনি ঠিক, তবে লিঁওর মাঠে কোনো গোল পাবে না তা কে ভেবেছিল? বাস্তবতা হলো, গোলমুখে ২৫টি শট নিয়েও এর একটিও গোলে পরিণত করতে পারেননি বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা! ফরাসি ক্লাবটির মাঠে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে গোলশূন্য ড্র করেছে লা লিগার চ্যাম্পিয়নরা।

এই ম্যাচের আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে শুরুর একাদশে নেমে শেষ ৯০ ম্যাচে ৯০ গোল করেছিলেন মেসি। আর্জেন্টাইন তারকা মঙ্গলবার রাতে লিঁওর মাঠে ঠিক সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেননি। মেসি একাই নিয়েছেন ৯টি শট, যা পুরো লিঁও দলের শটের চেয়ে চারটি বেশি। এই মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগে কোনো ম্যাচে গোল না পেয়ে যৌথভাবে সর্বোচ্চ শটের নজির এটি। গত নভেম্বরে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে লুইস সুয়ারেজ ও ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরও মেসির মতো তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছিল।

চ্যাম্পিয়নস লিগে নকআউট পর্বের শেষ ছয়টি অ্যাওয়ে ম্যাচেই জয়হীন থাকল বার্সেলোনা (২ ড্র, ৪ হার)। এর মধ্যে পাঁচটিতেই গোল করতে ব্যর্থ হয়েছে কাতালানরা। আর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শেষ পাঁচ ম্যাচের চারটিই তারা ড্র করল। টানা তিন ড্রয়ের পর গত শনিবার লা লিগায় রিয়াল ভায়োদোলিদের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছিল আর্নেস্তো ভালভার্দের দল।


লিঁওর মাঠে যেভাবে শুরু করেছিল, প্রথম চার মিনিটে বার্সার অন্তত দুই গোল করা উচিত ছিল। প্রথম মিনিটে উসমান ডেম্বেলের শট যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে। তৃতীয় মিনিটে মেসির ফ্রি-কিকও লক্ষ্যে থাকেনি, উড়ে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে।

সুযোগ পেতেই পাল্টা-আক্রমণে বার্সার রক্ষণে ভীতি ছড়িয়েছে লিঁও। পঞ্চম মিনিটে হোসেমের শট ঠেকিয়ে দেন মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন। নবম মিনিটে আবারো বার্সার ত্রাতা জার্মান এই গোলরক্ষক। ফরাসি মিডফিল্ডার তেয়ায়ির গোলার মতো শট করেছিলেন, ঝাঁপিয়ে পড়া স্টেগেনের গ্লাভসে ছুঁয়ে বল ক্রসবারে লেগে ফেরে।

১৭ মিনিটে ভালো একটি সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু জরদি আলবার পাস থেকে মেসির শট চলে যায় পোস্টের ওপর দিয়ে। ১৯ মিনিটে ডেম্বেলেও গোলরক্ষকের গায়ে মেরে সুযোগ নষ্ট করেন। প্রথমার্ধের একদম শেষ দিকে সার্জিও বুসকেটসের জোরালো শট ঠেকিয়ে দেন লিঁওর গোলরক্ষক।
 


দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল লিঁও, কিন্তু বক্সের বাইরে থেকে ডিপাইয়ের শট চলে যায় পোস্ট ঘেঁষে। এরপর স্বাগতিকদের ওপর চেয়ে বসে বার্সা। ৬৬ মিনিটে মেসির শট ফিরিয়ে দেন লিঁও গোলরক্ষক।

৭০ মিনিটে ১৮ গজ দূর থেকে নেওয়া শট পোস্টে রাখতে পারেননি পুরো ম্যাচে নিজের ছায়া হয়ে থাকা সুয়ারেজ। তিন মিনিট পর গোলমুখে আলবার বাড়ানো ক্রসে একটুর জন্য পা ছোঁয়াতে পারেননি এই উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার ।

শেষ দিকে বক্সের কাছে আরেকটি ফ্রি-কিক পেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি।বার্সারও শেষ পর্যন্ত তাই কোনো গোল পাওয়া হয়নি। আগামী ১৩ মার্চ ন্যু ক্যাম্পে ফিরতি লেগে কোয়ার্টার ফাইনালের ওঠার লড়াইয়ে নামবেন মেসি-সুয়ারেজরা।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/পরাগ

Walton Laptop
 
     
Walton AC