ঢাকা, শনিবার, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

শুক্রবার ফাইনালে বাংলাদেশের লাওস পরীক্ষা

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০২ ৮:৫০:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-০২ ৮:৫৬:০৫ পিএম
শুক্রবার ফাইনালে বাংলাদেশের লাওস পরীক্ষা
Voice Control HD Smart LED

ক্রীড়া প্রতিবেদক : যে মাঠের ঘাস মারিয়ে স্বপ্না ও কৃষ্ণা রানীরা বড় হয়েছেন, সেই মাঠেই শুক্রবার তাদের লাওস পরীক্ষা। লাওসকে হারাতে পারলেই বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ নারী আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপের শিরোপা জিতবে বাংলাদেশ।

তহুরা, মার্জিয়ারা গোল করলেই গগণ বিদারী চিৎকার হবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। শিউলি, আঁখি, শামসুন্নাহার, নার্গিসরা রক্ষণভাগে ভালো করলে এবং রুপনা চাকমা গোল হজম না করলে উৎসব হবে গ্যালারিতে। রাতের অন্ধকারে আতশবাঁজি পোড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে শিরোপা নিয়ে উদযাপনে মাতবে গোটা দেশ। গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা কি পারবেন প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জিততে? উত্তর জানা যাবে শুক্রবারই।

শিরোপা জিততে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ কোচ ছোটন, ‘আমাদের লক্ষ্য ছিল ফাইনাল খেলা। মেয়েদেরকে ধন্যবাদ দিতে চাই এ জন্য যে, সেটি তারা খুব ভালোভাবে করতে পেরেছে। প্রথমবার ঘরের মাঠে এ ধরনের কোনো বড় আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে মৌসুমীরা শিরোপা জিতে টুর্নামেন্টটা স্মরণীয় করে রাখবে বলে আমার বিশ্বাস। আমরা মনে করি এখান থেকেই মেয়েদের ফুটবল আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবে।’



অপরাজিত দল হিসেবে দুই দলই উঠেছে ফাইনালে। তবে গোল করার যে অভ্যাস তাতে এগিয়ে লাওস। তিন ম্যাচে তারা গোল করেছে ১৮টি। অন্যদিকে বাংলাদেশ সেমিফাইনাল পর্যন্ত গোল করেছে ৭টি। সফরকারী দলের ফরোয়ার্ড পি কেওতা একাই করেছেন ৮ গোল। তাকে নিয়েই বাংলাদেশের যত ‘ভয়’। কোচের কথায় তেমনটাই মনে হলো, ‘ওদের আক্রমণভাগ খুবই শক্তিশালী। বিশেষ করে পি। আশা করছি আমাদের ডিফেন্ডাররা তাল মিলিয়ে খেলতে সক্ষম হবে।’

কোচের পাশেই বসা স্বাগতিক দলের অধিনায়ক মিশরাত জাহান মৌসুমি শিরোপা জিততে আত্মবিশ্বাসী, ‘আমি স্যারের সঙ্গে একমত। ট্রফিটা আমরা নিজেদের ঘরে রেখে দিতে চাই। টুর্নামেন্ট স্মরণীয় করে রাখতে আমরা নিজেদের শতভাগ দিয়ে খেলব।’

ফাইনালে দলে ফিরছেন কৃষ্ণা রানী সরকার। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ২ গোল করেছেন এ ফরোয়ার্ড। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মেয়েদের বড় চাপ দিচ্ছেন না কোচ। আগের ম্যাচগুলোর মতো করেই তাদের মাঠে খেলার পরামর্শ তার, ‘আমাদের মেয়েরা এ ধরনের ম্যাচ আগেও অনেক খেলেছে। আশা করছি ফাইনালেও মানিয়ে নিতে পারবে। আমাদের মেয়েরা আগের ম্যাচগুলোতে একটা দল হয়ে খেলেছে। আমরা আমাদের স্বাভাবিক খেলার মধ্যেই থাকব। তবে কিছু নির্দিষ্ট পরিকল্পনা তো থাকবেই।’



দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লাওস অবশ্য ছেড়ে কথা বলবে না। দলের কোচ ভংমিসি সুবাখাম পরিষ্কার করে জানিয়েছেন, শিরোপাই তাদের একমাত্র লক্ষ্য, ‘আমরা ফাইনাল খেলতে মুখিয়ে আছি। স্বাগতিক দলের বিপক্ষে ফাইনাল সব সময়ই কঠিন। কিন্তু আমরা আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে চাই। সবার সম্ভাবনা আছে। তারাও ভালো দল। আমার মেয়েরাও ভালো। একটা কঠিন ম্যাচ হবে। তবে দলের ফুটবলাররা জয় পেতে আত্মবিশ্বাসী।’

চেনা মাঠ, স্বাগতিক দর্শক; সবকিছুই বাংলাদেশের পক্ষে।  নিজেদের মঞ্চে শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পরার অপক্ষোয় বাংলাদেশের মেয়েরা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হতে যাওয়া ম্যাচটি নিজেদের মতো করেই রাঙাতে চায় বাংলাদেশ।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২ মে ২০১৯/ইয়াসিন/পরাগ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge