ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪২৬, ২২ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইংল্যান্ডে অতীত সাফল্যে বিশ্বকাপে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৪-২৬ ৮:৫৯:৪৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৪-২৬ ৯:৩৩:১৮ পিএম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আনুষ্ঠানিকভাবে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল বৃহস্পতিবার ২০১৯ বিশ্বকাপের সূচি এবং ফরম্যাট ঘোষণা করেছে।

ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে ২০১৯ বিশ্বকাপ হবে ১৯৯২ সালের বিশ্বকাপের ফরম্যাটে। যেখানে প্রতিটি দল অংশগ্রহণকারী সবগুলো দলের বিপক্ষে খেলবে। দশ দলের বিশ্বকাপ শুরু হবে ৩০ মে, পর্দা নামবে ১৪ জুলাই।

পঞ্চমবারের মতো বিশ্বকাপের আয়োজক ইংল্যান্ড। এর আগে ১৯৭৫, ১৯৭৯, ১৯৮৩ এবং ১৯৯৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের আয়োজক ছিল ইংল্যান্ড।  ইংল্যান্ড ১৯৯৯ সালে শেষ বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল। বাংলাদেশ চমকে দিয়েছিল সেই বিশ্বকাপে। পাকিস্তানকে হারিয়েছিল নর্দাম্পটনে। সেই ম্যাচ জয়ের পর বাংলাদেশ পেয়েছিল টেস্ট স্ট্যাটাস।

বিশ্বকাপের নতুন ফরম্যাট নিয়ে উল্লাসিত বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। তার মতে আগামী বিশ্বকাপ হবে বেশ প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ। মাশরাফি বলেছেন, ‘আমার খেলা সবথেকে বেশি প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ বিশ্বকাপ হবে এটা। ফরম্যাটের কারণেই এই প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে। আমার ধারণা এই প্রথমবার দশটি দলই নিজেদেরকে শেষ চারে দেখার জন্য আপ্রাণ লড়াই করবে। এবং আমি বিশ্বাস করি নির্দিষ্ট দিনে যে কেউ যে কাউকে হারিয়ে দিতে পারবে।’

ইংল্যান্ডে রয়েছে বাংলাদেশের একাধিক সাফল্য। সেসব সাফল্য বাংলাদেশকে করছে আত্মবিশ্বাসী। মাশরাফি বলেছেন, ‘ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে আমাদের দারুণ কিছু মুহূর্ত রয়েছে। বাংলাদেশের ওয়ানডে ইতিহাসের ঐতিহাসিক কিছু মুহূর্ত রয়েছে সেখানে। আমরা পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ডকে সেখানে হারিয়েছিলাম। আমরা শেষবার এবং প্রথমবারের মতো আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে খেলেছি। এটা আমাদেরকে উৎসাহ এবং অনুপ্রেরণা দিবে।’

ইংল্যান্ডের কন্ডিশন এখন আর অচেনা নয় বাংলাদেশের কাছে। মাশরাফির কন্ঠেও একই সুর, ‘আমাদের কন্ডিশন সম্পর্কে ভালো ধারণা রয়েছে। এছাড়া প্রচুর বাংলাদেশি কমিউনিটি সেখানে রয়েছে যারা আমাদেরকে সাপোর্ট এবং অনুপ্রেরণা জোগায় এবং আমরা সেখানে খেলে সব সময়ই স্বস্তি পাই। ভালো সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার কারণে আমরা সঠিক প্রস্তুতিও নিতে পারি। আমি আত্মবিশ্বাসী আমরা আমাদের প্রতিপক্ষকে বিশ্বকাপে ভালো চ্যালেঞ্জ জানাতে পারব।’

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ খেলেছে ৩২ ম্যাচ। এর মধ্যে জিতেছে ১১ ম্যাচে, হেরেছে ২০ ম্যাচে। সফলতার হার ৩৫.৪৮।    

২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মিশন শুরু হবে ২ জুন, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। একই মাঠে ৫ জুন খেলবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। কিউইদের বিপক্ষে ম্যাচটি হবে দিবা-রাত্রির। এরপর ৮ জুন কার্ডিফে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে, ১১ জুন ব্রিস্টলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে, ১৭ জুন টওটনে উন্ডিজের বিপক্ষে, ২০ জুন নটিংহ্যামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে, হ্যাম্পাশায়ারে ২৪ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলবে। বাংলাদেশের শেষ দুই ম্যাচ ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। ভারতের বিপক্ষে ২ জুলাই খেলবে এজবাস্টনে এবং পাকিস্তানের বিপক্ষে লর্ডসে দিবা-রাত্রির ম্যাচ খেলবে ৫ ‍জুলাই।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ এপ্রিল ২০১৮/ইয়াসিন/আমিনুল

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge