ঢাকা     বুধবার   ০৫ অক্টোবর ২০২২ ||  আশ্বিন ২০ ১৪২৯ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

অলিম্পয়াডে ফুটবল খেললো রোবট

বগুড়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:১৯, ৬ আগস্ট ২০২২   আপডেট: ১৯:১১, ৬ আগস্ট ২০২২

বগুড়ায় প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো রোবটিকস অলিম্পয়াড ২০২২। শনিবার (৬ আগস্ট) সকালে বগুড়ার জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমীতে (নেকটার) এর উদ্বোধন করা হয়। অলিম্পিয়াডে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়সহ ৪৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩৩১ জন প্রতিযোগী তাদের রোবট নিয়ে হাজির হয়। 

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের গুরুত্ব জনগণের মাঝে তুলে ধরতে অলিম্পিয়াডে রোবো সকার, লাইন ফলোয়িং রোবোটিকস কম্পিটিশন, প্রজেক্ট শোকেজিং এবং পোস্টার প্রেজেন্টেশন— এই চার ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতা হয়। প্রতিযোগিতা দেখতে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় লোকজন ভিড় করে।  

প্রতিযোগিতায় ১০৬টি টিমে বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যাল, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশসহ ৪৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট ৩৩১ জন প্রতিযোগী অংশ নেয়। 

নেকটার বগুড়ার পরিচালক (উপ সচিব) শাফিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মহসিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ। 

অনুষ্ঠান ঘুরে দেখা গেছে, অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণকারীরা বিভিন্ন ধরনের রোবট নিয়ে এসেছেন এবং তাদের রোবট কী কাজ করতে পারে তা জানাচ্ছেন দর্শনার্থীদের। দর্শনার্থীরাও তা আগ্রহ সহকারে ঘুরে ঘুরে দেখছেন এবং শুনছেন।

বগুড়া আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ইয়াসির জানান, তিনি তার ভাইয়ের তৈরি রোবট নিয়ে বসে আছেন। রোবটটির নাম ‘বঙ্গ দি মেডিকেল অ্যাসিসটেন্ট’। এই রোবটটি দিয়ে মানুষকে প্রাথমিক চিকিৎসা সেটা দেওয়া যাবে। এই রোবট দিয়ে জ্বর, স্বর্দি এবং শরীরের অক্সিজেন মাপার ব্যবস্থা করা আছে। রোগীর বয়স অনুযায়ী প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া যাবে।

ঢাকার নটরডেম কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকে পড়ুয়া শিক্ষার্থী শরীফ আদিত্য রুপম জানান, তার রোবটের নাম ‘রিবানী’। এটাকে তিনি বানিয়েছেন বিভিন্ন অফিস এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের রিসিপশনিস্ট হিসেবে। এ ছাড়া পোশাক কারখানায় অ্যাটেনডেন্স হিসেবে কাজ করবে এই রোবট। 

বগুড়ার টিএমএসএস ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ থেকে আসা মইনুল হাসান সাদিক জানান, তিনি তৈরি করেছেন ‘স্মার্ট হেলমেট টেকনোলজি’। এটার কাজ হলো সড়ক দুর্ঘটনার আগে চালককে সতর্ক করা। মোটরসাইকেল চালকরা যখন রাস্তায় গাড়ি চালাবে, তখন পেছন বা সামনে থেকে যদি কোনো বেপরোয়া গতির গাড়ি আসতে থাকে বা দুর্ঘটনা ঘটবে এমন আশংকা থাকে, তখন এই হেলমেট চালককে বলে দেবে ‘আপনি বিপদে পড়তে যাচ্ছেন’। চালক যখন আগেই জানতে পারবে, তখন তিনি তো অবশ্যই সেইফ জোনে যেতে পারবে।

সাতক্ষীরা পাবলিক স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী ইয়াসির আরাফাতের মা শরীফা সুলতানা মিরা জানান, তার ছেলে অন্ধ ব্যক্তিদের জন্য একটা রোবট তৈরি করেছে। কোনো অন্ধ ব্যক্তি এই রোবট নিয়ে অনায়াসে চলাচল করতে পারবে। কারণ চলাচলের সময় যদি কোনো বাধা আসে, এই রোবট তখন সংকেত দেবে। লাঠিতে ভাইব্রেশন করবে। 

বগুড়া সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জেএম রউফ বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য উৎসাহের বিষয়। আগামী দিনে প্রতিযোগিতামূলক যে বিশ্ব তৈরি হবে, সেখানে বাংলাদেশকে প্রতিষ্ঠিত করতে যে কর্মযজ্ঞ, সেটাতে আজকের তরুণরা অংশ নিচ্ছে। এ সকল তরুণদের যদি বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে আর্থিক সহায়তা করে, তাদের উৎসাহ যোগায় তাহলে এরা অনেক ভালো কাজ করবে।’  

জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমী (নেকটার) বগুড়ার পরিচালক শাফিউল ইসলাম (উপ সচিব) জানান, জনগণের মাঝে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের গুরুত্ব তুলে ধরা এবং নতুন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে এই আয়োজন। কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহারে চিকিৎসা, যোগাযোগ, প্রকাশনায় শুধু নয়; একদিন মানুষ ঘরে বসে শুধু চোখে চশমা পরে চিরতরে হারিয়ে যাওয়া আপনজনের সঙ্গে নিত্যদিনের মতো আলাপচারিতা করতে পারবে। ইচ্ছেমতো আনন্দ বিনোদন উপভোগ করতে পারবে। সেদিন আর বেশিদিন দূরে নয়। সেই লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে।

এনাম/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়