ঢাকা     শনিবার   ০১ অক্টোবর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৯ ||  ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

গোপালগঞ্জের ফিলিং স্টেশ‌নগুলোতে তেলের জন্য হাহাকার

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:০৩, ৬ আগস্ট ২০২২   আপডেট: ১০:০৬, ৬ আগস্ট ২০২২
গোপালগঞ্জের ফিলিং স্টেশ‌নগুলোতে তেলের জন্য হাহাকার

হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে গোপালগঞ্জে ফিলিং স্টেশ‌নগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে ফিলিং স্টেশ‌নগুলোতে তেল নিতে আসা মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন যানবাহনের ব্যাপক চাপ সৃ‌ষ্টি হয়েছে। 

অধিক মুনাফার আশায় মুহূর্তেই তেলশূন্য ঘোষণা করে ফিলিং স্টেশনগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ যানবাহন মালিকদের।

রাতে শহরের বিভিন্ন ফিলিং স্টেশন ঘুরে দেখা গেছে, রাত ১২ থেকে নতুন দাম কার্যকর হওয়ার কথা থাকলেও দাম বৃদ্ধির ঘোষণার সাথে সাথে তেল কেনার জন্য ফিলিং স্টেশনগুলোতে ভীড় বাড়তে থাকে। তেল না থাকায় অনেককেই পায়ে হেঁটে যানবাহন ঠেলে ফিলিং স্টেশনে আসতে দেখা গেছে। কিন্তু ফিলিং স্টেশনগুলো মালিকরা বন্ধ করে চলে যায়। এসময় ফিলিং স্টেশনগুলোর সকল বাতি বন্ধ করে দেওয়ায় অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। এমনকি কয়েকটি পাম্পে তেল নেই এমন সাইনবোর্ডও ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে এবং ফিলিং স্টেশনগুলোর মালিক ও কর্মচারীদের ডেকেও তেল পায়নি তারা। এতে ক্ষোভ ও উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে যানবাহন মালিকদের মধ্যে।

জেলা শহরের বাসিন্দা নাহিদ বনি বলেন, আমি ঠিকাদারী কাজ করি। এজন্য সব সময় আমাকে মোটরসাইকেল চালাতে হয়। যে কারণে আমার পেট্রোল বা অকটেন প্রয়োজন হয়। কিন্তু তেল নিতে পাম্পে এসে দেখি দাম বাড়ার কারণে সময়ের আগেই পাম্প মালিকরা তেল বিক্রি না করে পাম্প বন্ধ করে দিয়েছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকেও তেল পাইনি।

সুব্রত বিশ্বাস বলেন, আমাকে বিভিন্ন কাজের জন্য মোটর সাইকেল চালাতে হয়। দাম বাড়বে এমন খবরে রাত ১০টার দিকে তেল নিতে এসেছিলাম। কিন্তু তেল পাইনি।

জাবেরুল ইসলাম বলেন, রাতে গাড়িতে তেল নিতে পাম্পে যাই। গিয়ে দেখি পাম্প বন্ধ। ভিতরে আলো জ্বালানো থাকায় ডাকাডাকি করি। প্রথমে তারা উত্তর না দিলেও পরে কর্মচারীরা জানায় পাম্প বন্ধ তেল বিক্রি হবে না। অনেক অনুরোধ করার পরেও তারা তেল বিক্রি করেনি। ফলে মোটর সাইকেল ঠেলে নিয়ে বাড়িতে যেতে হয়েছে।

তবে, ফিলিং স্টেশনগুলো বন্ধ থাকায় মালিক, ম্যানেজার বা কর্মচারীদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। 

প্রসঙ্গত, জ্বালানি তেলের নতুন দাম ডিজেল ও কেরোসিন ১১৪ টাকা, পেট্রোল ১৩০ টাকা ও অকটেন ১৩৫ টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে কার্যকর হওয়ার কথা খাকলেও রাত ১০টা থেকে ফিলিং স্টেশনগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। 

বাদল/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়