ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ২৫ সেন্টিমিটার উপরে প্রবাহিত

জেলা সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৮ ১০:৫৭:৫৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-১৯ ৮:৫৩:৫৯ এএম

উজান থেনে ধেয়ে আসা পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টিপাতের কারণে তিস্তা নদীর পানি নীলফামারীর ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ২৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বুধবার ভোর ৬টা হতে পানি ৫২.৮৫ (বিপদসীমা ৫২.৬০) উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। হু-হু করে পানি বৃদ্ধির কারণে তিস্তা অববাহিকার বসতবাড়ি ও আবাদী জমি তলিয়ে গেছে। ফলে পরিবারগুলো বসতঘর ছেড়ে উঁচুস্থানে আশ্রয় নিয়েছে।

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের ঝাড়শিঙ্গেশ্বর, টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের দোলাপাড়া, তিস্তাবাজার, চরখড়িবাড়ি, পূর্বখড়িবাড়ি, খালিশাচাঁপানী ইউনিয়নের বানপাড়া ছোটখাতা ও ঝুনাগাছচাঁপানী ইউনিয়নের সোনাখুলী, ফরেস্টের চর গ্রামগুলোর বসতঘরে নদীর পানি প্রবেশ করেছে। বসতঘরগুলোতে হাঁটুসমান পানি প্রবাহিত হচ্ছে। অনেকে তিস্তা নদীর ডানতীর বাঁধে আশ্রয় নিয়েছেন বলে এলাকাবাসীরা জানিয়েছে। এলাকায় পাঁচ হাজার পরিবার তিস্তার হঠাৎ ঢলের পানির বন্যায় আক্রান্ত হয়েছে।

পূর্বছাতনাই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খান রাইজিংবিডিকে জানান, ঝাড়শিঙ্গেশ্বর গ্রামের পাঁচশতাধিক পরিবারের বসতঘরে নদীর পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

টেপাখড়িবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মইনুল হক রাইজিংবিডিকে বলেন, তার এলাকার দোলাপাড়া, তিস্তাবাজার, চরখড়িবাড়ি, পূর্বখড়িবাড়ি গ্রামগুলোর বাড়িঘর হাটু সমান পানি প্রবাহিত হচ্ছে। ছোটখাতা ও বানপাড়া গ্রামের মানুষজন ডানতীর বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি পরিমাপক উপ-সহকারী প্রকৌশলী আমিনুর রশিদ পানি বৃদ্ধির বিষয়টি নিশ্চিত করে রাইজিংবিডিকে বলেন, উজানের ঢল সামাল দিতে খুলে রাখা হয়েছে তিস্তা ব্যারাজের ৪৪টি জলকপাট। এলাকা থেকে পরিবারগুলোকে উঁচুস্থান ও আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়া হয়েছে।


নীলফামারী/ইয়াছিন মোহাম্মদ সিথুন/বুলাকী

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন