ঢাকা, রবিবার, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৭ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দাবি না মানলে সমাপনী পরীক্ষা বর্জনের আল্টিমেটাম

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-২৩ ১১:২৬:০৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-২৩ ৬:১৭:৫১ পিএম

ছুটির দিনে কর্মস্থলে উপস্থিত থাকার নির্দেশ উপেক্ষা করে মহাসমাবেশ করেছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ মহাসমাবেশ করে তারা।

সমাবেশ থেকে দাবি আদায়ে আগামী ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত সরকারকে সময়সীমা বেধে দিয়েছে শিক্ষকরা। অন্যথায় ক্লাস পরীক্ষাসহ সমাপনী পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন তারা।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ ছামছুদ্দীন মাসুদ রাইজিংবিডিকে বলেন, প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড দিতে আমরা দীর্ঘদিন থেকে দাবি করে আসছি। কিন্তু প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানদের ১০ম গ্রেড দেয়া হলেও সহকারীদের ১২তম গ্রেড দিতে বলা হয়েছে। এটিও সরকারের পক্ষ থেকে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। এসব বিষয়ের প্রতিবাদ জানাতে আমার বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নেমেছি।

এদিকে গত ২১ আক্টোবর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদির সাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়, ২৩ অক্টোবর ‘পবিত্র আখেরী চাহার সোম্বা’র’ বিদ্যালয় ছুটির দিনে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষক সংগঠন বিভিন্ন দাবি নিয়ে ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারেন বলে জানা গেছে। এ কারণে সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কর্মস্থল ত্যাগের অনুমতি না দিতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

জানা যায়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকদের গ্রেড পরিবর্তনের দাবিতে গত ১৪ থেকে ১৭ অক্টোবর বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে কর্মবিরতি পালন করেন শিক্ষকরা। দাবি আদায় না হলে ২৩ অক্টোবর ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে উপস্থিত হয়ে মহাসমাবেশে যোগ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সেখানে উপস্থিত হয়ে আসন্ন সমাপনী পরীক্ষা বর্জন ও লাগাতার কর্মবিরতির ঘোষণা দিবেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের নেতারা।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ ছামছুদ্দীন মাসুদ রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘নিজেদের দাবি আদায়ে শিক্ষকরা কোন হুমকি ভয় পায় না। যদি দাবি পূরণ না হয় তবে বার্ষিক পরীক্ষা বর্জন ও সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তালা বন্ধ করে দেয়া হবে। এ আন্দোলনে প্রায় পৌনে তিন লাখ শিক্ষক যুক্ত আছেন।’

 

ঢাকা/ইয়ামিন/জেনিস 

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন