ঢাকা     সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৯ ||  ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

দুর্গাপূজা উপলক্ষে হিলি সীমান্তে দুই বাংলার মিলনমেলা

দিনাজপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৪৩, ৫ অক্টোবর ২০২২   আপডেট: ১০:৫৯, ৫ অক্টোবর ২০২২
দুর্গাপূজা উপলক্ষে হিলি সীমান্তে দুই বাংলার মিলনমেলা

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারত ও বাংলাদেশের মানুষের পদচারণে মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে দিনাজপুরের হিলি সীমান্তের চেকপোস্ট গেট এলাকা। সীমান্তের নো ম্যান্স ল্যান্ডের অদূরে দুই পারে ভিড় করছিলেন শত শত মানুষ। তাদের কেউ কেউ আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন। কিন্তু সীমান্তে বেড়া থাকায় সরাসরি কথা না বলতে না পারলেও দূর থেকে স্বজনদের দেখে শান্তি খুঁজে পেয়েছেন তারা।  

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) বিকেল থেকে হিলি সীমান্তের শূন্যরেখায় জড়ো হতে থাকেন দর্শনার্থীরা। এ যেন এক অন্যরকম দৃশ্য। জড়ো হওয়া দর্শনার্থীরা সীমানা ঘেঁষে রেল লাইনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলেছেন। কেউ দূর থেকে দাঁড়িয়ে স্বজনদের সঙ্গে ইশারায় কথা বলেছেন। বড়দের সঙ্গে ছোটরাও এসেছিল এখানে।

জানা গেছে, দুর্গাপূজার নবমীর দিন সকাল থেকেই সীমান্তের চেকপোস্ট গেট এলাকায় ভিড় করেন দর্শনার্থীরা। ধারণা করা হচ্ছে দশমীর দিনেও ভিড় বাড়বে এখানে । শুধু পূজা বা ঈদের দিন নয় শুক্রবার ছুটির দিনেও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে যাত্রীবাহী বাস, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল, অটোরিক্সা, ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহনে করে সীমান্তের চেকপোস্টে স্বজনদের সঙ্গে দেখা করতে আসেন দর্শনার্থীরা। 

গোবিন্দগঞ্জ থেকে আসা গোপাল কর্মকার রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আমার বাবারা সাত ভাই। বাবা বাংলাদেশে থাকেন। বাকি চাচারা ভারতে। গত কয়েক মাস তাদের সঙ্গে সরাসরি কথা হয়নি। মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপে কথা হয়। আজকে সরাসরি কথা বলতে না পারলেও দূর থেকে এক নজর দেখে খুব খুশি হয়েছি।’

পাঁচবিবি থেকে আসা স্বপন শাহা বলেন, ‘পরিবারের সবাই ভারতে থাকেন। ছোট কাকাকে দেখতে এসেছি। কাছে গিয়ে কথা বলতে পারলাম না। দূর থেকে দেখেও ভালো লাগলো।’

কয়েকজন দশনার্থী বলেন, ছেলে মেয়েদের হিলি সীমান্ত এলাকা দেখাতে নিয়ে এসেছি। এতোদিন শুনেই এসেছি আজ কাছ থেকে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকা ঘুরে দেখলাম পরিবারের সদস্যদের নিয়ে। খুব ভালো লাগলো এখানে এসে। 

মোসলেম/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়