ঢাকা     বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭ ||  ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

নারী উদ্যোক্তা ও দেশি পণ্যের জয়জয়কার

নাঈমা ফেরদৌস || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:২০, ২ আগস্ট ২০২০  
নারী উদ্যোক্তা ও দেশি পণ্যের জয়জয়কার

দেশি পণ্যের কদর এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি। আমাদের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের কৃষক, জেলে, তাঁতিদের সুদিন আসতে খুব বেশি দেরি নেই। অনলাইনে দেশি পণ্য বিক্রি করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন বহু নারী। এতে যেমন সৃষ্টি হয়েছে নতুন কর্মসংস্থান, তেমনি দেশের অর্থনীতিতে যুক্ত হয়েছে নতুন মাত্রা।

লকডাউনে পুরো বিশ্ব যখন থমকে দাঁড়িয়েছিল, তখন বাংলাদেশের বিভিন্ন পেশার লোকজন ঘরে বসে তাঁদের ব্যবসার কাজ চালিয়ে নিয়েছেন। এভাবে অনলাইনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে বিভিন্ন ব্যবসায়িক পেইজ খুলে অনেকেই নিজ উদ্যোগে কেনাবেচা করছেন। আবার অনেক সদস্য একত্রে গ্রুপে দেশী পণ্য নিয়ে কাজ করছেন। এমন একটি প্ল্যাটফর্মের নাম ‘উই’। 

২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে আজ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৬ লাখ সদস্য নিয়ে এগিয়ে চলছে উই। খুব দ্রুত গতিতে আকারে বড় হচ্ছে এই ওমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ফোরাম (Women and E-commerce forum)। গত কয়েক মাসে এর সদস্য সংখ্যা অনেক বেড়েছে। 

অনলাইন ব্যবসার জগতে এ এক বিরাট পরিবার। এই ফোরামের প্রেসিডেন্ট হলেন জনাব নাসিমা আক্তার নিশা। রাজিব আহমেদ (সাবেক প্রতিষ্ঠাতা, ই-ক্যাব) এ গ্রুপের একজন পরিচালক। উই এর ওয়ার্কিং কমিটি ডিরেক্টর হিসেবে আছেন ফারজানা তন্বী। তাছাড়া বেশ কজন মডারেটর উই গ্রুপ থেকে সার্বক্ষণিক তদারকিতে আছেন।

নারীরা নিজ এলাকার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সাথে মিল রেখে সামনে তুলে ধরছেন তাদের সংগৃহীত এবং নিজের হাতে গড়া পণ্যসামগ্রী।  জামদানী, রেশমী কাপড়, তাঁতশিল্প, শীতল পাটি, মাটির জিনিসপত্র, বাঁশ ও বেতের কাজ, বাদাম, ঘি, মধু, দুধ, পনির, মিষ্টান্ন, খাঁটি সরিষার তেল, স্বাস্থ্যসম্মত হোম মেড খাবার, কেক, নকশি কাঁথা, নকশি পিঠা, নারকেলের চিড়া, দেশি চকলেট, মাশরুম, নিত্য ব্যবহার্য পোশাক, হ্যান্ড পেইন্ট, ব্লক, বাটিক, বুটিক, সুই-সুতার কাজ, মেটাল গহনাদি,  ঘর সাজানোর উপকরণ, শখের কারুকাজ, কী নেই এখানে!

গ্রুপের সদস্যরা একইসাথে ক্রেতা ও বিক্রেতা। আছে দেশি পণ্য নিয়ে জানা ও শেখার অনেক সুযোগ। করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে আবদ্ধ থেকে নারীরা হয়ে উঠছে স্বনির্ভর। ঘরে ঘরে তৈরি হচ্ছে উদ্যোক্তা। উই এর মাধ্যমে নারীর সুপ্ত প্রতিভা জাগ্রত হচ্ছে। নারীর ক্ষমতায়নের অগ্রগতি হচ্ছে। লুকায়িত স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত হচ্ছে। দেশ ও জনতা অর্থনীতিতে পরিপূর্ণ হচ্ছে। দেশের প্রায় সব জেলার মানুষ নিজেদের সংস্কৃতিকে এভাবে সম্মানের সঙ্গে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

ইতোমধ্যে এ গ্রপের পাঁচজন সদস্য সেলার মিলিয়নিয়ার হয়েছেন। এরা হচ্ছেন কাকলী রাসেল তালুকদার, নিগার সুলতানা, সালমা নেহা, মনিকা দেবী ও সুলতানা পারভীন। প্রায় ২০০ এর অধিক উদ্যোক্তা হয়েছেন লাখ পতি (সূত্র: উই গ্রুপ)। প্রতিদিন বাড়ছে নতুন সদস্য সংখ্যা। গত ১৫ দিনে বেড়েছে প্রায় ২ লাখ সদস্য। বিভিন্ন বয়স, শ্রেণী ও পেশার নারী-পুরুষ সংযুক্ত আছেন এখানে।

কেউ থেমে নেই, স্বপ্ন পূরণের আশায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে সবাই। সাফল্যও পাচ্ছেন অনেকেই। আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম এ থেকে ভালো কিছু শিখবে, সময়কে কাজে লাগাবে এবং তারাও হয়ে উঠবে ভবিষ্যৎ উদ্যোক্তা। সেদিন খুব বেশি দূরে নেই, যেদিন বিদেশে আমাদের দেশীয় পণ্যের জয়জয়কার থাকবে। বিশ্বে সবার মুখে মুখে থাকবে বাংলাদেশের নাম। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা অর্জন করবে আরও সুনাম।

 

লেখক: প্রভাষক, জুরানপুর কলেজ, দাউদকান্দি।

কুমিল্লা/মাহি 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়