Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ১৬ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১ ১৪২৮ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষ: তদন্ত কমিটিকে প্রভাবিত করার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:০৫, ৮ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ২১:১৩, ৮ অক্টোবর ২০২০
বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষ: তদন্ত কমিটিকে প্রভাবিত করার অভিযোগ

১২ সেপ্টেম্বর গুলশানে বিএনপির দুই গ্রুপের মধ‌্যে সংঘর্ষ হয়

ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারের দিন দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটিকে প্রভাবিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বিএনপির এক মনোনয়নপ্রত‌্যাশী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ‘বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম সংঘর্ষের নির্দেশদাতাকে সেফ করে ৫-৬ জনকে দল থেকে বহিষ্কার করতে তদন্ত কমিটিকে বলেছেন।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির আরেক মনোনয়নপ্রত্যাশী অভিযোগ করেছেন, এই আসনে যুবদলের ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর আলমকে মনোনয়ন দিতে রুহুল কবির রিজভী এবং আব্দুল কাইয়ুম তদন্ত কমিটির ওপর চাপ প্রয়োগ করছেন। তারা আগামী শনিবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের বৈঠকের আগেই বিবৃতির মাধ্যমে এস এম জাহাঙ্গীরকে ঢাকা-১৮ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করার ষড়যন্ত্র করছেন।

এ বিষয়ে জানতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

তবে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, ‘কোনো চাপ নেই। আমি স্বাধীন ও নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করছি।’

কবে নাগাদ তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে, এ প্রশ্নের জবাবে খোকন বলেন, ‘খুব শিগগিরই জমা দেওয়া হবে।’

গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গত ২ অক্টোবর তদন্ত কমিটি গঠন করে দলটি। দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে এক সদস্যের এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। দলের যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

১২ সেপ্টেম্বর দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে চার শূন্য আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে দলটির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ভার্চুয়াল সাক্ষাৎকার নেয় বিএনপি। ঢাকা-১৮ আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা যখন সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন, তখন এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন এবং কফিল উদ্দিনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে কয়েকজন আহত হন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৮ আসনে বিএনপির মনোনয়নের চিঠি পেয়েছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদলের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর আলম ও বিএনপি ব্যবসায়ী নেতা বাহাউদ্দিন সাদী। যদিও পরে আসনটি শরিকদেরকে ছেড়ে দেয় বিএনপি। ওই নির্বাচনে ঢাকা-১৮ আসনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। কিন্তু এবার ঢাকা-১৮ আসনে দলীয় প্রার্থী দিচ্ছে বিএনপি।

এবার উপনির্বাচনে এই আসন থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন—শতিয়াক আজিজ উলফাত, এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, এম কফিল উদ্দিন আহম্মদ, বাহাউদ্দিন সাদী, আক্তার হোসেন, আব্বাস উদ্দিন, ইসমাঈল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান ও মোস্তফা জামান।

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস‌্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে ঢাকা-১৮ আসন শূন্য হয়। ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এই আসনে উপ-নির্বাচন হবে ১২ নভেম্বর।

ঢাকা/সাওন/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ