ঢাকা     রোববার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৫ ১৪২৭ ||  ০১ সফর ১৪৪২

বিনোদনপ্রেমীদের জন্য অভিনব বিছানা

মনিরুল হক ফিরোজ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:১১, ২১ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
বিনোদনপ্রেমীদের জন্য অভিনব বিছানা

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : একজন আর্কিটেক্ট সময় উপযোগী ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির এমন ধরনের বিছানা বা খাট তৈরি করেছেন, যার মধ্যে ৪কে মানের প্রজেক্টর, ৭০ ইঞ্চি স্ক্রিন এবং কাস্টমাইজ অ্যাপ বিল্ট-ইন রয়েছে। ফলে বিছানায় আরামশে টিভি বা অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলো উপভোগ করা যাবে।

আর্কিটেক্ট ফেবিও ভিনেলা এটি ডিজাইন করছেন ইতালিয়ান ফার্নিচার ব্র্যান্ড হাই-ইন্টেরিয়র্স এর জন্য। ‘হাইবেড’ নামক এই বিছানাটি মূলত বিনোদনের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে এবং আরামদায়ক এই বিছানাটি উচ্চপ্রযুক্তি নির্ভর।

বিছানাটির নিজস্ব অ্যাপ রয়েছে যার সাহায্য বিছানার সঙ্গে যুক্ত ৪কে প্রজেক্টর, ৭০ ইঞ্চি স্ক্রিন এবং  স্পিকারের সাউন্ড পরিচালনা করা যায়। হাইবেডটির দাম সম্পর্কে এখনো কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। তবে একই ধরনের আরেকটি সংস্করণের দাম ছিল বাংলাদেশি টাকার হিসাবে প্রায় ৩৪ লাখ টাকা।

এই উচ্চমূল্যের যৌক্তিকতা রয়েছে। হাইবেড বিছানাটি ব্যবহারকারীর ঘুমের ঘরন এবং শারীরিক ওজন বিশ্লেষণের পাশাপাশি তা নজরে রাখে। এছাড়াও ঘরের বাতাসের গুণগত মান, ঘরের তাপমাত্রা ও শব্দদূষণও পর্যবেক্ষণ করে। উপরুন্তু বিছানাটিতে বিল্ট-ইন থাকা লাইটিং সিস্টেমটি রাতের উপযোগী আলো, পড়ার উপযোগী আলো এবং সকালে অ্যালার্ম সুবিধা দেবে। রয়েছে স্মার্ট অ্যালার্ম ফিচার যার মাধ্যমে প্রতিদিনের আবহাওয়া ও খবরের নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে।

হাই-ইন্টেরিয়র্সের সহ-প্রতিষ্ঠাতা জিয়ান্নি টালারিকোর বলেন, ‘আধুনিক এই বিছানাটি কিছু স্বাস্থ্যগত সুবিধাও দিতে পারে। এর সাহায্যে ঘুমের সময় শ্বাস-প্রশ্বাস এবং স্লিপ এপেনিয়া পর্যবেক্ষণ করা যায়। ফলে অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করলে আপনি চিকিৎসকে বিষয়টি জানাতে পারবেন।’

হাইবেডটি বর্তমানে প্রি-অর্ডার করা যাচ্ছে। এ বছরের শেষের দিকে এটির উৎপাদন শুরু হবে।

চলতি বছরের শুরুতে বিখ্যাত গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফোর্ড এমন একটি বিছানার খসড়া উদ্ভাবন করেছিল, যেটি ঘুমের মধ্যে বিছানার একপাশে যেতে দেবে না। ‘লেন-কিপিং’ বেড নামক ওই বিছানা তৈরিতে ফোর্ড তাদের লেন-সেন্টারিং অ্যাসিস্ট প্রযুক্তি ব্যবহার করে। এই প্রযুক্তির সাহায্যে গাড়িচালকরা যেমন সঠিক লেনে চলে তেমনি বিছানার দুজন ব্যক্তি নির্দিষ্ট পাশেই থাকে, ঘুমের মধ্যে বিছানার একপ্রান্তে চলে যায় না। বিছানায় থাকা প্রেশার সেন্সর যখন বুঝতে পারে কোনো ব্যক্তি বিছানার এক পাশ থেকে অপর পাশে সরে যাচ্ছে, তখন এর বিল্ট-ইন কনভেয়র বেল্টটি তাকে বিছানার মাঝামাঝিতে নিয়ে আসে।

তথ্যসূত্র : ডেইলি মেইল


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২১ আগস্ট ২০১৯/ফিরোজ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়