ঢাকা, বুধবার, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন-রাশিয়া বাংলাদেশের পক্ষে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৮ ১:৩৬:৫৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-১৯ ৮:৫৩:৩২ এএম

রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন ও রাশিয়া বাংলাদেশের পক্ষে কথা বলছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেছেন, গত কয়েক বছরের ধারাবাহিক আলোচনার ফলে মিয়ানমার যাদের উপর নির্ভর করে সেই চীন বা রাশিয়া এখন অনেকটাই আমাদের পক্ষে কথা বলছে।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের মানিক মিয়া মিলনায়তনে একটি সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

‘মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের স্বদেশে প্রত্যাবর্তন’ শীর্ষক এ সেমিনারের আয়োজন করে বার্তা ও টেলিভিশন প্যাকেজ অনুষ্ঠান প্রযোজনা সংস্থা হোম মিডিয়া এবং ল্যান্ড মার্ক পাবলিকেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন হাউস লিমিটেড (এলটিভি বাংলা)।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার যাদের উপর নির্ভরশীল তারা বাংলাদেশকে সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীন সফরকালে সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলেছেন। তারা সবাই একবাক্যে স্বীকার করেছেন যে, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন অবশ্যই প্রয়োজন। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীন অবশ্যই বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবে।

তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন যদি বিলম্বিত হয় এবং অনিশ্চয়তা দেখা দেয় তাহলে শুধু বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের ক্ষতি হবে না, যারা এ অঞ্চলে বিনিয়োগ করেছেন তারাও যথেষ্ট ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে সারা বিশ্বে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সারা বিশ্ব এখন বাংলাদেশের প্রশংসা করে, যা কোটি কোটি টাকা খরচ করেও অর্জন করা সম্ভব নয়। তাই বাংলাদেশের সবাইকে শেখ হাসিনার প্রতি যথেষ্ট কৃতজ্ঞ থাকা দরকার।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে অবশ্যই ফিরে যাবে এবং গেলে সবাই একসঙ্গেই ফিরবে। রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার জন্য যা যা করার দরকার আমরা তাই করছি এবং আমরা অবশ্যই সফল হব।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মাকসুদুর রহমান পাটোয়ারী, অবসরপ্রাপ্ত রিয়ার অ্যাডমিরাল হারুনুর রশীদ, অবসরপ্রাপ্ত কমোডর এস এম মনির। সেমিনার সঞ্চালনা ও মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ড. আহমেদ আল কবির। 

 

ঢাকা/হাসান/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন