ঢাকা, রবিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

শিক্ষার মানোন্নয়নে প্রশিক্ষিত শিক্ষক প্রয়োজন : অধ্যক্ষ, মদন মোহন কলেজ

: রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৬-০৫-২৯ ৪:০৬:২২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৬-০৯-০৫ ৩:১২:১১ এএম

২০ মে ঢাকায় জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন কলেজের অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ (ছবি : শাহীন ভূঁইয়া)

মদন মোহন কলেজ ১৯৪০ সালের ২৬ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠিত হয়। তৎকালীন সিলেটের প্রখ্যাত শিক্ষানুরাগী মোহিনীমোহন দাশ এবং যোগেন্দ্রমোহন দাশ তাদের পিতা মদন মোহন দাশের স্মৃতির স্মরণে এটি প্রতিষ্ঠা করেন। সিলেটের লামাবাজারে তাদের নিজেদের দান করা জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত হয় কলেজটি। বর্তমানে কলেজটির মোট আয়তন ৩ দশমিক ৫৩ একর এবং এটি বাংলাদেশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত।

 

সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক কলেজ র‌্যাংকিংয়ে সিলেট বিভাগের মধ্যে পঞ্চম স্থান অধিকার করেছে মদন মোহন কলেজ। ২০ মে ঢাকায় জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন কলেজের অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ। রাইজিংবিডির সঙ্গে অনুভূতি প্রকাশ করেন তিনি।

 

সাক্ষাৎকার নিয়েছেন রাইজিংবিডির নিজস্ব প্রতিবেদক আবু বকর ইয়ামিন।

 

রাইজিংবিডি : পুরস্কৃত হলেন। কেমন লাগছে?

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এই প্রথম র‌্যাংকিং পদ্ধতি চালু করেছে। আর সেটিতে আমার কলেজ স্থান করে নিয়েছে। আমি, আমাদের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাই গর্বিত এবং আনন্দিত।

 

রাইজিংবিডি : আপনার কলেজের ঐতিহ্য সম্পর্কে যদি কিছু বলেন।

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : আমার কলেজ একটি ঐতিহ্যমণ্ডিত কলেজ। এ কলেজের শিক্ষার্থীরা ভাষা আন্দোলনে অংশ নিয়েছেন, মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন। বর্তমানে এ কলেজের সম্মানিত সভাপতি হিসেবে রয়েছে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তার নেতৃত্বে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

 

রাইজিংবিডি : কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী সংখ্যা কতজন?

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : শিক্ষক সংখ্যা ১১৫ জন। শিক্ষার্থী প্রায় ১০ হাজার। মোট ছয়টি বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স কোর্স চালু আছে।

 

রাইজিংবিডি : শিক্ষার মানোন্নয়নে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : শিক্ষার মানোন্নয়নে মানসম্পন্ন শিক্ষক প্রয়োজন। প্রয়োজন মানসম্পন্ন প্রশিক্ষণ। আমরা সেটি করার চেষ্টা করছি। শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করছি এবং যাতে তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা যায়, সে চেষ্টা করছি।

 

রাইজিংবিডি : কোনো সমস্যা রয়েছে কি না?

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : তথ্যপ্রযুক্তি ও প্রয়োজনীয় ল্যাবের সংকট রয়েছে। এ জন্য তহবিল বাড়ানো দরকার।এ ছাড়া শিক্ষক সংকটও রয়েছে।

 

রাইজিংবিডি : এই যে সফলতা পেলেন, এর নেপথ্যে কারা রয়েছেন?

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : সাফল্যের মূল কারণ হলো শিক্ষকদের নিষ্ঠা, গভর্নিং বডির সহযোগিতা এবং শিক্ষার্থীদের মনযোগিতা। কলেজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার প্রচেষ্টায় আমাদের এ সাফল্য এসেছে।

 

রাইজিংবিডি : সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ : রাইজিংবিডিকেও ধন্যবাদ।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৯ মে ২০১৬/রাসেল পারভেজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন