Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১১ মে ২০২১ ||  বৈশাখ ২৮ ১৪২৮ ||  ২৭ রমজান ১৪৪২

সৌম্যর আশীর্বাদের হরিণের চামড়াটি পারিবারিক ঐতিহ্যের

এম.শাহীন গোলদার || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৪:১১, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
সৌম্যর আশীর্বাদের হরিণের চামড়াটি পারিবারিক ঐতিহ্যের

হরিণের চামড়ার উপর দাঁড়িয়ে আশীর্বাদ অনুষ্ঠান সারলেন জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় সৌম্য সরকার।  এই হরিণের চামড়া নিয়ে ফেসবুকে চলছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়।

তবে এই ক্রিকেটারের বাবা বলেছেন, আলোচিত হরিণের চামড়াটি পারিবারিক ঐতিহ্যের নিদর্শন।

সৌম্য সরকারের বিয়ের আশীর্বাদ কনের বাড়িতে গোপনে সম্পন্ন হলেও বেশকিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দেখা যায়, হরিণের চামড়ার তৈরি আসনের ওপর কখনও বসে, কখনও দাঁড়িয়ে সৌম্য। তার আশীর্বাদের সব কার্যক্রম সম্পন্ন হয় হরিণের চামড়ার ওপরই। এতে সৌম্য সরকারকে নিয়ে ফেসবুকে বিরূপ মন্তব্য করছেন তার ভক্তরা। কেউ কেউ এটাকে বাড়াবাড়ি বলেও উল্লেখ করছেন।

এদিকে, সৌম্য সরকারের বিয়ের আশীর্বাদ নিয়ে সৃষ্ট বিতর্কের অবসানে তার বাবা সাতক্ষীরার সাবেক জেলা শিক্ষা অফিসার কিশোরী মোহন সরকার বললেন, চামড়াটির আসল রহস্য। তিনি বলেছেন, এটি মূলত পারিবারিক ঐতিহ্যের নিদর্শন। চামড়াটি মূলত প্রার্থণার জন্য ব্যবহার করা হয় এবং বহু পুরনো। যা যুগ যুগ ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে, চামড়াটি বংশানুক্রমে পাওয়া।

তিনি বলেন, ‘আমি পেয়েছি আমার বাবার কাছ থেকে। তিনি তার বাবার কাছ থেকে পেয়েছিলেন। তবে এটি প্রথমে কে ব্যবহার করেছিল সেটা আমার জানা নেই। পূর্ব পুরুষ থেকে পাওয়া আরো অনেক জিনিস আমার কাছে আছে। সৌম্য আমার ছোট ছেলে, তার বিয়ে নিয়ে অনেক ব্যস্ত সময় পার করছি। তবে হরিণের চামড়ার বিষয়টি নিয়ে একটি গ্রুপ তিলকে তাল করার চেষ্টা করছে। কেন করছে জানি না।’

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ওই ছবিতে দেখা যায়, হরিণের চামড়ার তৈরি আসনের ওপর বসা ও দাঁড়ানো অবস্থায় পরিবারের সদস্যরা তাকে আশীর্বাদ করছেন। তার আশীর্বাদের সব কার্যক্রম সম্পন্ন হয় হরিণের চমড়ার ওপরই।

সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছি ওই চামড়া পূর্বপুরুষদের হাত বদল হয়ে তাদের কাছে এসেছে। বিয়ের আশীর্বাদে এভাবে চামড়ার ব্যবহার তাদের পারিবারিক ঐতিহ্য। এই চামড়াটাও অনেক পুরনো। তবে আলোচনা-সমালোচনা হতেই পারে। এটা পুলিশের আমলযোগ্য কোন বিষয় নয়।’

সোমবার খুলনায় কনের বাড়িতে এ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এর আগে গত ২১ ফেব্রুয়ারি পারিবারিক পরিবেশে সাতক্ষীরা শহরের কাটিয়াস্থ বাড়িতে সম্পন্ন হয় আশীর্বাদ অনুষ্ঠান।

প্রসঙ্গত, কনে প্রিয়ন্তি দেবনাথ পূজার সঙ্গে ২৬ ফেব্রুয়ারি বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন জাতীয় দলের এ তারকা ক্রিকেটার সৌম্য সরকার। আর ২৮ ফেব্রুয়ারি সাতক্ষীরার মোজাফফর গার্ডেনে অনুষ্ঠিত হবে বৌ ভাত। পারিবারিক আয়োজনে গোপনে বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হলেও কনে প্রিয়ন্তি দেবনাথ পূজার সঙ্গে সৌম্যের সম্পর্ক অনেক আগ থেকেই।


সাতক্ষীরা/টিপু

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়