ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ১৩ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৯ ১৪২৭ ||  ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সহজ জয়ে যাত্রা শুরু মাশরাফি-আশরাফুলদের

287 || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:০১, ১৬ মার্চ ২০২০  
সহজ জয়ে যাত্রা শুরু মাশরাফি-আশরাফুলদের

২০১২ বিপিএলে ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে আশরাফুল নিষিদ্ধ ছিলেন পাঁচ বছর। মাঠে ফিরে নিয়মিত খেলছেন ঘরোয়া ক্রিকেট।

কিন্তু বন্ধু মাশরাফিকে সতীর্থ হিসেবে পাননি এ সময়ে। ওই বিপিএলে মাশরাফি, আশরাফুল জুটি ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটরসকে দিয়েছিল শিরোপার স্বাদ। দীর্ঘ সাত বছর পর তারা আবার একসঙ্গে, একই জার্সিতে। বঙ্গবন্ধু ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্রথম রাউন্ডেই দেখা মিললো শেখ জামালের দুই ক্রিকেটারের।

মুখে চড়া হাসি নিয়ে লিগের যাত্রা শুরু করলেন দুজন। অবশ্য দলের জয়ে দ্যুতি ছড়াতে পারেননি কেউ। সোমবার বিকেএসপিতে শেখ জামাল ৫৫ রানে হারিয়েছে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতিকে। বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে আগে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ২৭৬ রান তোলে শেখ জামাল। জবাবে খেলাঘর ৯ উইকেটে ২২১ রানের বেশি করতে পারেনি।

ব্যাটিংয়ে আশরাফুল ফ্লপ। ১৪ বলে করেছেন মাত্র ৩। মাশরাফির ব্যাট থেকে ৭ বলে আসে ১। বোলিংয়ে মাশরাফি ৭ ওভারে ১ মেডেনে দিয়েছেন ৩৪ রান। পাননি কোনো উইকেট। জয় প্রায় নিশ্চিত হওয়ার পর আশরাফুল করেছেন ১ ওভার। দিয়েছেন ৯ রান।

শেখ জামালের জয়ের নায়ক সৈকত আলী। ডানহাতি ওপেনার ৭৯ বলে ৮৩ রানের ইনিংস খেলে শুরুতেই দলকে এগিয়ে নেন। মধ্যভাগে দলের ইনিংস টানেন নাসির হোসেন ও অধিনায়ক কাজী নুরুল হাসান সোহান। চতুর্থ উইকেট জুটিতে তারা ৯৬ রানের জুটি গড়েন। দুজনই পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরির ইনিংস।

নাসির ৫৭ বলে ২ চার ও ৪ ছক্কায় ৫৬ রান করেন। চার ছক্কার তিনটি মেরেছেন মেহেদী হাসান মিরাজকে। আরেকটি টিপু সুলতানকে। সোহান খালেদ আহমেদের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৫ চার ও ১ ছক্কায় করেন ৫৮ রান। শেষ দিকে জিয়াউর রহমানের ২১ বলে ২৪ রানের ইনিংসে শেখ জামাল ভালো সংগ্রহ পায়।

খেলাঘরের হয়ে পেসার ইরফান পেয়েছেন ৪টি উইকেট। ২টি করে উইকেট নেন খালেদ ও মাসুম খান।

শক্তিমত্তায় খেলাঘর ছিল পিছিয়ে। ব্যাটিংয়ে নেই বড় কোনো নাম। অধিনায়ক জহুরুল ইসলাম অমির ওপর ছিল প্রত্যাশার চাপ। সেই চাপ জয় করে অমি ৭৮ বলে করেন ৫১ রান। কিন্তু বিশাল লক্ষ্য তাড়া করে জয়ের জন্য তা ছিল না যথেষ্ট। ওপেনিংয়ে ইমতিয়াজ হোসেন ২৯ ও লেট অর্ডারে মাসুম খান ৩২ রান করেন। ২৪ করে রান আসে সালমান হোসেন ও ইরফান হোসেনের ব্যাট থেকে। টপ অর্ডার ও মিডল অর্ডারে বড় ইনিংস না আসায় লড়াই করতে পারেনি খেলাঘর।

শেখ জামালের বোলাররা ছিলেন নিয়ন্ত্রিত। চার স্পিনার নাসির, শুভ, সানী ও তানবীরকে খেলতে পারেননি ব্যাটসম্যানরা। মাশরাফি, ইবাদত ও সালাউদ্দিন শাকিল ছিলেন চমৎকার। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন শুভ, সানী ও শাকিল। ব্যাট হাতে রান পাওয়ার পর নাসিরের পকেটে গেছে এক উইকেট।

ব্যাট-বলের দাপটে লিগ ভালোভাবেই শুরু করল শেখ জামাল।


ঢাকা/ইয়াসিন/আমিনুল

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়