RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৬ ১৪২৭ ||  ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রে আগের মতোই বাড়ছে করোনায় মৃতের সংখ্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, যুক্তরাষ্ট্র || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১১, ৩ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:২৭, ৩ ডিসেম্বর ২০২০
যুক্তরাষ্ট্রে আগের মতোই বাড়ছে করোনায় মৃতের সংখ্যা

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস গত মার্চ-এপ্রিলেরর চেয়েও ভয়াবহ রুপ ধারণ করছে। ফলে নতুন করে আতঙ্ক বিস্তার করেছে মার্কিনীদের মধ্যে। মাঝে সংক্রমণের হার কিছুটা কমলেও দেশটিতে গত কয়েক সপ্তাহে আবারও হু হু করে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা, বাড়ছে মৃত্যুও। গত মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ রোগে মৃতের সংখ্যা আড়াই হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এপ্রিল মাসের শেষের দিক থেকে এক দিনের হিসেবে মৃতের এ সংখ্যা সর্বোচ্চ। গোটা মহামারির মধ্যে দেশটিতে একদিনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ডও এটাই। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি এ তথ্য জানিয়েছে।

সবশেষ তথ্যমতে, যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১ কোটি ৩৯ লাখ ১৫ হাজার ২৮৬ জন। মারা গেছেন ২ লাখ ৭৩ হাজার ৩০০ জন। কোভিড ট্র্যাকিং প্রজেক্টের হিসাবে, যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীর সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে। বুধবার দেশটিতে এক লাখেরও বেশি রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে দৈনিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন গড়ে ১ লাখ ৬১ হাজার ৪৪৮ জন, যা গত জুলাইয়ের চেয়ে প্রায় আড়াইগুণ বেশি। গত গ্রীষ্মে করোনাজনিত কারণে দৈনিক গড়ে ১ হাজার ১৩০টি মৃত্যু দেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু সাম্প্রতিক সপ্তাহে সেই সংখ্যা দেড় হাজার পার হয়ে গেছে।

ইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিনের মেডিসিন বিভাগের সংক্রামক রোগ শাখার প্রধান ডা. ডেভিড আন্দেস জানান, তাদের হাসপাতালে ইতোমধ্যেই রোগী ধারণক্ষমতার ৯৮ শতাংশ পূরণ হয়ে গেছে। তার কথায়, ‘সংখ্যাগুলো আমাদের অনেকটাই নিয়ন্ত্রণের বাইরে।’

এ চিকিৎসক জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নতুন রোগীদের স্থান সঙ্কুলানে হিমশিম খাচ্ছে। অনেক রোগীকেই শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বহু চিকিৎসককে মাত্রাতিরিক্তি ডিউটি করতে হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) অন্যতম শীর্ষ কর্মকর্তা ডা. রবার্ট রেডফিল্ড বলেছেন, আগামী কয়েক মাস দেশটির হাসপাতালগুলোতে রোগীর বাড়তি চাপ থাকতে পারে। তার কথায়, ‘ডিসেম্বর, জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি কঠিন সময় যাবে। আমি বিশ্বাস করি, দেশের জনস্বাস্থ্য খাতের ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ সময় হতে যাচ্ছে সেটি।’

কোভিড ট্রেকিং প্রজেক্ট অনুযায়ী, মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন হাসপাতালে করোনা রোগী ভর্তির সংখ্যা ৯৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। হাসপাতালে ভর্তি থাকার ক্ষেত্রে এটি একটি নতুন রেকর্ড। দেশটির ইন্ডিয়ানা ও সাউথ ডাকোটাসহ মধ্যপশ্চিমাঞ্চলের অনেক রাজ্যে এ ভাইরাসজনিত কারণে একেবারে নাজুক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে ‘থ্যাঙ্কগিভিং হলিডে’র পর থেকে নতুন করে করোনাভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা আরও বেড়ে যেতে দেখা যাচ্ছে। এ ছুটিতে উৎসব সমাবেশ এড়িয়ে চলার নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও আমেরিকার লাখ লাখ নাগরিককে কাছের মানুষদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে ভ্রমণ করতে দেখা যায়। বর্তমানে প্রাত্যহিক আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেশি এবং বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরেই এই প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে।

আগামী দিনগুলোতে এই পরস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় দৈনিক প্রাণহানির সংখ্যা গড়ে দুই থেকে তিন হাজার হতে পারে। এমনকি তা চার হাজারের কাছাকাছিও চলে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

ঢাকা/ছাবেদ সাথী/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়