Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৩ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৭ ১৪২৮ ||  ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অক্টোবর-ডিসেম্বরব‌্যাপী শিনচেনজি চার্চের সেমিনার

নিউজ ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৪৭, ৯ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৯:২৬, ৯ অক্টোবর ২০২১
অক্টোবর-ডিসেম্বরব‌্যাপী শিনচেনজি চার্চের সেমিনার

করোনা মহামারীর কারণে মানব সভ‌্যতার বর্তমান এবং ভবিষ্যত সম্পর্কে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে চিকিৎসা ক্ষেত্রে বিশ্বাসের অভাব এবং ধর্মীয় জগতে ভুল বোঝাবুঝিসহ দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন উদ্বেগ বাড়ছে।

যুক্তরাষ্ট্রে, গুজব ছড়িয়ে পড়ছে, কোভিড ভ্যাকসিন হলো ‘পশুর চিহ্ন’। এই রহস্য উদঘাটনমূলক বাইবেলীয় শব্দটি প্রকাশিত বাক্য ১৩ থেকে এসেছে। সাধারণত শয়তানের সাথে সংযুক্ত হওয়া এবং পরবর্তীতে ঈশ্বরের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়া হিসেবে এই বাক‌্যটি ব্যাখ্যা করা হয়।

উপরন্তু, ধর্মীয় পটভূমি নির্বিশেষে লোকেরা প্রায়শই এই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়- করোনা ভাইরাসই কি ‘পৃথিবীর শেষ’ পরিণতি ডেকে আনবে?

টেনারনেকল অফ দ্য টেমননালির মন্দির, শিনচেনজি চার্চ অফ জেসাস ঘোষণা করেছে- ১৮ অক্টোবর থেকে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত ‘ভবিষ্যদ্বাণীর সাক্ষ্য এবং প্রকাশের পরিপূর্ণতা, ঈশ্বরের নতুন চুক্তি’ শীর্ষক এক সেমিনার আয়োজন করবে।

ইউটিউবে সরাসরি সম্প্রচারিত সেমিনারগুলি কে, কী, কখন, কোথায়, কেন, কীভাবে পদ্ধতির ওপর ভিত্তি করে প্রকাশের প্রতিটি অধ্যায় থেকে রেকর্ড করা ভবিষ্যদ্বাণীর ব্যাখ্যা প্রদান করবে।

বক্তাদের মধ্যে রয়েছে চেয়ারম্যান ম্যান হি লি। যিনি জানিয়েছেন- তিনি এমন একজন সাক্ষী, যিনি বাস্তব জগতে শারীরিকভাবে পূর্ণ হওয়া বইয়ের সমস্ত ঘটনা দেখেছেন এবং শুনেছেন (প্রকাশিত বাক্য 22:16)।

শিনচেঞ্জি চার্চের আন্তর্জাতিক মিশন বিভাগের জেনারেল ডিরেক্টর মি. কিম শিন-চ্যাং বলেন, ‘এর আগে চলতি বছরের আগস্টে অনুষ্ঠিত এসসিজে ওয়ার্ড সেমিনার বিশ্বব্যাপী ১৭০০ পাদ্রী এবং ২৮ হাজার মানুষকে আকর্ষণ করেছিল। এই সময়ে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা তাদের আগ্রহ এবং প্রকাশের শব্দগুলি ধারাবাহিকভাবে বোঝার প্রচেষ্টাকে বাইবেলের বাকী বইয়ের শব্দের সাথে প্রতিফলিত করে।’ 

শিনচেনজি চার্চ আরও যোগ করেছে- প্রকাশিত বইটি দৃষ্টান্ত হিসেবে লেখা হয়েছে। বইটি বাস্তব জগতের মাধ্যমে ব্যাখ্যা করা হয়নি। বরং শুধুমাত্র মানুষের চিন্তাভাবনা এবং বাইবেলবিহীন অনুমানমূলক তত্ত্বের মাধ্যমে যা বিশ্বাসীদের বিভ্রান্ত করেছে এবং সামাজিক ব্যাধি সৃষ্টি করেছে। গির্জা এও জোর দেয় যে, প্রকাশিত বাক্যটির প্রকৃত অর্থ বোঝা হলো বাইবেল অনুসারে আজ পৃথিবীতে দৃষ্টান্ত হিসেবে প্রকাশিত ভবিষ্যদ্বাণীগুলি কীভাবে শারীরিকভাবে পরিপূর্ণ হয়েছে তা দেখা।

ঢাকা/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়