ঢাকা, রবিবার, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘এটা অনেক বড় অর্জন’

ক্রীড়া প্রতিবেদক, নেপাল থেকে : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৬ ৮:৪০:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৭ ৮:২৫:৪৩ এএম

আরদিনা ফেরদৌস আঁখি। বাংলাদেশের হয়ে চলমান এসএ গেমসে তিনি ১০ মিটার এয়ার পিস্তলে রৌপ্য জিতেছেন। ২৩৪.৪ স্কোর করে প্রথম কোনো বাংলাদেশি নারী হিসেবে এসএ গেমসে এয়ার পিস্তলে রূপা জিতেন তিনি। ২৩৮.৪ স্কোর করে সোনা জিতেন ভারতের শ্রী পারমানাথাম। এর আগে আঁখি ২০১৬ এসএ গেমসে দলগত ইভেন্টে রূপা জিতেছিলেন। এবার ব্যক্তিগত ইভেন্টে রূপা জিতলেন। যা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তার প্রথম ব্যক্তিগত পদক।

রূপা হলেও এটাকে তিনি বড় অর্জন বলে মনে করছেন, ‘ভারতের শ্যুটাররা অনেক সুযোগ-সুবিধা পায়। সেই হিসেবে আমি বলব আমি ওনাদের সঙ্গে ভাল ফাইট করেছি। আমার ম্যাচ টেম্পারমেন্ট তাদের চেয়ে অনেক কম। তাদের ম্যাচ টেম্পারমেন্ট আলাদা। অনেক অভিজ্ঞ। অনেক আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট খেলে। যে মেডেলটা পেয়েছি, তাতে আমি অবশ্যই খুশি। এখানে আমাদের সঙ্গে খেলার সময় তাদের ভয় করার কিছু নেই। তাদের অনেককে পেছনে ফেলে যে আমি রুপা জিতেছি, তাতে আমি বলব এটা অনেক বড় অর্জন।’

‘লড়াই করার সময় আমি কখনোই স্কোরবোর্ডের দিকে তাকাইনি।  গোল্ড হলে উচ্ছ্বাসটা আলাদাই থাকতো। যেহেতু এখন পর্যন্ত মেয়েদের পিস্তলে অনেক দিন কেউ সোনা জিততে পারেনি। এখন পর্যন্ত এসএ গেমসে শ্যুটিং থেকে সোনা আসেনি। আশা করেছিলাম যদি পারি তাহলে টিমের জন্য ভাল হতো।’ যোগ করেন তিনি।

কুষ্টিয়ার শ্যুটিং পরিবার থেকেই উঠে এসেছেন আঁখি। কুষ্টিয়া শ্যুটিং ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তার নানা। তার পরিবারের সবাই শ্যুটিংয়ের সঙ্গে জড়িত। তার বাবা এবং ভাইয়ের হাত ধরে শ্যুটিংয়ে আসেন তিনি। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রেরণা পেয়েছেন বাবা মো. গোলাম মহিউদ্দিনের কাছ থেকে।

তিন ভাই-বোনের মধ্যে আঁখি সবার ছোট। এর আগে শ্যুটিংয়ে তার ভাইও ছিলেন। বোনও আছেন। ২০০৮ সাল থেকে তিনি পিস্তল হাতে নিয়েছেন। তখন সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়তেন। সেই বছরই জাতীয় প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। ২০০৮ সাল থেকে এই পর্যন্ত জাতীয় প্রতিযোগিতায় ১৩টির মতো পদক জিতেছেন। তার মধ্যে সোনা ৪টি।

২৭ বছর বয়সী আঁখি ২০১৭ সালে বিয়ে করেন ব্যবসায়ী তানভীর আহসানকে। স্বামীর পাশাপাশি শ^শুর বাড়ি থেকেও দারুণ সমর্থন পান তিনি। আঁখি বলেন, ‘আমার হাজবেন্ড আমাকে অনেক অনুপ্রাণিত করেন। আমি অনেক সময় ভেঙ্গে পড়ি। আমি হয়তো পারব না, শ্যুটিং করব না, ছেড়ে দিব। তখন ও বলে- তুমি পারবা, কোনোভাবে হাল ছাড়া যাবে না।’

এককের পর সোমবার মিশ্র বিভাগে শাকিল আহমেদের সঙ্গে রেঞ্জে নামবেন তিনি। এককে যেহেতু হয়নি এবার মিশ্র’র স্বর্ণে চোখ রেখেছেন তিনি।


পোখরা/আমিনুল