ঢাকা     মঙ্গলবার   ০৪ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২০ ১৪২৭ ||  ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

risingbd-august-banner-970x90

শেষ ভালোর প্রত্যাশায়

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:২৯, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

এশিয়ার ৪৭টি দেশের মধ্যে মাত্র ৮টি দেশ এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের চূড়ান্তপর্বে খেলার সুযোগ পায়। তার মধ্যে আয়োজক দেশ, আগের আসরের চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপ ও তৃতীয় স্থান; এই চারটি দল সরাসরি খেলার টিকিট পায়। বাকি চারটি দলকে অন্যান্য ৪৩টি দেশের সঙ্গে গ্রুপে ভাগ হয়ে বাছাইপর্ব খেলে আসতে হয়। তাও আবার  দুই রাউন্ডের বাছাইপর্ব। টানা দুই আসরে বাংলাদেশ বাছাইপর্বের কঠিন ধাপগুলো পেরিয়ে এএফসি কাপের মূলপর্বে জায়গা করে নিয়েছে। কিন্তু মূলপর্বে এসে আর পেরে উঠছে না।

না পেরে ওঠার কারণ কী? কারণটা হল এশিয়ার ৪৭টি দেশের মধ্যে প্রথম সারির চার-পাঁচটা দেশ খুব ভালো। সেগুলো হল উত্তর কোরিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও চীন। এরপর যারা বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসে তাদের সঙ্গে উক্ত চার দলের পার্থক্য বিস্তর। সে কারণেই তাদের সঙ্গে গোল বন্যায় ভাসতে হয় বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা দলগুলোকে। তাদের ফুটবল অবকাঠামো, ঘরোয়া ফুটবল কাঠামো, প্রতিদ্বন্দ্বিতার ধরন, টেকনিক্যাল সামর্থ সবকিছু অনেক আগানো। এই যে যেমন চীন এএফসি কাপের মূলপর্বে খেলতে এসেছে। তাদের সঙ্গে তাদের দেশের ফুটবল সংস্থা ২৩ জন কোচিং স্টাফ পাঠিয়েছে। উত্তর কোরিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়ারও তেমনটাই রয়েছে।  আর বাংলাদেশের সঙ্গে কোচিং স্টাফ এসেছেন মাত্র ৪ জন!

সে কারণে মাঠে দলগুলোর পার্থক্য স্পষ্ট হয়ে যায়। জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের মেয়েরা ৯ গোল হজম করে। তাতে অবশ্য আবারো গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে বাংলাদেশের কিশোরীদের। এবারের আসরে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে শনিবার অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের মেয়েরা। তার আগে বৃহস্পতিবার কোনো অনুশীলন করেনি গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। তারা হালকা স্ট্রেচিং, সুইমিংপুল ও জিমে সময় কাটিয়েছে। শেষ ম্যাচকে সামনে রেখে আজ শুক্রবার অনুশীলন করবে।

অন্তত শেষটা ভালো খেলে দেশে ফিরতে চান অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা। তিনি বলেছেন, ‘জাপানের বিপক্ষের ম্যাচে আমরা মিডফিল্ডে সুবিধা করতে পারিনি। আমি নিজেও ভালো খেলতে পারিনি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শেষ ম্যাচটিতে আমরা ভালো খেলতে চাই। এর আগেও আমরা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলেছিলাম। আমরা আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে পারলে শেষ ম্যাচে আশা করছি ভালো ফল আসবে।’

কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনও বুধবার শেষ ম্যাচে ভালো করার বিষয়ে কথা বলেছিলেন। আগের আসরে প্রথম ম্যাচে উত্তর কোরিয়ার বিপক্ষে ৯-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। এরপর জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ফাইট করেছিল। জাপানের বিপক্ষে ৩-০ ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৭৮ মিনিট পর্যন্ত ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ দিকে তিনটি গোল হজম করে হার মানে। এবারও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ছোটনের শিষ্যরা তেমন কিছু করতে পারে কিনা দেখার বিষয়।

 

থাইল্যান্ড/আমিনুল/নাসিম

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়