সারা বাংলা

পাঁচুড়িয়া খালের পুনঃসংযোগ কাজের উদ্বোধন, ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন

গোপালগঞ্জে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি বিজড়িত মধুমতি নদীর সঙ্গে পাঁচুড়িয়া খালের পুনঃসংযোগ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। শহরের পাঁচুড়িয়া পৌর নিউ মার্কেট এলাকায় এ কাজের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা। 

১৯৫৯ সালে তৎকালীন পাকিস্তান সরকার খালের মুখটি বন্ধ করে দেয়। দীর্ঘ ৬৩ বছর পর খালটি অবমুক্ত করা হচ্ছে।

এদিকে, খালের পুনঃসংযোগের নামে কোনো আগাম ঘোষণা না দিয়ে স্থাপনা উচ্ছেদের প্রতিবাদে মানববন্ধ করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

পাঁচুড়িয়া খালের পুন:সংযোগ কাজ উদ্বোধনের সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র শেখ রকিব হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নাজমুন নাহার, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ রুহুল আমিন, গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো.জাহিদ হোসেন, এলডিইজির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. এহসানুল হক, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফাইজুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোহসীন উদ্দিন, সহকারি কমিশনার(ভূমি) মো. মামুন খান প্রমুখ।

গোপালগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. রকিব হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে খালটির পানি প্রবাহ আটকে থাকায় কুচুরিপনা ও ময়লার স্তুপ তৈরী হয়েছিলো। দখলে ছোট হয়ে যাচ্ছিল খালটির প্রশস্থতা। পানি পচে দুর্গন্ধ ও মশা মাছির প্রজনন ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছিলো শহরের মধ্যদিয়ে প্রবাহমান খালটি। পৌর মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর খালটির ময়লার স্তূপ অপসারণ ও কুচুরিপনা পরিস্কারের উদ্যোগ নিয়েছি। পরবর্তীতে খালটি পানি প্রবাহ পুণঃস্থাপনের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আজ থেকে একাজ শুরু হয়েছে। পরবর্তীতে এই এলাকার সৌন্দয্য বর্ধনসহ নানাবিধ কাজ করা হবে। এটি শহরবাসীর পছন্দের স্থান হবে।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি বিজ‌ড়িত পাঁচুড়িয়া খালটিতে দীর্ঘদিন ধরে পানি প্রবাহ বন্ধ থাকায় দূষণ আর দখলে সংকীর্ণ হয়ে পড়েছিলো। আমরা মধুমতি নদীর সঙ্গে খালটি পুণঃসংযোগ স্থাপন করে অবাধ পানি প্রবাহের উদ্যোগ নিয়েছি। এ খালটিকে ঘিরে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এটি শহরবাসীর কাছে একটি দর্শনীয় স্থান হবে। এছাড়া জেলাবাসী খালটিকে নানামুখি কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।

এদিকে, গোপালগঞ্জে পাঁচুড়িয়া খালের পুনঃসংযোগের নামে কোনো ঘোষনা না দিয়েই স্থাপনা উচ্ছেদের প্রতিবাদে পাঁচুড়িয়া এলাকার গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া সড়কে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছেন ব্যবসায়ীরা। 

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, আগে কোনো কিছু না জানিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠা না থাকলে পরিবার পরিজন নিয়ে আমাদের পথে বসতে হবে।