ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

পাটুরিয়ায় ঘরমুখো যাত্রীদের দুর্ভোগ

আশরাফুল আলম লিটন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৬-০৯-১১ ৬:৩৮:১৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৬-০৯-১১ ৬:৫৭:৩৮ পিএম

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে বাড়ি ফিরছে ঘরমুখো মানুষ। তবে পাটুরিয়া ঘাটে দীর্ঘ সময় যানজটে আটকা পড়ে ভোগান্তি পোহাচ্ছে ঘরমুখো হাজারো মানুষ।

তীব্র স্রোত, ভাঙন আর ঘাট সংকটের কারণে পাটুরিয়া ঘাটে বেশ কয়েকদিন ধরে ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছে। ফেরি পারাপার ব্যাহত হওয়ায় উভয় ঘাটে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা গেছে, ভাঙনের কারণে শনিবার দুপুর ৩টায় বন্ধ হয়ে যাওয়া দৌলতদিয়ার ৩নং ফেরি ঘাটটি রোববার দুপুর ৩টায় পুনরায় চালু হয়েছে। বাকি তিনটা ঘাট দিয়ে নাজুক অবস্থায় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

তবে ওই তিনটি ঘাটও যে কোনো সময় ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। বর্তমানে ছোট বড় ১৬টি ফেরি দিয়ে পারাপার চলছে। নদীতে তীব্র স্রোত থাকায় ফেরি চলতে স্বাভাবিক সময়ের চাইতে অতিরিক্ত সময় লাগছে।

বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান ফেরির মাস্টার আব্দুল হাই জানান, এই রুটে চলমান বেশিরভাগ ফেরির বয়স প্রায় ৪০ বছর। অনেক দিনের পুরনো হওয়ায় ফেরিগুলোর যন্ত্রাংশ অকেজো হয়ে গেছে। তাই অস্বাভাবিক স্রোতের বিপরীতে ফেরিগুলো চলতে পারছে না। স্বাভাবিক সময়ে পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়ায় যেতে একটি ফেরির সময় লাগে ৩০ থেকে ৪০ মিনিট। বর্তমানে একটি ফেরি পার হতে সময় লাগছে দেড় ঘণ্টা। যে কারণে ফেরির ট্রিপ সংখ্যা কমে গেছে।

এদিকে ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা প্রহর গুনছেন দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা। পাটুরিয়া ঘাটে অপেক্ষমাণ খুলনার যাত্রী আসপিয়া রহমান জানান, সকাল ৭টায় তিনি পাটুরিয়া ঘাটে এসেছেন। বিকেল ৪টা বাজলেও তাদের গাড়িটি এখনো ঘাটেই অপেক্ষা করছে। তবে কখন নাগাদ পার হতে পারবেন সেটা এখনও অনিশ্চিত।

তিনি আরো জানান, ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘাটে আটকে পড়ে তার মত শতশত নারীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। ঘাট এলাকায় নারীদের জন্য কোনো বাথরুমের ব্যবস্থা না থাকায় তাদের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

বাগেরহাটগামী যাত্রী সৌরভ তালুকদার জানান, তিনি সকাল ৯টায় ঘাটে এসেছেন। কখন যাবেন তার কোনো ঠিক নেই। তারপর আবার ফেরিতে পার হতে এক দেড় ঘণ্টা সময় লাগবে। ওই পাড়ে আবার রাস্তার কি অবস্থা সেটাও চিন্তার বিষয়।

এদিকে বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. শফিকুল ইসলাম জানান, দৌলতদিয়ার ৪টি ঘাট দিয়েই নাজুক অবস্থার মধ্য দিয়ে ফেরি পারাপারের কাজ চলছে। সকাল ৬টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বাস, মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকার মিলিয়ে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

তবে ফেরির সংখ্যা কম থাকায় এবং পারাপারে অতিরিক্ত সময় লাগায় ঘাটে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে উভয় ঘাটে প্রায় হাজার খানেক যানবাহন পারের অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানান শফিকুল ইসলাম।

 

 

রাইজিংবিডি/মানিকগঞ্জ/১১ সেপ্টেম্বর ২০১৬/আশরাফুল আলম লিটন/রিশিত

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : মানিকগঞ্জ, ঢাকা বিভাগ