RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৬ ১৪২৭ ||  ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ঈদ বিনোদনে উপচেপড়া ভিড় পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে

রেজাউল করিম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৩৪, ৬ জুন ২০১৯   আপডেট: ০৫:২২, ৩১ আগস্ট ২০২০
ঈদ বিনোদনে উপচেপড়া ভিড় পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম : বন্দরনগরী চট্টগ্রামের ঈদ বিনোদনে উপচেপড়া ভিড় এখন পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে। নগরী ও জেলার আশপাশের উপজেলাসমূহ হতে বিভিন্ন বয়সি নারী-পুরুষ, তরুণ-তরুণী ঈদ উপলক্ষে ভিড় করছে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত, নেভাল বিচ ও নেভাল-২ এলাকায়। এ ছাড়া, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা, ফয়েজ লেক এমিউজমেন্ট পার্কসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যঘেরা বিনোদন স্পটগুলোতে ভিড় করছে লাখো মানুষ।

শিশু-কিশোর আর তাদের অভিভাবকদের ভিড়ে জমজমাট অবস্থা চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায়। তিল ধারণের ঠাঁই নেই চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে। সবুজ পাহাড়, অসাধারণ সুন্দর প্রকৃতি, সুউচ্চ পাহাড় আর লোনা জলের সাগর- সব সৌন্দর্যই ঘিরে আছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামকে। প্রকৃতির এই অপার সৌন্দর্যকে উপভোগ করতে ঈদের ছুটিতে লাখো মানুষ ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে নগরীর সবগুলো বিনোদনকেন্দ্রে। নগরীর পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা, রাঙ্গুনিয়ার অ্যাভিয়ারি পার্ক, চট্টগ্রাম শিশুপার্ক, সীতাকুণ্ড ইকোপার্ক, ফয়েজ লেক ওয়াটার পার্ক, কর্ণফুলী শিশু পার্ক, বহদ্দারহাট স্বাধীনতা পার্ক, কাপ্তাই ন্যাশনাল পার্ক, জুম রেস্তোরা, নেভাল বিচ কোথাও তিল ধারণের ঠাঁই নেই। শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত সববয়সি মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে এসব বিনোদন স্পট।

বৃহস্পতিবার ঈদের দ্বিতীয় দিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন বিনোদন স্পট ঘুরে দেখা গেছে, সর্বত্র হাজার হাজার মানুষ ঈদ বিনোদনে ব্যাস্ত। কোথাও স্বামী-স্ত্রী তাদের শিশু সন্তানদের নিয়ে সাগর সৈকত কিংবা সবুজ প্রকৃতির কাছে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আবার কোথাও প্রেমিক যুগল একে অপরের হাতে হাত রেখে সাগরের কাছে বসে ভবিষ্যতের স্বপ্ন বুনছে।

বিভিন্ন স্পটে দেখা গেছে, দর্শনার্থীদের মধ্যে কিশোর-কিশোরী, তরুণ-তরুণী ও প্রেমিক যুগলের সংখ্যাই ছিল সবচেয়ে বেশি। তবে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ছোট ছোট শিশু-কিশোরদের দিয়ে অভিভাবকরা ভিড় করছেন। তীব্র রোদ আর গরম উপেক্ষা করে ঘুরে বেড়ানোর আনন্দ উপভোগ করতে ব্যস্ত সবাই।

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে সরেজমিনে দেখা গেছে, ঈদের দিন ভিড় কিছুটা কম হলেও ঈদের পরদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সমুদ্র সৈকতে উপচে পড়ছে মানুষ। চট্টগ্রাম মহানগর ছাড়াও দূর দূরান্ত থেকে এখানে পর্যটকরা আসছে ঈদ আনন্দ উপভোগে। গ্রাম থেকে শহরে পতেঙ্গা সৈকতে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে এসেছে শত শত তরুণ-তরুণী।

সমুদ্র সৈকত ছাড়াও নগরীর পতেঙ্গা প্রজাপতি পার্ক, ফয়েজলেক ওয়াটার পার্ক, বহদ্দারহাট স্বাধীনতা পার্ক, সীতাকুণ্ড ইকো পার্ক, মিরসরাই মহামায়া লেক, ভাটিয়ারি গলফ ক্লাব, সেনাবাহিনীর পর্যটন স্পটসহ সর্বত্র বিনোদনপ্রেমী মানুষের প্রচণ্ড ভিড়।

ফয়েজ লেক বিনোদন স্পটের কর্মকর্তা আমিন রিংকু রাইজিংবিডিকে জানান, ঈদের দিন বিকেল থেকে এখানে পর্যটকদের প্রচণ্ড ভিড় রয়েছে। ঈদের পর দিন এই ভিড় প্রচণ্ড আকার ধারণ করে। হাজারো মানুষ টিকেট কেটে মহানন্দে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করছে ফয়েজ লেক পার্কে।

এদিকে, রাঙ্গুনিয়ায় বন বিভাগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত দেশের একমাত্র অ্যাভিয়ারি পার্ক ও দীর্ঘতম ক্যাবলকার প্রকল্পে হাজার হাজার পর্যটক ভিড় করছে বলে জানিয়েছেন দায়িত্বে থাকা বন কর্মকর্তারা। এখানে ন্যূনতম ফি দিয়ে টিকেট কেটে দেশ-বিদেশের দুর্লভ মূল্যবান পাখিদের সাথে সময় কাটানোর সুযোগ পাচ্ছে পর্যটকরা। রয়েছে লেক, সবুজ প্রকৃতি আর দেশের দীর্ঘতম ক্যাবলকার।



রাইজিংবিডি/চট্টগ্রাম/৬ জুন ২০১৯/রেজাউল/সাইফুল

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়