ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মিন্নির মুখ চেপে ধরলো পুলিশ

রুদ্র রুহান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-২০ ৮:৩৬:১৫ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-২০ ৬:১৩:০৫ পিএম
মিন্নির মুখ চেপে ধরলো পুলিশ
Walton E-plaza

বরগুনা সংবাদদাতা : বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে শুক্রবার বিকেলে আদালতে হাজির করা হয়। পাঁচদিনের রিমান্ডের তৃতীয় দিন দুপুরে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে মিন্নির স্বীকারোক্তি নিতে তাকে আদালতে তোলা হয়।

শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে বরগুনা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে মিন্নি স্বীকারোক্তিমূলক এ জবানবন্দি দেন। সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে আদালত থেকে বের করে কারাগারে নেয়া হয়।

এসময় মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর আদালত প্রাঙ্গনে উপস্থিত ছিলেন। মিন্নিকে কারাগারে নিতে দু'জন নারী পুলিশ সদস্য আদালত থেকে হাত ধরে নিয়ে গাড়িতে তোলে। এসময় বাবা কিশোর চিৎকার করে মেয়েকে ডাকতে থাকেন। তিনি বলেন, ‘মিন্নি মা,  মিডিয়ার সাথে কথা বল, তোকে নির্যাতন করা হয়েছে, আপনারা ওরে কথা বলতে দেন। আমার মেয়েকে জোর করে স্বীকারোক্তি নেয়া হয়েছে। আমার মেয়ে অসুস্থ, প্লিজ ওকে নির্যাতন করবেন না।’

মোজ্জাম্মেল হোসেন আরও বলেন, ‘মেয়ে আমার জীবন বাজি রেখে তার স্বামীকে রক্ষা করতে গেছে। এটাই তার অপরাধ?’

পিকআপে তোলার সময় ও গাড়ির ভেতর বসে মিন্নি কিছু একটা বলার জন্য উদ্যত হয়েছিলেন। কিন্তু পাশে থাকা নারী পুলিশ সদস্য এ সময় মিন্নির মুখ চেপে ধরেন।

এর আগে, বরগুনা পুলিশ লাইন্সে দিনভর জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবার রাত ৯টায় মিন্নিকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ।

মামলায় মিন্নিসহ এ পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ২ জুলাই ভোরে মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। এখন পর্যন্ত এজাহারভুক্ত ও জড়িত সন্দেহে ১৩ জন জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। এ ঘটনায় বর্তমানে ২ নম্বর আসামি রিফাত ফরাজী ও ৩ নম্বর আসামি রিশান ফরাজী বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে রয়েছে। 

 

রাইজিংবিডি/বরগুনা/২০ জুলাই, ২০১৯/রুদ্র রুহান/লাকী

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge