ঢাকা, শনিবার, ২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

গাজীপুরে নারী পোশাকশ্রমিক ৫ দিন নিখোঁজ

হাসমত আলী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-১৩ ১০:৫২:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-১৩ ১০:৫৬:২১ পিএম
গাজীপুরে নারী পোশাকশ্রমিক ৫ দিন নিখোঁজ
Walton E-plaza

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুরে সুমি আক্তার (২০) নামের এক নারী পোশাক শ্রমিক পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন।

সোমবার রাতে তার ভাড়া ঘরের ডেসিং টেবিলের ড্রয়ার থেকে পলিথিনে মোড়ানো ৫ টুকরো মাংস উদ্ধার হয়েছে। তার স্বামী মামুন (২২) রয়েছে পলাতক। এতে ধারণা করা হচ্ছে সুমি আক্তারকে হত্যা করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীপুর উপজেলার মাষ্টারবাড়ির গিলারচালা এলাকায়। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯ টা পর্যন্ত সুমির সন্ধান পাওয়া যায়নি।

স্বজনদের ধারণা, সুমিকে তার স্বামী হত্যা করে কেটে মাংসের টুকরা পলিথিনে মুড়িয়ে ডেসিং টেবিলের ড্রয়ারে রেখে পালিয়েছে।

সুমি আক্তার নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার দেবকান্দা গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে। স্বামী মামুনকে নিয়ে তিনি গিলারচালা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। মামুন পেশায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রী এবং স্থানীয় একটি কারখানায় চাকরি করেন।

সুমির বোন বৃষ্টি জানান, তিনি ও সুমি আক্তার একই পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে কারখানায় তাদের দেখা ও কথা হয়। ঈদ করতে শুক্রবার বাবার বাড়ি নেত্রকোনায় যাওয়ার কথা ছিল সুমির। শুক্রবার সকালে মামুন তাদের মাকে ফোন করে জানিয়েছে যে, সুমিকে সে বাসে তুলে দিয়েছে। বিকেল গড়িয়ে গেলেও সুমি বাড়িতে না পৌঁছালে তার মা বিষয়টি তাকে (বৃষ্টি) জানায়। তারা মামুনের সাথে যোগাযোগ করে এবং তার কথায় আশ্বস্ত হয়ে অপেক্ষা করতে থাকে। পরদিন শনিবারও সুমি বাড়িতে না পৌঁছালে তিনি (বৃষ্টি) সুমিদের ভাড়া বাড়িতে গিয়ে খোঁজ করেন। এসময় বাড়ির লোকজন জানায় তারা মামুনকে বড় ব্যাগ নিয়ে বেরিয়ে যেতে দেখেছে কিন্তু সুমিকে দেখেনি। একপর্যায়ে বৃষ্টি তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করেন এবং সুমিকে না পেয়ে নতুন তালা লাগিয়ে চলে যান।

বৃষ্টি জানান, শনিবার থেকে মামুনের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

বৃষ্টি আরো জানান, ঈদের দিন সোমবারও সুমি বাবার বাড়িতে না যাওয়ায় সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি ফের বোনের ভাড়া বাড়িতে যান। ঘরের দরজা খুলতেই দুর্গন্ধ পেয়ে তল্লাশি করে ডেসিং টেবিলের ড্রয়ারে পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় মাংসের টুকরোগুলো দেখতে পান।

তিনি অভিযোগ করেন, সুমিকে হত্যার পর দেহ টুকরো করে ডেসিং টেবিলের ড্রয়ারে রেখে তার স্বামী মামুন পালিয়ে গেছে।

শ্রীপুর থানা পুলিশ মাংসের টুকরোগুলো উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) প্রণয় ভূষণ দাস জানান, মঙ্গলবার বিকেলে মাংসের টুকরোগুলোর ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। এগুলো মানব দেহের বলে প্রতীয়মান। তারপরও নিশ্চিত হওয়ার জন্য ডিএনএ স্টেস্টের জন্য পাঠানো হবে।

শ্রীপুর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) রাজিব কুমার সাহা জানান, বিষয়টির তদন্ত হচ্ছে এবং রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন।


রাইজিংবিডি/গাজীপুর/১৩ আগস্ট ২০১৯/হাসমত আলী/শাহনেওয়াজ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge